শিক্ষক নিয়োগ -বিশাল ঘোষণা, পুজোর পর ৯৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ ও পার্শ্বশিক্ষকদের স্থায়ীকরন করবে ঝাড়খণ্ড রাজ্য সরকার – Teacher Recruitment Breaking News

চাকরীপ্রার্থীদের পূজোর সবচেয়ে বড় উপহার। 72000 শিক্ষক নিয়োগ শুরু হতে চলেছে ঝাড়খণ্ডে (Teacher Recruitment Breaking News)। ইতিমধ্যেই শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষা দফতরের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে ঝাড়খণ্ড রাজ্য সরকার। যাকে উৎসবের মরসুম এবং দুর্গাপূজার উপহার হিসেবে দেখা হচ্ছে। আর সুধু শিক্ষক নিয়োগই নয়, পার্শ্ব শিক্ষক ও চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের স্থায়ীকরণ করার প্রক্রিয়া ওশুরু করছে। তবে এখত্রে কিছুটা বাধা রয়েছে। রাজ্য সরকার চাইছে তারা নুন্যতম একটি পরীক্ষা দিয়ে পার্মানেন্ট হোক, কিন্তু তা মানতে চাইছে না, ৬৫হাজার পার্শ্বশিক্ষক।

Advertisement

প্যারা টিচার্স ইউনিফাইড অ্যাসোসিয়েশনের নেতা সঞ্জয় দুবে বলেন, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে তার কথা হয়েছে। মন্ত্রী সম্মত হন যে বিহারে যেভাবে মূল্যায়ন করে 5300-20200 বেতন স্কেলে প্যারা টিচারদের নিযুক্ত করা হয়েছিল, একইভাবে এখানেও প্যারা টিচারদের জন্যও নিয়ম প্রয়োগ করা হবে। TET যোগ্য প্রার্থীদের 9300-34000 বেতন স্কেলে মূল্যায়নের পরে রাখা হবে। Teacher Recruitment Breaking News

Advertisement

প্রসঙ্গত ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী জগর্নাথ মাহাতো রাজ্যের প্রাথমিক ও মধ্যমিক স্কুলে 72,000 শিক্ষকের নতুন পদ সৃষ্টির জন্য সম্মতি দিয়েছেন। স্কুল শিক্ষা ও সাক্ষরতা বিভাগের প্রস্তাবে তিনি তার অনুমোদন দিয়েছেন। শিক্ষকদের পদ সৃষ্টি সংক্রান্ত ফাইলটি এখন আইন বিভাগ এবং অর্থ বিভাগে যাবে, যেখান থেকে অনুমোদনের পর তা মন্ত্রিসভায় তোলা হবে। যদিও সংবাদসুত্রে জানা যাচ্ছে, শিক্ষক নিয়োগ যে হবে সেটা নিশ্চিত।Teacher Recruitment Breaking News

সুত্রের খবর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের জন্য পরীক্ষা নেওয়া হবে। এতে নতুন প্রার্থীদের পাশাপাশি প্যারা টিচারদেরও পরীক্ষা দিতে হবে।  ঝাড়খণ্ড স্টাফ সিলেকশন কমিশন পরীক্ষাটি পরিচালনা করবে। তবে নতুন প্রার্থী ও পার্শ্ব শিক্ষক একই সাথে পরীক্ষায় বসা নিয়ে দ্বিমত রয়েছে।  Teacher Recruitment Breaking News

ঝাড়খণ্ড রাজ্যের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগ দুই থেকে তিনটি পর্যায়ে হবে।  প্রাথমিক বিদ্যালয়ে 17,835টি এবং মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে 4,893টি শূন্যপদ রয়েছে।  পাশাপাশি, নতুন 72 হাজার পদ সৃষ্টির সাথে, রাজ্যের বিদ্যালয়ে মোট 95 হাজার পদে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে। প্রথম পর্যায়ে 30 হাজার থেকে 35 হাজার পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে। এতে অর্ধেক পদ প্যারা টিচারদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে। রাজ্যের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার অধিকারের অধীনে মোট 1.36 লক্ষ শিক্ষকের প্রয়োজন।  প্রাথমিক বিদ্যালয়ে 41,500 শিক্ষক কর্মরত আছেন, আর 22,700টি পদ খালি রয়েছে।  এই ভিত্তিতে, প্রায় 72,000 পদ তৈরি করা হচ্ছে।Teacher Recruitment Breaking News

Advertisement
শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment