Advertisement
Best Life Insurance Policy
Advertisement

Insurance and Investment, একটি প্ল‍্যানে জোড়া সুবিধা, দেখে নিন Best Life Insurance Policy.

ভবিষ্যৎ জীবন সুনিশ্চিত করার জন্য উপার্জন চলাকালীন আর্থিক পরিকল্পনা এবং তার সাথে নিরাপত্তার জন্য জীবন বীমা (Best Life Insurance Policy) করে নিতে হয়। প্রায় প্রত্যেকেই সেই বিষয়টি মাথায় রেখে বিনিয়োগ করতে থাকেন।

Advertisement

কারণ হঠাৎ কোনো শারীরিক অসুস্থতা বা দুর্ঘটনায় যদি পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তিটির মৃত্যু হয়ে যায়, তাহলে সেই সময় পরিবারটিকে যে নিদারুণ কষ্টের সম্মুখীন হতে হয়, সেই বিপদ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য জীবন বীমাতে বিনিয়োগ (Best Life Insurance Policy) করা উচিত। বিভিন্ন ধরনের বীমার প্ল্যান রয়েছে। যেখানে এই ধরনের কভারেজ দেওয়া হয়। তবে সেক্ষেত্রে বর্তমানে টার্ম লাইফ ইন্সুরেন্স প্ল‍্যানটি যথেষ্ট ভালো (Best Life Insurance Policy).

বিমার প্ল্যান নেওয়ার আগেই মাথায় রাখতে হবে, কতটা কভারেজ নেওয়া উচিত? কার জন্য এই কভারেজ নেওয়া যেতে পারে? এক্ষেত্রে যদি কোনো ব্যক্তির উপরে বাবা-মা, স্ত্রী, সন্তানের মত নির্ভরশীল পরিবারের মানুষেরা থাকেন, সেক্ষেত্রে তার দেরি না করে শীঘ্রই বিমা করা উচিত।

Advertisement

এবার কতখানি কভারেজ নেবেন, সেটা তার টাকার প্রয়োজন এর ওপরে নির্ভর করবে। সেই উপার্জনকারী ব্যক্তির উপরে নির্ভরশীল পরিবারের সদস্যদের টাকার প্রয়োজন কতখানি গুরুত্বপূর্ণ, ফলে তার অবর্তমানে বিমার কভারেজ এমন থাকা উচিত যাতে তার আয়ের বিকল্প হতে পারে, আবার কোনো লোন নেওয়া থাকলে মিটিয়েও দেওয়া যেতে পারে। অন্তত 1 বছরের আয়ের প্রায় 20 গুন বেশি Sum Assured Coverage রাখতে হবে।

Term Insurance Plan
এই প্ল্যানটিতে কোনো ব্যক্তি কোনো বিমার সংস্থাকে নির্দিষ্ট সময়ের জন্য সামান্য কিছু প্রিমিয়াম দিয়েই যথেষ্ট বেশি পরিমাণের কভারেজ পেতে পারেন। কোনো উপার্জনকারী ব্যক্তির মৃত্যু হলে তার পরিবারকে আর্থিকভাবে রক্ষা করার জন্য এই বিমাটি সবচেয়ে ভালো। বেশ কিছু বিমা কোম্পানির এই ধরনের পলিসি (Best Life Insurance Policy) রয়েছে। যেখানে মৃত্যু এবং গুরুতর অসুস্থতা দুটি ক্ষেত্রেই কভার করা রয়েছে।

EK24 News

যেমন উদাহরণস্বরূপ বলা যেতে পারে, এইচডিএফসি লাইফ ইন্সুরেন্সের মেয়াদী বিমা পলিসি (Best Life Insurance Policy). এখানে 3টি অপশন পাওয়া রয়েছে। জীবন এবং গুরুতর অসুস্থতার অটো ব্যালেন্স, লাইক প্রোটেক্ট অপশন এবং ইনকাম প্লাস অপশান। ইনকাম প্লাস অপশনটি নিয়মিত আয় করার জন্যই করা হয়। সেখানে বিমাকৃত ব্যক্তির 60 বছর হয়ে গেলে নিয়মিত আয়ের সুবিধা থাকে। অনলাইনে এই প্ল‍্যানটি কেনা যায়। আবার কোনো কারনে সেই ব্যক্তির মৃত্যু হলে নমিনি মোটা অংকের টাকা পেয়ে যাবে।

Advertisement

আরও পড়ুন, আজ DA মামলার শুনানিতে কি হল?

Whole Life Insurance Policy
যে কোনো বিমা কোম্পানির এই ধরনের বিমা নির্দিষ্ট সময়ের পরে যখন বিমার মেয়াদ শেষ হয়ে যায়, কোনো ব্যক্তি যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন বিমার সুবিধা পাবেন। এই প্ল‍্যানের ক্ষেত্রে যার নামে বিমা তিনি বিমাকৃত টাকার একটি অংশ তুলে নিতে পারবেন।

Child Insurance Plan
এই বিমা প্ল্যানটি মূলত শিশুদের জন্য। এখানে বিমা এবং বিনিয়োগ দুটোরই সুবিধা পাওয়া যায়। এই প্ল‍্যানটির মাধ্যমে সন্তানের ভবিষ্যতের জন্য একটা মোটা টাকার তহবিল তৈরি করা যেতে পারে। আর বয়স কম বলে প্রিমিয়াম ও কম।

Unit Linked Insurance Plan
এই ধরনের প্ল্যান এর ক্ষেত্রে যেটি সব থেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় সেটি হলো, বিমার সঙ্গে বিনিয়োগ করা যায়। দুই ভাগেই প্রিমিয়ামকে ভাগ করা যেতে পারে। জীবন বিমার (Best Life Insurance Policy) জন্য একটি, আর অন্যটি সম্পদ তৈরির জন্য ব্যবহার করা হয়। তবে কোনো ব্যক্তি সম্পত্তির জন্য যে টাকা দিয়েছিলেন সেটি তুলেও নিতে পারেন।

Advertisement

ষ্টেট ব্যাংকের 67 তম জন্মদিনে সবাইকে 6000 টাকা দিচ্ছে? জেনে নিন সম্পূর্ণ তথ্য।

Annuity Plan
এই প্ল‍্যানের নামকরণ থেকেই বোঝা যায় অবসরকালে টাকার প্রয়োজন মেটানোর জন্যই এই ধরনের প্ল্যান (Best Life Insurance Policy) নেওয়া হয়ে থাকে। এটা অনেকটা পেনশনের মত। যা নিয়মিত আয় দেয়। যদিও তার জন্য এককালীন টাকা বিনিয়োগ করতে হয়।

জীবন বিমা করা উচিত। তবে সমস্ত দিক চিন্তাভাবনা করেই বিনিয়োগ করতে হবে। কারণ সমস্ত জীবন বিমা সংস্থাই তাদের প্ল্যানকে ভালো বলে দাবি করে। যে কোনো জীবন বিমা কোম্পানির প্ল্যান কেনার আগে খুব ভালো করে ভেবেচিন্তে তারপরে সেই প্ল্যানটি গ্রহণ করা উচিত। যাতে পরবর্তীকালে সেই প্ল‍্যানে যা যা বলা আছে সেই সমস্ত বিষয়গুলি যেন বিমা সংস্থা পূরণ করে। যেন কোনো সমস্যা তৈরি না হয়।

তাই কোনো বিমা সংস্থার পলিসি কেনার আগে একাধিকবার সমস্ত কিছু পড়ে, দেখে তারপরেই সিদ্ধান্ত নেবেন। প্রতিবেদনটি ভালো লাগলে অন্যদের শেয়ার করুন ও EK24 News ফলো করুন। কোনও প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করুন।
Written By Rajib Ghosh.

Advertisement

এবার যেকোনো প্রাইভেট হাসপাতালে সরকারী সাহায্যে বিনামূল্যে চিকিৎসা পরিষেবা পাবেন, ঘোষণা।

Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement