Advertisement
WB DA News
Advertisement

DA পেতে রাস্তা এবং আইন- উভয় লড়াইয়ে বিশাল পদক্ষেপ রাজ্য সরকারি কর্মীদের।

ইউনিটি ফোরাম DA কনটেম্পট মামলা করেছে গত ২২শে আগস্ট। তার শুনানীর তারিখ দিয়েছে ২৫শে আগস্ট। রাজ্য সরকারের তরফে রিভিউ পিটিশন দাখিল করেছে এর আগে রাজ্যের দুটি মামলাই আগামী ৫ সেপ্টেম্বর শুনানি হওয়ার সম্ভাবনা। সুতরাং হাইকোর্ট কনটেম্পট মামলার গুরুত্ব দিচ্ছে আদালত। এমনটাই সরকারি কর্মী সংগঠনের সভাপতির বক্তব্য।

Advertisement

তাদের আরো বক্তব্য যে এই DA কনটেম্পট মামলার কেস হচ্ছে রাজ্য সরকারের চিফ সেক্রেটারির বিরুদ্ধে। কিন্তু রাজ্য সরকার যে রিভিউ পিটিশন দাখিল করেছে, সেটি করেছে ফিনান্স ডিপার্টমেন্ট থেকে। এটাকে রাজ্য সরকারের অন্য রকম একটি পরিচালনা বলে মনে করছেন।

প্রসঙ্গত ছত্তিশগড়ের মোট প্রায় 4.5 লক্ষ সরকারি অফিসার ও কর্মচারী এবং শিক্ষক রয়েছে। তারা সম্প্রতি তাদের অধিকারের দাবি জানাতে গত সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের কালের জন্য আন্দোলন শুরু করেছিলেন। ৯০টির বেশি সংগঠন একসাথে রাজ্যে অচলবস্থা তৈরী করে দিয়েছিল। স্কুল, কলেজ, অফিস সব জায়গায় ঝুলছিল তালা।

Advertisement

ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রীও কোনো রকম সমঝোতায় যেতে রাজি নয়। তবে ৫ দিনের লাগাতার কর্মবিরতির পর রাজ্য ৫% ডিএ বাড়াতে বাধ্য হয়। কিন্তু এরপরও তারা কেন্দ্র থেকে ১২% কম ডিএ পাচ্ছেন এখনো। সরকার বলেছিল, যদি এভাবে চলতে থাকে তাহলে আইন আইনের পথে হাটবে। কিন্তু সরকারি কর্মীদের ছাড়া সরকার অচল। আর সেই পথেই হাটার পরিকল্পনা রয়েছে কর্মীদের।

মিছিল হয়েছে, মিটিং হয়েছে। এদিকে আবার সাথে সাথে চলছে আইনি লড়াই। কর্মবিরতির ডাকও দিয়েছেন। এবার বকেয়া ৩১ শতাংশ DA ছত্তিশগড়ের রাজ্য সরকারি কর্মীদের পথে হাঁটার দাবি তুলেছেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের একাংশ।

EK24 News

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সরকারী অফিসে আরও দুটি নতুন ছুটি ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী, নতুন ছুটির

বকেয়া মহার্ঘ ভাতার তথা নিজের আইনি অধিকার প্রতিষ্ঠা করার দাবিতে ক্রমশ নিজেদের বক্তব্য রাখছেন রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। আজ প্রতিকি ভাবে তাঁরা দু’ঘণ্টা কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন। তারপরও বকেয়া DA মিটিয়ে দেওয়া না হলে আন্দোলনের মাত্রা বাড়বে বলে জানিয়ে দিয়েছেন তাঁরা।

Advertisement

২৭শে আগস্ট কলকাতায় এক বিশাল মিছিল ও ৱ্যালি হয় এই ডিএ এর দাবিতে। সেখান থেকে উস্থির কর্মকর্তা জানান যে, কর্মবিরতি নিয়ে তারা আলোচনা করেছেন। অন্য সংগঠনের ডাকা কর্মবিরতিকে অবশ্যই তারা নৈতিকভাবে সমর্থন করেন। নিজেরাও তেমন সিদ্ধান্ত নিলে অবশ্যই জানাবেন।

আজ মঙ্গলবার তথা ৩০শে আগস্ট দু’ঘণ্টার কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। সকাল ১১ টা ৩০ মিনিট থেকে বেলা দুপুর ১ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত কর্মবিরতিতে সামিল হবেন একাধিক রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা।

রাজ্য সরকারি কর্মচারীর সংগঠনগুলির তরফে বলা হয়েছে, ‘কলকাতা হাইকোর্টের ডিএ মামলার রায়কে সরকার মান্যতা না দেওয়ার কারণে সরকারি দফতরগুলিতে কাজ না করে সরকারের অসযোগিতা পালন করুন।’ তাদের এই আহ্বানকে শিক্ষক সংগঠন উস্থি নৈতিকভাবে সমর্থন করেছে।

Advertisement

বকেয়া ৩১ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা প্রদান এবং সব শূন্যপদে নিয়োগের দাবিতে শনিবার মিছিল করেন সরকারি কর্মচারীরা। সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে রানি রাসমণি রোড পর্যন্ত মিছিল করেন ২৭ টি সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

প্রবল প্রকৃতিক দুর্যোককে উপেক্ষা করে এদিন কলকাতার রাস্তায় একসুরে পা মিলিয়েছিলেন রাজ্যের প্রায় ৪০ হাজারেরও বেশি সরকারি কর্মচারী সামিল হয়েছিলেন। এই বিপুল জনরাশিতে উপস্থিত ছিলেন ডাক্তার, নার্স, শিক্ষক, সরকারি কর্মচারীদের সংগঠনগুলি।

গত ২০ মে কলকাতা হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছিল, তিন মাসের মধ্যে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ৩১ শতাংশ ডিএ মিটিয়ে দিতে হবে। অর্থাৎ ১৯ অগস্টের মধ্যে সেই কাজটা করতে হত রাজ্য সরকারকে।

Advertisement

কিন্তু সেই সময়সীমা শেষ হওয়ার মাত্র কয়েকদিন আগে রিভিউ পিটিশন দাখিল করেছে রাজ্যের ফিন্যান্স দপ্তর। আজ ২৯শে আগস্ট সেই মামলা শুনবে হাইকোর্ট। এখন দেখার যে আইনি লড়াই কোন দিকে এগোয়?

রাজ্য সরকারি কর্মীরা অনেক ধৈর্য্যশীল। কারণ তাদের এই নৈতিক অধিকারের দাবি নিয়ে প্রায় ১১ বছরের বেশি সময় ধরে চলছে আন্দোলন। আইনি লড়াইও প্রায় ৭ বছর অতিক্রান্ত। তবে কতদিন তারা এভাবে নিজেদের সামলে রাখতে পারবেন, সেটাই এখন দেখার।

খুব তাড়াতাড়ি বাংলায় হতে পারে বেশ বড়ো আন্দোলন। সে বিষয়ে জানলে আপনাদের সাথে অবশ্যই শেয়ার করবো। এই সব আপডেট খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে থাকুন। আর আপনার মতামত দিতে একদম ভুলবেন না। ধন্যবাদ।
Written by Mukta Barai.

Advertisement

বিনামূল্যে রেশন পাওয়ার দিন শেষ, 3 মাস পর চালু করা হল নয়া নিয়ম।

Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement