Advertisement
সরকারি কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি (Salary Hike)
Advertisement

সবে দূর্গাপুজো, লক্ষ্মীপুজো মিটেছে। হাতে বেতনের যা টাকাপয়সা ছিল, উৎসবে খরচ হয়ে গিয়েছে। পুজোর মুখে বেতন, বোনাস সহ যা পকেটে ঢুকেছিল, পুজোর বাজার, ঘোরাফেরা, খাওয়া-দাওয়া, বেড়াতে গিয়ে পকেট একেবারে প্রায় খালি। মাস শেষ হতে এখনো প্রায় ১০ দিন বাকি। তার মধ্যেই রয়েছে কালীপুজো, দীপাবলি, ভাইফোঁটা, ছটপুজো সহ একাধিক উৎসব।

Advertisement

তবে চিন্তার কোনো কারণ নেই। রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের কালীপুজোর আগেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর দিচ্ছেন। অক্টোবর মাসের শেষদিকে ছুটি থাকার কারণে ২১ অক্টোবর থেকেই বেতন ঢুকতে চলেছে সরকারি কর্মীদের অ্যাকাউন্টে।

বেতন নিয়ে কি সিদ্ধান্ত?

সরকারের পক্ষ থেকে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ২১ অক্টোবর রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের Salary তাদের ব্যাংক একাউন্টে দিয়ে দেওয়া হবে। তবে Salary আগে দেওয়া হলেও সরকারি কর্মীদের বকেয়া DA দেওয়া নিয়ে কোনো বক্তব্য সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়নি। সরকারের রিভিউ পিটিশন খারিজের পরে সুপ্রিম কোর্টে দ্বারস্থ হবে কিনা রাজ্য, সেই বিষয়েও কোনো কিছু জানানো হয়নি।

Advertisement

ষষ্ঠ বেতন কমিশনের আওতায় রাজ্যের সরকারি কর্মীরা ৩ শতাংশ হারে DA পান। আবার কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা সপ্তম পে কমিশনের আওতায় ৩৮ শতাংশ হারে DA পান। সে যাই হোক, রাজ্যের সরকারি কর্মীরা বকেয়া ডিএ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে সরব। অথচ সরকারের পক্ষ থেকে যখন এই ধরনের সুবিধা পাচ্ছেন তারা, সেই বিষয়ে কোনো মতামত পাওয়া যাচ্ছে না।

পঞ্চায়েত নির্বাচনের দিনক্ষণ ঠিক করলো নির্বাচন কমিশন, পঞ্চায়েত ভোটের প্রস্তুতি রাজ্য জুড়ে।

রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের Salary দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সরকারের পক্ষ থেকে এদিনই অনুদান, সাম্মানিক এবং পারিশ্রমিকের টাকা দিয়ে দেওয়া হবে।
কর্মীদের অ্যাকাউন্টে স্যালারি ঢুকলেও অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মীরা কবে পেনশন পেতে পারেন?

EK24 News

রাজ্য সরকারি কর্মীদের জরুরী নির্দেশ নবান্নের, না মানলে চাকরির সুরক্ষা নিয়ে টানাটানি।

সে ক্ষেত্রে জানা গিয়েছে, রাজ্য সরকারের অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীদের পেনশন আগামী ১ নভেম্বর দেওয়া হবে অর্থাৎ সরকারি কর্মীরা কালীপুজো, ভাইফোঁটার আগে বেতন পেলেও অবসরপ্রাপ্ত কর্মীদের অ্যাকাউন্টে কালীপুজো, ভাইফোটার পরেই পেনশন ঢুকবে।

Advertisement

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের কারনে জরুরী পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। এবং উপকূলবর্তী সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়কে আশ্রয়কেন্দ্র হিসাবে প্রস্তুত করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
Written by Rajib Ghosh.

Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement