গঙ্গায় পূর্ণিমার ভরা কোটালে শহরে আরও বড় দুর্যোগের আশঙ্কা

ঘূর্ণাবর্ত ও মৌসুমি অক্ষরেখার জেরে রবিবার রাতভর বৃষ্টি হয়েছে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায়। সোমবার সকালেও বৃষ্টির বিরাম নেই। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, সারা দিন চলবে এই বৃষ্টি। তার মধ্যে সোমবার পূর্ণিমা। তার ফলে গঙ্গায় ভরা কোটাল দেখা যাবে। এই জোড়া ফলায় কলকাতাবাসীর দুর্ভোগ আরও বৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে।
সোমবার সকাল সাড়ে ৫টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৫টা ২৫ মিনিট পর্যন্ত চলবে পূর্ণিমা। অর্থাৎ সারা দিনই পূর্ণিমা রয়েছে। পূর্ণিমা তিথিতে জোয়ারের জল অন্য দিনের জোয়ারের তুলনায় বেশি হয়। একে ভরা কোটাল বলে। সোমবার সকাল ৮টা ১১ মিনিটে শুরু হয়েছে ভাটা। এই সময় জলের উচ্চতা কমেছে। ভাটার সময় জলের সর্বোচ্চ উচ্চতা ছিল প্রায় আড়াই মিটার। সকাল ১০টার পর থেকে ফের জলের উচ্চতা বাড়তে শুরু করেছে। বেলা ১২টা ৫৯ মিনিটে সর্বোচ্চ সীমায় পৌঁছবে জলতল। সেই সময় জলের সর্বোচ্চ উচ্চতা হবে সাড়ে পাঁচ মিটারের বেশি।ভরা কোটালের জন্য সকাল সাড়ে ১০টার পর থেকেই সব লকগেট বন্ধ থাকবে বলেই পুরসভা সূত্রে খবর। তার ফলে শহরে জমে থাকা জল তার পর আর পাম্প করে বার করা যাবে না। বিকালের পরে গঙ্গায় জল কমলে ফের খোলা হবে লকগেট। এই সময়ের মধ্যে বঙ্গোপসাগরে তৈরি হওয়া ঘূর্ণাবর্ত ও মৌসুমি অক্ষরেখার জেরে ভারী বৃষ্টি হলে কলকাতায় জল আরও বেশি জমবে বলেই আশঙ্কা। তার জেরে আরও দুর্ভোগে পড়তে পারেন শহরের বাসিন্দারা।

Advertisement
শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment