Advertisement
West Bengal Primary TET Exam 2022
Advertisement

Primary TET Exam নিয়ে বিতর্ক শুরু।

একদিকে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যেই উত্তাল রাজ্য। আবার নতুন করে Primary TET Exam 2022 পরীক্ষা নিলেও সমস্যা হবে, সেই হুমকি বার্তা ও দেওয়া হচ্ছে।

Advertisement

এমনিতেই মামলা চলছে হাইকোর্টে। একের পর এক নির্দেশ আসছে। তদন্ত করছে সি বি আই এবং ই ডি। এর মধ্যেই দেখা দিয়েছে নতুন এক বিপত্তি। প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের TET পরীক্ষা নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি শুরু করেছে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। আর এই প্রক্রিয়া শুরু হতেই নয়া জটিল সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে।

2014 এবং 2017 সালের Primary TET Exam পরীক্ষায় যারা সফল এবং প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত রয়েছেন, তাদের নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত টেট পরীক্ষা নেওয়া যাবে না। এই দাবিতে পর্ষদ সভাপতি গৌতম পালকে একাধিকবার ফোন করা হয়েছে। সেই ফোনে হুমকির সুরে বলা হয়েছে, টেট পরীক্ষায় সফল হয়েছেন অথচ এখনো পর্যন্ত প্রাথমিকে নিয়োগপত্র পাননি, তাদের নিয়োগ না করে পরবর্তী TET পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু করলে হিতে বিপরীত হবে। এই হুমকি ফোনের পরেই মনে করা হচ্ছে আরেক নতুন সমস্যা তৈরি হতে চলেছে।

Advertisement

ইতিমধ্যেই রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের পক্ষ থেকে জারি করা নির্দেশিকায় জেলা প্রাথমিক বিদ্যালয় সংসদগুলির কাছে সেখানকার পরীক্ষা কেন্দ্র সম্বন্ধে বিস্তারিত তথ্য জানাতে বলা হয়েছে। কতগুলি এক্সামিনেশন সেন্টার রয়েছে, সেখানে কত পরীক্ষার্থী বসতে পারবে, পরিকাঠামো সংক্রান্ত সমস্ত বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদকে 9 সেপ্টেম্বরের মধ্যে জানাতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আর এর মধ্যে থেকেই উঠে এসেছে যে বিষয়টি সেটি হল, প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের জন্য TET পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তুতি শুরু করতে চলেছে পর্ষদ।
বর্তমানে রাজ্যে উচ্চমাধ্যমিকে 50 শতাংশ এবং দুই বছরের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত তরুণ তরুণীর সংখ্যা প্রায় 15 লক্ষ ছুঁই ছুঁই। 2017 সালের টেট পাশ একতা মঞ্চের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এতদিন পর্যন্ত আগের পরীক্ষায় সফল প্রার্থীদের নিয়োগ করে তবেই পরবর্তী টেটের প্রস্তুতি নেওয়া হতো।

EK24 News

নতুন করে TET পরীক্ষা কবে হবে, শিক্ষক দিবেসের দিনই জানিয়ে দিল পর্ষদ।

এবার পর্ষদের পক্ষ থেকে অন্যথা করা হচ্ছে। আগে Primary TET Exam পরীক্ষায় পাশ প্রার্থীদের নিয়োগ করতে হবে। তারপরেই পরবর্তী টেটের প্রস্তুতি নিতে হবে।
পর্ষদ সভাপতি গৌতম পাল জানান, তার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে একের পর এক ফোন এসেছে। সেখানে আগের পরীক্ষায় পাশ করা প্রার্থীদের নিয়োগ সম্পন্ন করে পরবর্তী টেটের প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

Advertisement

তার কথায়, Primary TET Exam এর সঙ্গে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ার কোনো সম্পর্ক নেই। নিয়ম অনুযায়ী টেট পরীক্ষার প্রস্তুতি শুরু করা হয়েছে। তবে সমস্ত বিষয়টাই শিক্ষা মন্ত্রী এবং স্কুল শিক্ষা দপ্তরের আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত 2014 সালের প্রাথমিক TET সফলদের মধ্যে 42 হাজার 900 শিক্ষক নিয়োগ করা হয়েছে। প্রথম দফার ইন্টারভিউয়ে যারা ডাক পাননি 2020 নভেম্বরের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী পরবর্তীতে সাড়ে 16 হাজার পদে আবার শিক্ষক (Teacher) নিয়োগ হয়। তবে Primary TET Exam পাশ করে যারা এখনো পর্যন্ত নিয়োগপত্র পাননি, তারা ধর্মতলায় অবস্থান করছেন।

2017 সালের টেটের বিজ্ঞপ্তি বের হয়। গত বছর 31 শে জানুয়ারি সেই Primary TET Exam নেওয়া হয়। তাতে সফল হয়েছেন 9 হাজার 896 জন। তারা এখনো পর্যন্ত ইন্টারভিউয়ে বসার সুযোগ পাননি।
যদিও টেটের সঙ্গে নিয়োগের কোনো সম্পর্ক নেই। এই বিষয়ে স্কুল শিক্ষা দপ্তরের দাবি, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনেই প্রতিবছর TET নেওয়া হয়। টেটে সফল হলে শংসাপত্র দেওয়া হয়। যাতে পরবর্তীতে চাকরির বিজ্ঞপ্তি বেরোলে তারা বসার সুযোগ পান।
Written by Rajib Ghosh.

Advertisement

বিডিও অফিসে বিপুল সংখ্যক কর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি, ফর্ম ও বিজ্ঞপ্তি দেখুন

Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement