প্রত্যেক স্কুলে মিড ডে মিলের স্পেশাল অডিট, শিক্ষকদের ছুটিতে নিষেধাজ্ঞা, অডিটে কি কি দেখাতে হবে?

স্কুলগুলিতে মিড ডে মিলের বরাদ্দ একেবারে নামমাত্র। প্রাথমিকে মাথাপিছু পড়ুয়াদের বরাদ্দ ৪৯ পয়সা বাড়িয়ে ৫ টাকা ৪৫ পয়সা করা হয়েছে। আর উচ্চ প্রাথমিকে মাথাপিছু বরাদ্দ ৭৪ পয়সা বাড়িয়ে ৮ টাকা ১৭ পয়সা করা হয়েছে। বর্তমানে যেভাবে আকাশছোঁয়া মূল্যবৃদ্ধি, সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে এই বরাদ্দ নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তার উপর সূত্রের খবর, রাজ্যে মিড ডে মিল (Mid-Day-Meal) প্রকল্পে কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে অডিট শুরু হতে চলেছে।

Advertisement

স্কুল শিক্ষা দপ্তরের তরফে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। প্রতিটি জেলার ২০টি স্কুলে মিড ডে মিল প্রকল্পে সোশ্যাল অডিট (Social Audit) করা হবে। এই বিষয়ে জেলাশাসক এবং মহাকুমা শাসকদের কাছে নির্দেশ পাঠানো হয়েছে। প্রশাসনকে সমস্ত রকম সহযোগিতা করতে বলা হয়েছে। Mid Day Meal প্রকল্পে অডিটের সময় ৩জন করে অভিভাবক সঙ্গে থাকবেন। তাদের আলাদা প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

Advertisement

আগামী ২৮ নভেম্বরের মধ্যে জেলাশাসক এবং মহকুমা শাসকদের কাছে সংশ্লিষ্ট জেলা এবং মহাকুমার ২০টি করে স্কুলের নাম পাঠাতে বলা হয়েছে। সেই স্কুলগুলিতে মিড ডে মিল প্রকল্পে অডিট করা হবে। সূত্রের খবর অনুযায়ী, কেন্দ্রের নির্দেশে Mid Day Meal প্রকল্পে অডিট করতে চলেছে রাজ্যের স্কুল শিক্ষা দপ্তর।
নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে, স্কুলগুলিতে মিড-ডে-মিল প্রকল্পের প্রথম পর্যায়ের অডিটের কাজ শুরু হবে ১ ডিসেম্বর। চলবে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

রেশন সামগ্রী নিয়ে আর ডুপ্লিসিটি নয়, ওজনে কম কিংবা নিম্নমানের রেশন দেওয়া চলবে না।

মিড ডে মিল অডিটে কি কি দেখাতে হবে?

এই সময়ের মধ্যে মিড ডে মিল প্রকল্পের অডিট সম্পূর্ণ করে রিপোর্ট পেশ করতে হবে। পরবর্তী পর্যায়ের অডিট শুরু হবে ২০২৩ সালে। মিড-ডে-মিল প্রকল্পে অডিটের কাজ চলতে থাকবে। প্রতি ৬ মাস অন্তর এই অডিট করা হবে। অডিটের সময় স্কুলগুলির পরিবেশগত অবস্থা, রান্নাঘর, ডাইনিং রুম, স্টোর রুম, স্কুলে পানীয় জলের ব্যবস্থা, পরিকাঠামো সহ বিভিন্ন বিষয় খতিয়ে দেখা হবে।

এছাড়াও মিড ডে মিল প্রকল্পের ব্যালেন্স শীট যাচাই করা হবে। প্রকল্পের ব্যালেন্স অ্যাকাউন্ট খতিয়ে দেখা হবে। সেগুলি অভিভাবকদের দিয়ে যাচাই করা হবে। মিড ডে মিল প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা বলা হবে। স্কুলের যে শিক্ষক বা শিক্ষিকা মিড-ডে-মিল টেস্ট করে দেখেন, তার রেজিস্টার দেখা হবে। রান্নায় কোনও ত্রুটি থাকলে রাধুনীদের সাথে কথা বলা হবে।

Advertisement

প্রতিমাসে 55 টাকা জমিয়ে, সারাজীবন 36000 টাকা মাসিক পেনশন নিন। মোদী সরকারের নতুন প্রকল্প।

এই বিষয়ে বঙ্গীয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বলেন, এর মাধ্যমে শিক্ষকদের হয়রানি হবে। যেখানে প্রতি ৩জন শিশুতে ১জন অপুষ্টিতে ভুগছে, জিনিসপত্রের লাগামছাড়া মূল্যবৃদ্ধি, তার উপরে মিড ডে মিলে নামমাত্র বরাদ্দ করা হয়েছে। সেখানে এই অডিট করে শিক্ষকদের কাঠগড়ায় তোলা হচ্ছে।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment