Advertisement
বকেয়া ডিএ (Arrear Dearness Allowances)
Advertisement

সম্প্রতি ডিএ মামলায় (Dearness Allowance) হেরেছে রাজ্য সরকার। আর আদালতের নির্দেশে সমস্ত বকেয়া ডিএ মিটিয়ে না দিয়ে, আর DA দেওয়া সম্ভব নয়, হলফনামা দিয়ে জানিয়ে দিলো নবান্ন। তবে রাজ্য সরকারী কর্মীদের পাওনাটা যে ন্যায্য, কার্যত তা একপ্রকাশ স্বীকার করে নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রী বকেয়া মহার্ঘ ভাতা কবে মিলবে, তা নিয়ে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করলেন।

Advertisement

কবে মিলবে বকেয়া ডিএ

গরিব মানুষের কথা ভাবেন মমতা, ভালো বেতন পান সরকারি কর্মীরা, তবুও ডিএ ঠিক সময়ে দেওয়া হবে, তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য মন্ত্রীর। রাজ্যের গরিব মানুষদের কথা মাথায় রেখে একাধিক প্রকল্প চালু করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগে রাজ্যের সাধারণ মানুষের কথা ভাবতে হয়। মনে রাখতে হবে, সরকারি কর্মচারীদের বেতন যথেষ্টই। রাজ্যের ১০ কোটি মানুষের মধ্যে কত লক্ষ সরকারি কর্মচারী আছেন? মন্তব্য করেছেন রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়।

তিনি আরো জানান, সঠিক সময়ই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দেবেন। সরকারি কর্মীরা যাতে ভাতা পান সেটা মুখ্যমন্ত্রীও চান।
প্রসঙ্গত গত ২০ মে কলকাতা হাইকোর্ট তিন মাসের মধ্যে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ৩১ শতাংশ ডিএ মিটিয়ে দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেয়। কিন্তু রাজ্য সরকার আদালতে এই নির্দেশ পুনর্বিবেচনার জন্য পিটিশন দাখিল করে। তার পরেও আদালত একই নির্দেশ বহাল রাখে।

Advertisement

নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে রাজ্য সরকার DA না দেওয়ায় কর্মচারীদের একাধিক সংগঠন আদালতে অবমাননার মামলা দায়ের করে। সেই মামলায় রাজ্যের মুখ্যসচিব এবং অর্থসচিবকে হলফনামা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। সেই হলফনামায় সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আদালত অবমাননার মামলা সঠিক নয়। রাজ্য সরকার সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হচ্ছে।

ই মুহূর্তে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সম্পূর্ণ বকেয়া ডিএ দিতে হলে রাজ্যে আর্থিক সমস্যার পরিস্থিতি তৈরি হবে। তাই এক্ষুনি এই বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভবপর নয় রাজ্যের পক্ষে। DA মামলার ফয়সালা সুপ্রিম কোর্টেই হবে। এই বিষয়েই রাজ্যের মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের গরিব মানুষদের আর্থিকভাবে স্বাবলম্বী করে তোলার জন্য একাধিক প্রকল্প গ্রহণ করেছেন।

EK24 News

রাজ্য সরকারি কর্মীরা আর বকেয়া ডিএ পাবেন না! হলফনামায় কি জানানো হল?

তাদের কথা আগে ভাবতে হচ্ছে। সরকারি কর্মচারীরা যথেষ্ট ভালো বেতন পান। রাজ্যের ১০ কোটি মানুষের মধ্যে কত লক্ষ সরকারি কর্মচারী আছেন? তবুও সঠিক সময়ে মুখ্যমন্ত্রী তাদের বকেয়া ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দেবেন। কিন্তু রাজ্যের সাধারণ মানুষদের জন্য যে সমস্ত প্রকল্প চলছে সেগুলোর জন্যই অর্থ বেশি পরিমাণে বরাদ্দ রয়েছে। ফলে সেটি যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।

Advertisement

রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের একাধিক সংগঠনের পক্ষ থেকে রাজ্যের মন্ত্রীর বক্তব্য প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, DA মামলা নিয়ে সরকার সুপ্রিম কোর্টে গেছে। তবে রাজ্য সরকারের উচিত সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে আলোচনা করে বকেয়া ডিএ মিটিয়ে দেওয়া।

2014, 2017 যোগদান করা প্রাথমিক শিক্ষকদের ভবিষ্যৎ ফের সংশয়, আদালতের তোপ অব্যাহত।

এটা ঠিক, রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা যথেষ্ট ভালো পরিমাণে বেতন পান। তারা সংগঠিত কর্মচারী। রাজ্যের অধিকাংশ মানুষ বর্তমান অর্থনৈতিক পরিস্থিতিতে দৈনন্দিন জীবনযাপন করতে গিয়ে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। সেখানে রাজ্য সরকার একাধিক প্রকল্প নিয়ে সাধারণ মানুষকে সহায়তা করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। আর সেই জায়গায় সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ডিএ নিয়ে একের পর এক আন্দোলন রাজ্যের অধিকাংশ মানুষ ভালো চোখে দেখছেন না বলেই মনে করছে অভিজ্ঞ মহল। এই প্রসঙ্গে রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।

রেশন, রান্নার গ্যাস থেকে ব্যাংক পরিষেবা, আজ থেকে সারা দেশে 7 টি নিয়ম বদল, বিপদ এড়াতে জেনে নিন।

এদিকে বকেয়া ডিএ মামলায় জেতার পরও DA না দেওয়া নিয়ে দিলীপ ঘোষ জানাজ, মহার্ঘ ভাতা দেবে কিকরে। সব টাকা তো নেতাদের পকেটে চলে গেছে।
এদিকে সুপ্রীম কোর্টে বকেয়া ডিএ মামলাটি আগামী সপ্তাহে ওঠার কথা রয়েছে। আপডেট আসছে।
Written by Rajib Ghosh.

Advertisement
Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement