Advertisement
West Bengal DA News
Advertisement

DA News – রাজ্য সরকারী কর্মীদের ডিএ ভাগ্য সুপ্রসন্ন হবে কি?

সরকারী নিয়ম অনুযায়ী, সরকারী কর্মীরা প্রতি বছরই দুই কিস্তি করে DA পেয়ে থাকেন। সেই নিয়মানুযায়ী এই বছরের দ্বিতীয় কিস্তি পেতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা। ফলে সেই নিয়ম অনুযায়ী এখন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ডিএ (Dearness Allowance) ৩১ শতাংশ থেকে বেড়ে গিয়ে দাঁড়ালো ৩৫ শতাংশে। আর কেন্দ্রের মতো ইতিমধ্যেই জুলাই থেকে ডিএ ঘোষণা করেছে একাধিক রাজ্য সরকার। যাদের মধ্যে অনেক রাজ্যেই পশ্চিমবঙ্গের চেয়ে আর্থিক অবস্থা অনেক পিছিয়ে। একদিকে কারো বাড়ছে স্বস্তি আবার কারো বাড়ছে হতাশা।

Advertisement

একে একে কেটে গিয়েছে আড়াই মাস। হাতে বাকি মাত্র ১৫ দিন। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ মতো আগামী ১৯ আগস্ট, ২০২২ পর্যন্ত সময় পাবে রাজ্য সরকার বকেয়া মেটানোর জন্য। তার মধ্যে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ৩৫ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা (ডিয়ারনেস অ্যালোওয়েন্স বা DA) মিটিয়ে দিতে হবে।

সম্প্রতি ত্রিপুরা সরকার তাদের রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের জন্য ৫ শতাংশ DA ঘোষণা করেছে এবং তা লাঘু হবে জুলাই,২০২২ থেকে। যেখানে আর্থিক দিক দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ ত্রিপুরার চেয়ে বেশ খানিকটা এগিয়ে। এছাড়াও আরো কিছু রাজ্য তাদের রাজ্যে ডিএ ঘোষণা করেছে। তাই এ রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরাও আশায় বুক বাঁধছেন।

Advertisement

তবে রাজ্য সরকারের তরফে কলকাতা হাইকোর্টের রায়ের (বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মেটানোর) পর থেকে অফিসিয়ালি ভাবে কোনও উচ্চবাচ্য করা হয়নি। প্রকাশ্যে কোনও রকমের মন্তব্যও করা হয়নি। অথচ হাইকোর্টের বেঁধে দেওয়া সময় অনুযায়ী, রাজ্যের হাতে আছে মাত্র ১৫ দিন। তবে কর্মী মহলের গুঞ্জন, বর্তমানে সকলের নজর টেট মামলা নিয়ে, তাই বকেয়া DA এখন সরকারের ভাবনার বিষয় নয়। যদিও কর্মীদের একাংশ আশাবাদী যে পুজোর আগে কিছুটা ডিএ দেবে রাজ্য সরকার।

প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গ বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্মীদের DA নিয়ে নজিরবিহীন কড়া মনোভাব আদালত নিলেও এখনো পর্যন্ত আদালতের সম্পূর্ণ নির্দেশ মানা হয়নি বলে বিদ্যুৎ কর্মীদের একাংশের অভিযোগ। কারণ এর আগে ডিএ না দেওয়ায় অফিসারদের বেতন বন্ধের নির্দেশ কোনো আদালত দিয়েছেন কিনা তা কেউই মনে করতে পারছেন না। আর সেই দিক দিয়ে দেখতে গেলে রাজ্য সরকারী কর্মীদের বকেয়া 35% আদৌ মিলবে কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট প্রশ্ন রয়েছে। তর্কের খাতিরে অনেক ধারণাই করা যায়, তবে বাস্তবায়ন করাটা দুষ্কর।

EK24 News

ইতিমধ্যে DA মামলাকারী কর্মী সংগঠন কনফেডারেশন অফ স্টেট গভর্নমেন্টস এমপ্লয়িজের তরফে রাজ্য সরকারকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। ১৯ আগস্টের মধ্যে বকেয়া ডিএ দেওয়ার ব্যাপারে যাতে সুমতি হয় সেই বিষয়ে নজরদারি করার অনুরোধ করা হয়েছে ফেডারেশনের তরফে। তবে এই চিঠিতে আদৌ সরকার কোনো সিদ্ধান্ত নেবে কিনা প্রশ্ন থেকে যায়।

Advertisement

পুরনো ৫ টাকার নোট থাকলেই মিলবে ৩ লক্ষ টাকা।

অন্যদিকে একাধিক কর্মী সংগঠন DA দেওয়ার নির্দেশ দিতেই হিসেব কষতে বসে গিয়েছেন। যেমন 2016 থেকে কর্মীদের লাখ লাখ টাকা ডিএ বকেয়া ডিএ পাওনা রয়েছে। অর্থাৎ লাখ লাখ টাকা একাউন্টে ঢুকবে। কিন্তু আদৌ কি তা বাস্তবে সম্ভব? সামগ্রিক হিসাব আর অতীতের অভিজ্ঞতা কি বলে? নীচে কমেন্ট করে অবশ্যই জানাবেন। আর যদিও এই মুহূর্তে ডিএ ঘোষণা হয়, তবে তা কত শতাংশ বলে আপনি মনে করেন, কমেন্ট করে জানাবেন।

তবে রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা আশাবাদী যে রাজ্য সরকার কোর্টের সিদ্ধান্তকে খুব শীঘ্রই মেনে নিয়ে তা যথাযথ উপায়ে DA ঘোষণা করে কর্মীদের আশা পুরন করবেন। আগামীকাল আরও আপডেট আসছে। এই রকমের নতুন খবরের জন্য আমাদের সাথে থাকুন। ধন্যবাদ।
Written by বকলম.

 ফাঁস হলো ডিয়ার লটারি কাটার গোপন সুত্র, এই নম্বর গুলো বেছে নিন, আর ম্যাজিক দেখুন।

Advertisement
Advertisement
13 thoughts on “পশ্চিমবঙ্গে বকেয়া DA বেড়ে হলো 35%, আপাতত কিছুটা দিয়ে ফারাক কমাতে চাইছে নবান্ন, কর্মীরা মানবে তো? কি সমাধান হলো?”
  1. ডিএ যে এখন দিতেই হতো , নইলে যে কেলেংকারির মোড় ঘুরতো না , মানুষের মন বড্ড বোঝেন মাননীয়া তাই …….

  2. আমারও দেখার আছে সংবিধান ও বিচারব্যবস্থাকে উপেক্ষা করে কি করে রাজ্যের জনগণ দ্বারা নির্বাচিত একটা সরকার হাইকোর্টের রায়কে মান্যতা না দেয় এবং সেই নির্বাচিত সরকারের বিরূদ্ধে হাইকোর্ট ই বা কি ব্যবস্থা নেয় !!!

  3. Advertisement
  4. এগারো সালের আগে রাজ্য সরকারি কর্মীদের দুঃখে কুমীরের কান্না দেখেছিলাম। ভোটে জিতে দায় শেষ । দয়ার দান বলে ভাবা ডিএ কে অধিকার বলে মানতে কষ্ট হচ্ছে । অনেক জল ঘোলা করেও কিছু করা যায় নি ।
    এখন এটাই দেখবার যে , সংবিধানের মান্যতা গুরুত্বপূর্ণ কিনা !

  5. Advertisement
  6. এই সরকার খেলা মেলা ঘুষ নিয়ে বর্তমানে ব্যস্ত রয়েছেন ।DAনিয়ে ভাববার সময় নেই ।এই সরকারের উপর বিন্দু মাত্র আশা নেই ।অথচ আমরাই এই সরকারকে ভোট দিয়ে বিপুল ভাবে 2011 সালে ক্ষমতায় এনেছিলাম ।

  7. কেস করে যখন DAনিতে হচ্ছে তখন 35% নেওয়া উচিত বলে আমি মনে করি।

  8. আমার মনে হয় না সরকার D.A দেবে।

  9. Advertisement
  10. The writ petitioners should file CONTEMPT PETITION ON 20TH AUGUST PRAYING FOR STRINGENT ACTIONS AGAINST THE STATE GOVERNMENT

  11. I accept 35%DA should be given by west Bengal government within the time period of High court Kolkata.

  12. Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement