Advertisement
সরস্বতী পুজোর ছুটি ঘোষণা (Swaraswati Pujo Holiday)
Advertisement

সরস্বতী পূজা উপলক্ষে পশ্চিমবঙ্গে অতিরিক্ত ছুটি ঘোষণা (Swaraswati Pujo Holiday 2023) মমতার। যার ফলে পর পর টানা ছুটি পাবেন সরকারি কর্মীরা।
রাজ্যে সরস্বতী পূজা উপলক্ষে অতিরিক্ত ছুটি ঘোষণা করলেন রাজ্যের মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর আগে সরস্বতী পুজো ছুটি নিয়ে একটি বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছিল। চলতি বছর অর্থাৎ ২০২৩ সালের ২৬ শে জানুয়ারি সরস্বতী পুজো হওয়ার কথা।

Advertisement

রাজ্যে অতিরিক্ত ছুটি ঘোষণা

এই একই দিনে পড়ছে ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবস। একে ঘিরেই “ছুটি সংক্রান্ত” বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছিল রাজ্য সরকারি এবং বেসরকারি কর্মচারীদের মধ্যে। সেই সকল বিভ্রান্তির ইতি ঘটিয়ে এদিন পরিষ্কারভাবে সরস্বতী পূজা উপলক্ষে অতিরিক্ত ছুটির ঘোষণা করলেন তিনি। নতুন ছুটি ঘোষণার ফলে কবে কবে ছুটি থাকছে, আসুন দেখে নেওয়া যাক।

প্রসঙ্গত ২০১৯ সালের এক প্রশাসনিক সভায় মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, কোনও সরকারি ছুটির দিনে রোব বার কিম্বা অন্য ছুটি থাকলে সেই ছুটি মার যাবে না। আর এর পরই একাধিক বার অতিরিক্ত ছুটি দিয়েছে রাজ্য প্রশাসন। আরও একবার একই দিনে দুটি ছুটির কারনে পরের দিনও ছুটি দিন মুখ্যমন্ত্রী। এআর এর ফলে শনি রবি মিলিয়ে একটানা ৪ দিন ছুটি পেতে পারেন কর্মীরা।

Advertisement

এদিকে সরকারি ক্যালেন্ডারে 26 শে জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সরস্বতী পুজো উপলক্ষে ছুটি থাকার কথা। কিন্তু দেখা যাচ্ছে সেদিনই ভারতের “প্রজাতন্ত্র দিবস” (Republic Day) তাই কর্মচারীদের কথা চিন্তা করেই মাননীয়া সরস্বতী পূজা উপলক্ষে অতিরিক্ত ছুটির ঘোষণা করেছেন। যার ফলে ২৬, ২৭ তারিখ ছুটি থাকবে। আর তার পর সনি ও রবি, তাই একটানা ৪ দিন ছুটি পাচ্ছেন সরকারী কর্মীরা।

মাধ্যমিক সাজেশন পেতে এখানে ক্লিক করুন

সরস্বতী পুজো উপলক্ষে অতিরিক্ত ছুটি পাওয়া যাচ্ছে পরপর দুদিন। অর্থাৎ ২৬শে জানুয়ারি বৃহস্পতিবার এবং ২৭শে জানুয়ারি শুক্রবার। ২৬ শে জানুয়ারি সরস্বতী পুজো এবং প্রজাতন্ত্র দিবস একসাথে পড়ায় পরের দিন 27 জানুয়ারি শুক্রবার সরস্বতী পূজা উপলক্ষে অতিরিক্ত ছুটি থাকছে।

EK24 News

নতুন বছরে এই 3 ব্যাংকে টাকা রাখলে পাবেন সর্বোচ সুদ, দেখতে দেখতে টাকা ডবল।

নবান্নে তরফে জানানো এই ঘোষণাতে রাজ্যের রাজ্য সরকারি ও বেসরকারি কর্মচারীদের মুখে হাসি ফুটেছে। কারণ বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার ছুটির সাথে সাথে অনেকেই হয়তো শনিবারও ছুটি নেবেন, অনেক রাজ্য সরকারী অফিস সনি বারে ছুটি থাকে। পরদিন অর্থাৎ ২৯ শে জানুয়ারি রবিবার পড়ায় সেই সপ্তাহে অনেকের কাছেই ছুটি থাকবে সাত দিনের মধ্যে চার দিন।

Advertisement

রাজ্য সরকারী কর্মীদের অগ্রীম 3 মাসের বেতন ঘোষণা, কিভাবে টাকা তুলবেন জেনে নিন।

যদিও স্কুল কলেজে একই দিনে প্রজাতন্ত্র দিবস ও পুজো পড়ায় বাড়তে চাপ রয়েছে স্কুলে স্কুলে। তার পরদিন ছুটা পড়ায় অনেকটাই স্বস্তি ফিরবে। এ বিষয়ে আপনাদের কোন প্রশ্ন বা বক্তব্য থেকে থাকলে নিচে কমেন্ট বক্সে জানতে পারেন। এরকম আরো খবর পেতে আমাদের ওয়েবসাইট ফলো করুন।

প্রতিদিন মাত্র ২ টাকার মোবাইল রিচার্জে অফুরন্ত ইন্টারনেট ও আনলিমিটেড Free

Advertisement
Advertisement
7 thoughts on “পশ্চিমবঙ্গে জানুয়ারীতে অতিরিক্ত ছুটি ঘোষণা, স্কুল কলেজ, সরকারী অফিস বন্ধ, বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ।”
  1. কি মজা কি মজা ছুটি আর ছুটি। হাততালি হয়ে যাক একটা।

    1. স্স্বাধীনতাত্ত্বোর কাল আর তার সাথে ৩৩ বছরের বামাচারী প্রগতিশীল (?) আন্দোলনে এবং শাসনে এ দুর্ভাগা বাংলা কর্মসংস্কৃতির দফারফা দেখেছে বিভিন্ন রূপে বিভিন্ন ভাবে এবং তা যথেষ্ট গভীর ছাপ রেখে যেতে পেরেছে সংশ্লিষ্ট মানবগোষ্ঠীর উপরেও যা থেকে আজও নিস্তার নেই। কর্মছাড়া কর্মীবর্গের পাওয়া সময়ে হাত দেওয়া তা নিয়মমাফিক বা “এক্সটেনডেড” নিয়মমাফিকই হোক, তোষণের খাতিরে, তা ধৃষ্টতার সামিল – এ বোধ খুবই স্পষ্ট কিছু বিচার বিবেচনার ঘোমটার আড়ালে যদিও। এটা আরও বিসদৃশ সত্য – যে এটা ঘটিয়ে চ’লতে হ’চ্ছে তাঁকেই যাঁর একক হ্যাঁ একক প্রচেষ্টায় এই বাংলার মানুষদের সাথে নিয়ে ঐ বামাচারি ব্যভিচারের মূলোৎপাটন করতে পেরেছিলেন অনেক ঘাম চোখের জল রক্ত ঝরিয়ে – এই বাংলাকে বাম রাহুমুক্ত ক’রে সাথে মূল্যবোধের স্পষ্ট প্রতিশ্রুতি দিয়ে। ফলতঃ সেদিনের অনেক যৌবনের চোখের জলে পতাকা বদলের দৃশ্যপট রচিত হ’য়েছিল তখন যা এখন ভাবাই মুশকিল।
      দুর্ভাগা এই বাংলা সাথে হীণমন্যতায় ক্লেদাক্ত এ শরীর মন !!

    2. 24th and 25th জানুয়ারী ছুটির দিন ঘোষনা করলে আরও ভাল হত, তাহলেই পুর সপ্তাহ ছুটির সোনার সোহাগা।

  2. ছুটি থাকলে নীচু class- এর ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে অনেকে খুশী হয় । সরকারি কম‘চারিদের আনন্দ পাওয়ার কারণ নেই। কম’সংস্কৃতি কি একেবারে চূলোতে গেল?

  3. এত দারুণ খুশির খবর এরকম খুশির খবর যদি আমরা দশ বছর আগে পেতাম আমরা মনে হয় 5 পাশ করে প্রাইমারি চাকরি পেয়ে যেতাম।

  4. Advertisement
  5. সমস্ত school এ 5 days week চালু করা হোক। এর ফলে সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে ছুটি নিয়ে বিভ্রান্তি কেটে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement