Post Office Scheme – পোস্ট অফিসের এই স্কিমে টাকা বিনিয়োগ করুন। সবচেয়ে বেশি রিটার্ন পাবেন।

পোস্ট অফিসের নানা স্কিমে (Post Office Scheme) প্রত্যেক মানুষ নিজেদের টাকা বিনিয়োগ করে থাকেন। প্রতিটি মানুষের জীবনে অর্থের গুরুত্ব আছে। সকল মানুষ কাজের পাশাপাশি অর্থ জমিয়ে মোটা টাকার রিটার্ন পাওয়ার চেষ্টা করে। অর্থ বাড়ানোর জন্য প্রতিটি মানুষের উচিত লাভজনক স্কিমে বিনিয়োগ করা। অর্থ বিনিয়োগ করতে গিয়ে মোটা টাকা রিটার্ন পাওয়ার আশায় প্রচুর মানুষ ভুল জায়গায় বিনিয়োগ করে ফেলে।

Advertisement

Post Office Scheme Details With Many Benefits.

ভুল জায়গায় অর্থ বিনিয়োগ করার ফলে বহু মানুষের টাকা বেসরকারি সংস্থা থেকে ফেরত পাওয়া যায়নি। তাই অর্থ বিনিয়োগ করার আগে যে সংস্থায় অর্থ বিনিয়োগ করছে সেই সংস্থাটিকে ভালোভাবে দেখে নেওয়া উচিত। ব্যাংক বা পোস্ট অফিস ছাড়া কোনো সংস্থায় অর্থ বিনিয়োগ করা উচিত নয় কারণ ভুল সংস্থায় অর্থ বিনিয়োগ করা হল ঝুঁকিপূর্ণ কাজ। এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আজকে একটি দুর্দান্ত Post Office Scheme সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।

Advertisement

এই Post Office Scheme অর্থ বিনিয়োগ করলে সুবিধাভোগীদের ভবিষ্যৎ জীবনের জন্য আর কোনো চিন্তা করতে হবে না। পোস্ট অফিস বা ব্যাংক হল প্রতিটি মানুষের অর্থ বিনিয়োগ করার জন্য চোখ বুজে ভরসা করার জায়গা। পোস্ট অফিস তাদের সিনিয়র সিটিজেন স্কিমে অফার নিয়ে এসেছে। সিনিয়র সিটিজেন স্কিমে ৮.২% হারে সুদ দেওয়া হচ্ছে। স্কিমে যেহেতু পোস্ট অফিস বা ব্যাংক এর মাধ্যমে করা যায় তাই ভবিষ্যতে টাকা মার হয়ে যাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।

Senior Citizen Savings Scheme

এটি হল কেন্দ্র সরকার দ্বারা সমর্থিত। যদি কোন ব্যক্তি এই SCSS (Senior Citizen Savings Scheme) স্কিমের আওতায় অ্যাকাউন্ট খুলতে চান তবে তাকে নিকটবর্তী পোস্ট অফিস বা ব্যাংকে গিয়ে একাউন্ট খুলতে হবে। SCSS স্কিমটিতে টাকা বিনিয়োগ করতে গেলে প্রার্থীদের ৬০ বছর বয়স হতে হবে। তবে যদি কোনো ব্যক্তির বয়স ৫৫ বছরের বেশি হয় আবার ৬০ বছরের কম হয় সেই ব্যক্তিও এই Post Office Scheme এর সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

Primary TET Admit Card (প্রাথমিক টেট পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ড)

SCSS Calculator

SCSS স্কিমের সুদের হার ৮.২ % করা হয়েছে। SCSS স্কিমে পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার মাধ্যমে টাকা বিনিয়োগ করা যায়। তবে কেউ যদি চান সে ক্ষেত্রে Post Office Scheme এর বয়স পাঁচ বছর হবার পরে আরো তিন বছর বাড়ানো যেতে পারে। এক্ষেত্রে মাথায় রাখতে হবে যে তারিখে একাউন্ট খোলা হয়েছিল ঠিক তার পাঁচ বছর পর টাকাটি রিটার্ন পাওয়া যাবে। SCSS স্কিমটি আমানত আয়কর আইনের (Income Tax Rule) 80C এর অধীনে কর ছাড়ের যোগ্য।

Advertisement

এবার মহিলারা ও স্বাবলম্বী হবে। কেন্দ্র সরকারের নতুন প্রকল্পে 7.5% রিটার্ন পাবেন।

SCSS interest rate

এই স্কিনে টাকা বিনিয়োগ করলে দেড় লক্ষ টাকা পর্যন্ত ইনকাম ট্যাক্স ছাড় পাওয়া যায়। যদি কেউ মনে করেন যে এই স্কিমের একাউন্টটি বন্ধ করবেন সে ক্ষেত্রে তাদের পাঁচ বছর অর্থাৎ টাকাটি রিটার্ন পাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। Post Office Scheme এর এই ছাড়াও আরও অনেক স্কিম আছে যার মাধ্যমে দেশের সকল মানুষেরা নিজেদের টাকা সুরক্ষিতভাবে বিনিয়োগ করার মাধ্যমে ভালো টাকা রিটার্ন পেতে পারবেন।
Written by Nupur Chattopadhyay.

1st ডিসেম্বের থেকে নিষ্ক্রিয় হতে চলেছে সবার গুগল একাউন্ট!

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment