Advertisement
West Bengal arrear DA (ডিএ)
Advertisement

বকেয়া DA নিয়ে আজ হাইকোর্টে শুনানি।

পশ্চিমবঙ্গে সরকারী চাকরি পেয়ে ও যেন সরকারি কর্মচারীদের স্বস্তি নেই। চাকরিরত সরকারি কর্মচারীদের যেন রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে এই DA বৈষম্য। ওদিকে উত্তরোত্তর দিয়ে বেড়ে যাচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ্য ভাতা।

Advertisement

তারা বছরে নিয়ম করে দুই কিস্তি করে DA পাচ্ছেন। এদিকে সময় চলে গেলেও রাজ্য সরকারি কর্মীদের ডিএ এর খোঁজ এখনও মিলছে না। হয়ে গিয়েছে একাধিক মামলার রায়।
যদিও রায় পক্ষেই গেছে রাজ্য সরকারি কর্মীদের। তবুও সেই রায় অমান্য করেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার। বরং উল্টো ভাবে রাজ্য সরকারি কর্মীদের সংগঠন এর পক্ষে দেওয়া রায়ের মামলার বিরুদ্ধে রিভিউ পিটিশন দাখিল করেছে মাননীয় উচ্চ আদালতের কাছে।

কবে যে মামলার রায় অনুযায়ী রাজ্য সরকারি কর্মীদের DA পাবেন তা এখনো কারোই জানা নেই। অবশ্য পুরোটাই যেন নির্ভরশীল রাজ্য সরকারের উপরে। এখানে যেন কর্মীদের আন্দোলন, দাবি এবং উচ্চ আদালতের রায় কোন কিছুই কোনো গুরুত্ব পাচ্ছে না। একমাত্র রাজ্য সরকার যদি সরকারি কর্মীদের জন্য ডিএ ঘোষণা করেন তাহলেই তা পাওয়া সম্ভব।

Advertisement

এই নিয়ে চারিদিকে শুরু হয়েছে নানান রকম জল্পনা। প্রত্যেকেই প্রকাশ করছে তার নিজস্ব মতামত এবং চিন্তাধারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় চলছে তার বিস্তর আলোচনা। অনেকেরই প্রশ্ন কবে দেবে? ডিএ দিলে কবে দেবে? একবারে দেবে নাকি ভাগে ভাগে। দেবে কি পিএফ অ্যাকাউন্টে নাকি সরাসরি ক্যাশ?

গত 19 আগস্ট এর মধ্যে হাইকোর্টের রায় অনুযায়ী রাজ্যসরকারকে। বকেয়া সকল ডিএ মিটিয়ে দেওয়ার কথা বলেছিল। কিন্তু এখন প্রশ্নটা হয়েছে ওই তারিখের মধ্যে তো আর ডিএ নিয়ে কোনো ঘোষণা হয়নি। এরপরে কনটেম্পন্ট মামলা দায়ের করেছে সরকারি কর্মীদের সংগঠন। এর শুনানি হবে আজ 5 ই সেপ্টেম্বর। আর এদিন রাজ্যের মুখ্য সচিবকে তলব করা হয়েছে বিচারপতির তরফ থেকে।

EK24 News

পশ্চিমবঙ্গের সরকারি কর্মী থেকে কলেজ পড়ুয়া। ছুটি পাচ্ছেন একটানা 90 দিন। বিস্তারিত পড়ে দেখুন।

তাহলে বিচারপতির প্রশ্নের উত্তরে তারা কি উত্তর দেবেন। এই পকেট দিয়ে কী তারা দুই কিস্তিতে দিবেন। নাকি তা দেয়া হবে পিএফ একাউন্ট- এই নিয়ে জল্পনা চলছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।
যদিও এখনো পর্যন্ত রাজ্য সরকারের তরফে আপাতত এমন কিছুই জানানো হয়নি। আপাতত ডিএ মামলায় কলকাতা হাইকোর্টে রিভিউ পিটিশন দাখিল করা হয়েছে। আবার অন্যদিকে দাখিল হয়েছে কনটেম্পট মামলা। অর্থাৎ দুই পক্ষই এখন আদালতে যে যার নিজের দাবিতে মামলা করেছেন।

Advertisement

এর মধ্যেই রাজ্য সরকারি কর্মীরা তাদের বকেয়া 31 শতাংশ মহার্ঘ ভাতা নিয়ে এবং সমস্ত শূন্য পদে নিয়োগের দাবিতে গত শনিবার মিছিল করেন। কলকাতার সুবোধ মল্লিক স্কয়ার থেকে রানী রাসমণি রোড পর্যন্ত এই বিশাল মিছিলে প্রায় 27 টি সংগঠনের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। সূত্র অনুযায়ী জানা যায়, ওই মিছিলে প্রায় 20 হাজার সরকারি কর্মচারী সামিল হয়েছিলেন।

এর মধ্যেই আবার গত মঙ্গলবার অর্থাৎ 30 শে আগস্ট দু ঘণ্টা কর্মবিরতিও পালন করেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা। দুপুর সাড়ে 11 টা থেকে দুপুর 1 টা 30 মিনিট পর্যন্ত কর্মবিরতি করেন তারা।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের প্রত্যেক প্রান্তেই কর্মবিরতিতে সাড়া মিলেছে। রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের সংগঠনগুলির তরফে বলা হয়েছে কলকাতা হাইকোর্টের ডিএ মামলার রায় সরকার মান্যতা না দেওয়ার কারণে সরকারি দপ্তর গুলিতে কাজ না করে সরকারের অসহযোগীতা দেখান তারা।

Advertisement

রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া ডিএ সরকার কবে মিটিয়ে দেবে এই প্রশ্ন সবার মনে। রাজ্য সরকারি কর্মীরা রাস্তায় আন্দোলন এবং আইনে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে সমানতালে। আপাতত সবার চোখ আজ 5 ই সেপ্টেম্বর শুনানি এর দিকে।

মহামান্য আদালতের রায় অবমাননার কনটেম্পট মামলার রায় কি হয় সেটাই এখন দেখার। আজ কি হয়, তার আপডেট শীঘ্রই দেওয়া হবে। প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে অবশ্যই শেয়ার করুন আর আপনার মূল্যবান কমেন্ট করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ।
Written by Mukta Barai.

জাগো প্রকল্প – পশ্চিমবঙ্গের মহিলাদের পুজোর উপহার, 5 হাজার টাকা দেওয়ার নির্দেশ মুখ্যমন্ত্রীর।

Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement