Advertisement
Primary TET, SSC TET (টেট বিজ্ঞপ্তি)
Advertisement

টেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হওয়ার পর দ্বিধাবিভক্ত প্রার্থীরা।

প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের নবনির্বাচিত সভাপতি গৌতম পাল, নিয়মিত শিক্ষক নিয়োগের প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পরই টেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। তিনি জানিয়েছিলেন, এবার থেকে প্রতি বছর সঠিক ভাবে TET পরীক্ষার আয়োজন করবেন তারা।

Advertisement

কেবল বক্তব্য পেশই নয়, পাশাপাশি তিনি প্রাথমিকের গ্রিভেন্স পোর্টাল চালু করেছেন! সঙ্গে ১১ সদস্যের একটি গ্রিভেন্স সেলও গঠন করেছেন। যেখানে টেট ও শিক্ষক নিয়োগের যাবতীয় অভিযোগ খতিয়ে দেখা হবে। এবং দুর্নীতিমুক্ত শিক্ষক নিয়োগের ব্যাবস্থা করবে। এবং এই নিয়ে গতকাল শিক্ষামন্ত্রী এক জরুরী মিটিং ও করেন।

কিন্তু এইবছরেই TET পরীক্ষা নেওয়া হবে কিনা, সেই নিয়ে সুনিশ্চিত কোনো ধারণা তিনি দেননি। এখন সূত্রের খবর অনুসারে জানা গিয়েছে, যেহেতু প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের বিরুদ্ধে একাধিক কোর্ট কেস রয়েছে , তাই কেস চলাকালীন পরিস্থিতিতে নতুন করে টেট নিতে গেলে ফের বিতর্ক দেখা দিতে পারে এবং আদালতের কঠোর রায়ের মুখে কমিটিকে পড়তে হতে পারে। এই আশঙ্কা থেকেই এখনই প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা নেওয়ার পক্ষপাতী নন কমিটির বেশ কিছুজন সদস্য।

Advertisement

তবে বিভিন্ন মাধ্যমে এখনই জানা গেছে, পুজোর পরই নাকি টেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হবে। তবে পরীক্ষা আসলে কবে নেওয়া হবে সেই নিয়ে একটি মিটিং হয়েছিল। মিটিং শেষে পর্ষদ সভাপতি গৌতম পাল জানান, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশানুযায়ী চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসেই TET পরীক্ষা নেবার কথা ছিল।

কিন্তু গৌতমবাবু সভাপতি নিযুক্ত হয়েছেন আগস্ট মাসে। তাই কম সময়ের আয়োজনে তাড়াহুড়ো করে শিক্ষক নিয়োগের পক্ষপাতী নন তিনি। তিনি চাইছেন, পরীক্ষা হোক ডিসেম্বরে। অন্যদিকে আগের পরীক্ষার রেজাল্ট দেওয়া হলেও নিয়োগ শুরু হয়নি, এই বিষয়টিও নজরে রয়েছে।

EK24 News

এখন দেখার, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে পরীক্ষা সেপ্টেম্বরে হয় নাকি ডিসেম্বরে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, প্রায় ২০,০০০- ২২,০০০ শিক্ষকের শূন্য পদ রয়েছে প্রাথমিকে! সেখানে ২০১৭ টেট পাশ ট্রেণ্ড প্রার্থীদেরকে এবং ২০১৪ টেট পাশ ট্রেণ্ড প্রার্থীদেরকে যোগ্যতা অনুসারে নতুন করে নেওয়া টেট পরীক্ষার আগে নিয়োগ করা হতে পারে বলে জানা গেছে।

Advertisement

আরও পড়ুন, শিক্ষক নিয়োগে জোড়া সুখবর, আদালতের নির্দেশের পর বিজ্ঞপ্তি ও শিক্ষামন্ত্রীর জরুরী বৈঠক, কি আপডেট এলো?

এদিকে এখনও ২০১৪ সালের নিয়োগ সম্পুর্ন হয়নি, কয়েকটি মামলা চলছে। চলতি বছরে ২০১৭ টেট এর রেজাল্ট প্রকাশিত হলেও নিয়োগ হয়নি। এরই মধ্যে আগের নিয়োগ না সম্পন্ন করে নতুন করে টেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের খবর আসতেই কার্যত ভেঙ্গে পড়েছেন ২০১৭ টেট পাশ প্রার্থীরা। তাদের কথায় আগের চাকরী না দিয়ে কিভাবে সরকার আবার পরীক্ষা নেয়।

এদিকে নতুন টেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হবে জেনে অনেক নতুন প্রার্থীই প্রান ফিরে পেয়েছেন। এই দোলাচলে টেট পাশ পরিক্ষার্থীদের টেনশন বাড়ছে। এবার সরকার কি আগের টেট এর নিয়োগ সম্পন্ন করে তারপর নতুন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে? নাকি পুজোর পরই নতুন টেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে আবার মামলার রাস্তা তৈরী করবে, প্রশ্ন তুলছেন খোদ ২০১৭ এর পাশ করা প্রার্থীরা। আপনার মন্তব্য নিচে কমেন্ট করে জানাবেন।
Written by Antara Banerjee.

ষ্টেট ব্যাংক গ্রাহকদের পুজোর বোনাস দিচ্ছে ব্যাংক কতৃপক্ষ, কিভাবে পাবেন দেখুন।

Advertisement
Advertisement
2 thoughts on “টেট বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত, এক পক্ষের পৌষমাস অরেক পক্ষের সর্বনাশ, জানুন বিস্তারিত।”
    1. ২০১৪ সালের টেট এর OMR সিট ভালো করে দেখা হোক আগে।আদৌ সবার OMR সিট দেখা হয়েছিল তো?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement