Holiday – রাজ্যের স্কুল কলেজ সরকারি অফিস ফের ছুটি ঘোষণা। নবান্নের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ।

আবারো রাজ্য সরকার ছুটি ঘোষণা (Holiday) করলো! বন্ধ থাকবে সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অফিস, সরকারি কাজকর্ম ও স্থানীয় ব্যাংক ও পোস্ট অফিস। কবে ছুটি, কি কারনে ছুটি, কত দিন ছুটি, কাদের জন্য এই ছুটি বিস্তারিত জেনে নিন।

Advertisement

New Holiday is declared in west bengal

নবান্ন তথা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অর্থদপ্তরের বিজ্ঞতি অনুসারে নির্দিষ্ট অঞ্চলের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি অফিস ফের একবার বন্ধ থাকবে বলে রাজ্য সরকার সূত্রে যেটা জানা গিয়েছে। তবে কি কারণবশত, কতদিন এই বিশেষ ছুটি দেওয়া হচ্ছে?

Advertisement

কি কারনে এই ছুটি?

প্রসঙ্গত, গত জুলাই মাসের প্রথম সপ্তাহে একই দিনে মিটে গিয়েছে ত্রিস্তরীয় পঞ্চায়েত নির্বাচন (West Bengal Panchayat Elections 2023)। তার ফলাফল বেরোনোর পর ও একাধিক স্থানে অশান্তির খবর পাওয়া গেছে। একদিনে সমগ্র রাজ্যে ভোট সম্পন্ন হওয়ায় কার্যত ২৩ এর পঞ্চায়েত নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বহু জায়গাটাতেই উঠে এসেছে অসঙ্গতি ও বিশৃঙ্খলার ঘটনা। যার দরুন সেই স্থানগুলিতে পুনঃ নির্বাচন করাতে চাইছে রাজ্য সরকার।

কোথায় ছুটি?

আবার অন্যদিকে ২৩ এর পঞ্চায়েত নির্বাচন এর পর সম্প্রতি ধূপগুড়িতে ঘটে যায় বিপদ। ধূপগুড়ির বিজেপি বিধায়ক বিষ্ণুপদ রায় প্রয়াত হওয়ায় আগামী ৫ই সেপ্টেম্বর, ২০২৩ সেখানে পনেরো তম বিধানসভা উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। সেই উপলক্ষ্যে আগামী সেপ্টেম্বর মাসের পাঁচ তারিখ ধূপগুড়িতে ভোটগ্রহণ পর্ব যাতে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয় তার জন্য ধূপগুড়ি সংলগ্ন দোকানপাট, বাজার, মার্কেট সহ সমস্ত স্কুল কলেজ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সমস্ত সরকারী অফিস বন্ধ (Holiday) থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

চলতি বছরে ছুটির তালিকা - Holiday List West Bengal

কোন কোন দিন ছুটি?

এদিকে নবান্ন সূত্রে আরও জানা যাচ্ছে যে ভোট গ্রহণ এর আগের দিন ৪ ঠা সেপ্টেম্বর এবং ভোট গ্রহনের পরের দিন অর্থাৎ ৬ই সেপ্টেম্বরও জরুরি ভিত্তিতে কেবল ধূপগুড়িতেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি অফিস বন্ধ থাকতে পারে।

Advertisement

আরও পড়ুন, পোস্ট অফিস গ্রাহকদের জরুরী নির্দেশ। পোস্ট অফিস সেভিংস অ্যাকাউন্ট থাকলে অবশ্যই দেখুন।

ভোটগ্রহণ কেন্দ্রগুলিতে নির্বাচনী প্রস্তুতি সারার জন্য উপনির্বাচনের আগের দিন অর্থাৎ ৪ঠা সেপ্টেম্বর, কেবল ধূপগুড়ির স্কুল কলেজ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারি অফিস Holiday বা ছুটি থাকতে পারে। আবার ভোট গ্রহনের পরের দিন অর্থাৎ ৬ই সেপ্টেম্বরও জরুরি ভিত্তিতে ছুটির কথা ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার।

কোথায় কোথায় ছুটি নেই?

রাজ্য সরকার তরফে বিবৃতি নোটিশ জারি করে জানানো হয়েছে যে রাজ্যের অন্য কোথাও এই ছুটির প্রভাব পড়বে না।
আগামী ৫ই সেপ্টেম্বর উপনির্বাচনের দিন কেবলমাত্র ধূপগুড়ি ও ধূপগুড়ি সংলগ্ন স্থানের স্কুল, কলেজ ও সরকারি অফিস বন্ধ (NI Act Holiday) থাকবে। যদিও ৫ সেপ্টেম্বর শিক্ষক দিবস হওয়ায় সারা রাজ্যের স্কুল কলেজে স্বাভাবিক ক্লাস হবে না। ওই দিনটি সারা দেশ জুড়ে পালন করা হয়ে থাকে।

আরও পড়ুন, পোস্ট অফিস গ্রাহকদের জরুরী নির্দেশ। পোস্ট অফিস সেভিংস অ্যাকাউন্টে চালু হলো নতুন

অর্থাৎ রাজ্যে অন্য জেলা গুলো এই নির্বাচনের আওতাভুক্ত না হওয়ায় ধূপগুড়ি ব্যতিত অন্যত্র সবকিছু জনজীবন স্বাভাবিকই চলবে। তবে অন্য রাজ্যে বসবাসকারী বা রাজ্যের মধ্যে অন্য স্থানে কর্মরত ধূপগুড়ির বাসিন্দা সরকারের নির্দেশমতো ভোটে অংশগ্রহণ করতে আসার জন্য কর্মস্থলে ছুটি নিতে পারবেন। অর্থাৎ কোনও কর্মী ধূপগুড়ির বাইরে কর্মরত হলেও যদি তিনি ধূপগুড়ির বাসিন্দা বা ভোটার হয়ে থাকেন, তবে তিনিও ভোটাধিকার প্রয়োগের জন্য ছুটি (Holiday) পাবেন।

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment