তীব্র গরমে গরমের ছুটি নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত। বদল হলো স্কুলের সময়সূচি। শিক্ষা দপ্তরের বিজ্ঞপ্তি

তীব্র গরমের জেরে বদলাল স্কুলের (Summer vacation School Timing) সময়সূচি। বড় ঘোষণা রাজ্যের সকল ছাত্রছাত্রীদের জন্য। এখন থেকে আর আগের টাইমে শুরু হবে না ক্লাস (Morning School). এই নিয়ে ইতিমধ্যে সমস্ত স্কুলগুলোকে নির্দেশ দিয়েছে রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ ও মধ্যশিক্ষা পর্ষদ (WBBSE). নতুন নিয়মে কটা থেকে শুরু হবে ক্লাস? কখন স্কুল ঢুকতে হবে ছাত্রছাত্রীদেরকে? দেখে নিন সবিস্তারে আজকের প্রতিবেদনে।

Advertisement

গরমে স্কুল ছুটি নয়, মর্নিং স্কুল

গত ২২ এপ্রিল থেকে শুরু হয়েছিল রাজ্যে গরমের ছুটি। অবশেষে ২ দিন আগেই ১০ তারিখে সেই ছুটি কাটিয়ে পুনরায় খুলেছে স্কুলগুলি। ক্লাস শুরু হয়েছে আগের মতোই। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে চরম সমস্যার মধ্যে পড়তে হচ্ছে সকল ছাত্র ছাত্রী ও শিক্ষকদের। বস্তুত, গরমের ছুটি (Summer Vacation) কাটলেও গরম বিন্দুমাত্র কমেনি রাজ্যে। বরং দিনকে দিন তাপমাত্রার পারদ ক্রমেই চড়ে চলেছে।

Advertisement

উত্তরবঙ্গের জেলাগুলোতে বর্ষা ঢুকলেও দক্ষিণবঙ্গ পুড়ে চলেছে গরমে। বেলা হলে বাইরে বেরোনোই যাচ্ছে না রোদের তাপে। এমতাবস্থায় স্কুল যেতে অসুবিধা হচ্ছে ছাত্রছাত্রীদের। অনেকে আবার কোন রকমের স্কুলে পৌঁছালেও অসুস্থ হয়ে পড়ছে বা প্রচন্ড ঘাম হয়ে নিস্তেজ হয়ে যাচ্ছে। শিক্ষকদেরও অনেকেই পড়ছেন একই সমস্যায়।

আরও পড়ুন, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারি কর্মীদের DA নিয়ে বিরাট চমক। নবান্নের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

শিক্ষা দপ্তরের সিদ্ধান্ত

সেই কারণে রাজ্যের সমস্ত স্কুলগুলোর সঙ্গে আলোচনা করে এবার বিশেষ সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা দপ্তর (School Education Department). উল্লেখ্য, সোমবার থেকে খুলেছে রাজ্যের স্কুল। এরপর দুদিন ধরেই ছাত্র-ছাত্রীদের কাছ থেকে অনেক অভিযোগ জমা পড়ায় স্কুলের প্রধান শিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক হয় জেলা স্কুল পরিদর্শকদের। তাদের মারফত রিপোর্ট যায় স্কুল শিক্ষা দপ্তরের কাছে। এরপরই বুধবার অর্থাৎ আজ শিক্ষা দপ্তরে তরফে এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। যাতে জানানো হয়েছে গরমের কারণে স্কুলগুলি তাদের সময় বদলাতে পারে।

কখন ক্লাস হবে?

এক্ষেত্রে বিভিন্ন স্কুলকে তাদের স্থানীয় আবহাওয়ার উপর নির্ভর করে সময়সূচী নির্ধারণের অনুমতি দিয়েছে শিক্ষা দপ্তর। বলা হয়েছে যে ছাত্র-ছাত্রী এবং শিক্ষকদের সুবিধার্থে যখন সম্ভব তখনই ক্লাস শুরু করতে হবে। আর সেই সময়েই পৌঁছাতে হবে সকলকে স্কুলে। প্রয়োজন হলে সকালের দিকেও ক্লাস করানোর আজ্ঞা দেওয়া হয়েছে স্কুল গুলোকে। রাজ্যের সমস্ত প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক স্কুল গুলিতেই এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।

Advertisement

আরও পড়ুন, রান্নার গ্যাসের দাম কমলো। প্রথম কেবিনেটেই বড় ঘোষণা নরেন্দ্র মোদীর।

তবে একই সঙ্গে শিক্ষা দপ্তর কড়া নির্দেশ দিয়েছে যে ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনায় যাতে কোন অবহেলা না হয়। তাদের সিলেবাস যাতে ঠিকভাবে সময়মতো শেষ হয় সেদিকে বিশেষ নজর রাখতে হবে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। অর্থাৎ স্কুল অথবা শিক্ষা পরিদর্শকের অফিস চাইলে মর্নিং স্কুল চালু করতে পারে। তবে সময় মেনে ক্লাস করতে হবে।
Written by Nabadip Saha.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment