Primary Teacher Recruitment – পশ্চিমবঙ্গে শুরু হলো 12000 প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া।

সারা রাজ্য জুড়ে শিক্ষক নিয়োগ (Primary Teacher Recruitment) দুর্নীতির মাঝে বড়সড় ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রীর, প্রাথমিক এবং এসএসসিতে হাজার হাজার পদে নিয়োগ শুরু, বিস্তারিত জানুন।
খুব শিগগির রাজ্যজুড়ে শুরু হতে চলেছে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া (Teachers Recruitment Process) এমনটাই জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

Advertisement

শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি কান্ডে তোলপাড় সারা রাজ্য। প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী থেকে শুরু করে শিক্ষা দপ্তরের প্রাক্তন আধিকারিক, বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা, বর্তমানে নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে জেলবন্দি। জেট গতিতে তদন্ত চালাচ্ছে সিবিআই আর ইডি। একের পর এক নতুন তথ্য সামনে আসছে। আর প্রায় প্রতিদিন কলকাতা হাইকোর্টের পক্ষ থেকে নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে নিয়মিত কড়া পর্যবেক্ষণ এবং নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যেই বাতিল হয়েছে বহু চাকরি।

Advertisement

প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ, SSC-র Group-C পদে বহু চাকরিপ্রাপকদের চাকরি বাতিলের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এই প্রসঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চাকরি বাতিলের নির্দেশ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। মানবিক হওয়ার বার্তা দিয়েছেন তিনি। যারা দোষী তাদের কঠোর শাস্তি দেওয়ার কথা জানিয়ে যারা ঘটনার শিকার হয়েছেন, তাদের চাকরি বাতিল না করে ভুল সংশোধন করার সুযোগ দেওয়ার কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর রাজ্য জুড়ে যখন এরকম একটা আবহ চলছে, ঠিক সেই সময় রাজ্য সরকারের তরফে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে বড়সড় ঘোষণা করা হলো। কি জানালেন শিক্ষামন্ত্রী?

West Bengal Primary Teacher Recruitment 2023

রাজ্য শিক্ষা মন্ত্রী ব্রাত্য বসু জানিয়েছেন, রাজ্যে ১২ হাজার প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া খুব শীঘ্রই শুরু হয়ে যাবে। ইতিমধ্যেই প্রাথমিকে ১২০০০ পদের শিক্ষক নিয়োগের জন্য বোর্ডের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে, তাতে মনে হচ্ছে এপ্রিল মে মাসের মধ্যে প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ (Primary Teacher Recruitment) শুরু হয়ে যাবে। এক্ষুনি ১২ হাজার শূন্যপদে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ করতে হবে।

সম্প্রতি রাজ্যে প্রাথমিক টেট পরীক্ষা নেওয়া হয়ে গিয়েছে। তার ফল প্রকাশ হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। গত ১১ ই ডিসেম্বর এই Primary Teacher Recruitment TET পরীক্ষা নেওয়া হয়। ফলপ্রকাশের পর যারা যোগ্য প্রার্থী হিসেবে বিবেচিত হয়েছেন, শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য অনুযায়ী ১২ হাজার প্রাথমিকে শিক্ষক পদে নিয়োগ হয়ে গেলে আর কত সংখ্যক শূন্য পদ থাকবে, সেই বিষয়টি স্পষ্ট নয়। তবে প্রাথমিকে যে একটা বড়সড় শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগ (Primary Teacher Recruitment) হতে চলেছে খুব শিগগির, সেটা শিক্ষা মন্ত্রী বুঝিয়ে দিয়েছেন।

Advertisement

সিভিক ভলান্টিয়ারদের দেওয়া হলো নতুন দায়িত্ব।

শুধু তাই নয়, প্রাথমিকের সঙ্গে সঙ্গে এসএসসিতেও নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে বলে জানান ব্রাত্য বসু। তিনি বলেছেন, এরপরে মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক স্কুলগুলিতেও প্রধান শিক্ষক (Head Master) থেকে শুরু করে সমস্ত পদেই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে। মে মাসের মধ্যেই প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ শুরু হয়ে যাবে। তারপরে ধাপে ধাপে একাদশ- দ্বাদশ, নবম- দশম, ষষ্ঠ- অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষক নিয়োগের সমস্ত প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাবে। পুরনো প্যানেলের প্রার্থীদের এর মধ্যেই নিয়োগ শুরু হয়ে গিয়েছে।

পাঞ্জাব ন‍্যাশনাল ব্যাংকের গ্রাহকদের বড় ঝটকা, নতুন নিয়মে গ্রাহকদের কি প্রভাব পড়বে, জেনে নিন।

একদিকে শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি কান্ড (Primary Teacher Recruitment Scam) অন্যদিকে নিয়োগের দাবীতে চাকরিপ্রার্থীদের আন্দোলন চলছে। স্বচ্ছভাবে নিয়োগের দাবিতে চাকরিপ্রার্থীরা দীর্ঘদিন ধরেই আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। সামনেই পঞ্চায়েত ভোট। নির্বাচন কমিশন প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। পাশাপাশি, সমস্ত রাজনৈতিক দল রাজ্যজুড়ে গ্রামীণ প্রশাসন দখল করার লক্ষ্যে রাজনৈতিক কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে। আর ঠিক সেই সময়েই রাজ্য সরকারের তরফে Primary এবং SSC-তে নিয়োগ নিয়ে স্পষ্ট ঘোষণা করলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment