Madhyamik Pariksha – এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষা AI প্রযুক্তির ব্যবহার। পরীক্ষার্থী ও শিক্ষকদের এলার্ট করলো মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

আর হাতে মাত্র দুয়েক মাস, তারপর শুরু হতে চলেছে ছাত্র জীবনের সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষা Madhyamik Pariksha বা মাধ্যমিক পরীক্ষা। আর এই পরীক্ষা নিয়ে প্রত্যেক বছরই কিছু না কিছু সমস্যা দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু বিগত সকল বছরের সমস্যার কথা মাথায় রেখে এবারে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফে একাধিক জরুরি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এই বছরের মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হবে ফেব্রুয়ারি মাসের ২ তারিখ থেকে। তবে এবার মাধ্যমিক পরীক্ষার প্রশ্ন যাতে ফাঁস না হয় সেই ব্যাপারে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ (WBBSE).

Advertisement

Madhyamik Pariksha 2024.

পর্ষদ কি কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য তা জানতে এই প্রতিবেদনটি বিস্তারিত ভাবে পড়ুন।মাধ্যমিক পরীক্ষা (Madhyamik Pariksha) হল ছাত্র-ছাত্রীদের ক্যারিয়ার জীবনের একটি প্রথম ধাপ। এই পরীক্ষার নম্বর একটু ভুল ত্রুটি হলে ছাত্র ছাত্রীর ভবিষ্যৎ জীবন একদম অন্ধকার পথে চলে যাবে। তাই সকল অভিভাবকদের মনেও তাদের ছেলে মেয়েদের পরীক্ষা নিয়ে দুশ্চিন্তার সঞ্চার হয়।

Advertisement

একদিকে ছাত্র ছাত্রীরা যেমন এই পরীক্ষার প্রস্তুতিপর্ব নিয়ে ব্যস্ত থাকে অপরদিকে আবার তাদের মনে হয় সঞ্চার হয় যে পরীক্ষার প্রশ্ন কোনোভাবে ফাঁস হয়ে Madhyamik Pariksha বন্ধ হয়ে যাবে কিনা না। এই বিষয়ে বলি মধ্যশিক্ষা পর্ষদ (West Bengal Board Of Secondary Education) এমন এক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে যে ব্যবস্থাটির জন্য পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়া সম্ভব নয়। অনেকবারই দেখা যায় যে মাধ্যমিক পরীক্ষার (Madhyamik Pariksha 2024) প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়ে গেছে।

এই মোবাইল সৃষ্টি হওয়ার পরে মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্র (Madhyamik Pariksha Questions) ফাঁসের ঘটনা প্রায়শই ঘটতে দেখা যায়। মোবাইলের মাধ্যমে পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের ছবি তুলে ভাইরাল হওয়ার ঘটনাটি বিরল নয়। তবে এই বিষয়ে এবার কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্রে এবার থাকছে একটি কোড। যদি কেউ পরীক্ষার প্রশ্নের ছবি তোলে তবে তা কর্তৃপক্ষের নজরে চলে আসবে। এই প্রসঙ্গে পর্ষদের সভাপতি রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায় বলেছেন।

SBI Charges (স্টেট ব্যাংকের চার্জ)

”গতবারও দেখা গিয়েছে প্রশ্নের ছবি তুলে সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল হওয়ার ঘটনা। তাই আমরা এবার এই পদক্ষেপ নিচ্ছি। প্রশ্নপত্রের প্রত্যেকটি পাতায় থাকবে এই কোডের ব্যবহার। এর ফলে যে ভাবেই ছবি তুলুক না কেন, আমাদের নজরে চলে আসবে সেই কোড। যে প্রশ্নপত্রের ছবি তোলা হবে, সেই পরীক্ষার্থীর Madhyamik Pariksha বাতিল করা হবে।” এর পাশাপাশি পর্ষদের সভাপতি আরো জানান, ‘পরীক্ষা শুরুর পর প্রশ্নের ছবি তুলে তা বাইরে পাচার করাটা তো কোনও সাধু প্রয়াস নয়।

Advertisement

এখনও আগের বকেয়া বেতন বাকি! এর মধ্যেই নতুন বেতন কমিশন বসছে। জানালেন অর্থমন্ত্রী।

Madhyamik Pariksha ব্যবস্থা সম্পর্কে বিভ্রান্তি ও সন্দেহ তৈরি করাই এর উদ্দেশ্য। তাই এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে পরীক্ষা কেন্দ্রেই নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে ধরা সম্ভব। সে পরীক্ষার্থী হলে তার পরীক্ষাও বাতিল করা হবে।’ আর এই কারণের জন্য সকল পরীক্ষার্থীর উচিত এখন থেকেই ভালো করে পড়াশোনা করার মাধ্যমে নিজেদের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করা। অন্য কোন পন্থা অবলম্বন করলে শিক্ষার্থীদের সমস্যা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।
Written by Nupur Chattopadhyay.

দ্রুত টাকা বাড়াতে হলে এবং অবসর বয়সে নিশ্চিন্তে কাটাতে হলে এই

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment