Advertisement
ষ্টেট ব্যাংকের চার্জ (SBI Charges 2023)
Advertisement

স্টেট ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট আছে? এই মাসে কিন্তু SBI Charges কাটার কথা! টাকা কাটার মেসেজ পেয়েছেন? কি কারনে টাকা কাটবে, কোন একাউন্ট থেকে কত টাকা কাটবে। সঠিক তথ্য জেনে নিন।

Advertisement

অধিকাংশ মানুষ কষ্ট করে যে টাকা উপার্জন করেন সেই টাকা বিভিন্ন ব্যাংকে বা পোস্ট অফিসে সঞ্চয় করে রাখেন। ভবিষ্যতের আর্থিক সুরক্ষার কথা ভেবেই মানুষকে এই সঞ্চয় করতে হয়। কিন্তু সেই সঞ্চয় করা টাকা থেকে যদি হঠাৎ কিছু টাকা অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে যায়, বা SBI Charges দিতে হয়, তাহলে স্বাভাবিকভাবেই ব্যাংকের সেই গ্রাহক চিন্তিত হয়ে পড়েন। কি কারনে এই টাকা কেটে নেওয়া হল? কতবার এই টাকা কাটা হবে? এই ধরনের বিভিন্ন প্রশ্ন মাথার মধ্যে চলে আসে।

সেই সময় হয় গ্রাহকেরা তার নিজের স্থানীয় ব্যাংকের শাখায় যান, আর তা না হলে ফোন করে বা এসএমএস করে আসল বিষয়টি জানার চেষ্টা করেন।
সম্প্রতি স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (State Bank of India) গ্রাহকদের ফোনে এরকম মেসেজ (Message) এসেছে। সেই মেসেজে জানানো হয়েছে, আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে ১৪৭.৫০ টাকা কেটে নেওয়া হয়েছে (SBI Charges). আপনি যদি স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার গ্রাহক হন, আর এই ধরনের কোনো মেসেজ পেয়ে থাকেন, তাহলে প্রথমেই জেনে নেওয়া দরকার এই মেসেজ কোনো ভুয়ো মেসেজ নয়।

Advertisement

SBI Charges Details:

SBI ব্যাংকের তরফেই এই মেসেজ পাঠানো হয়েছে। এবার প্রশ্ন উঠতে পারে, তাহলে গ্রাহকদের অ্যাকাউন্ট থেকে কেন এইভাবে টাকা কেটে নেওয়া (SBI Charges) হচ্ছে? ব্যাংক এই বিষয়ে কি জানাচ্ছে?
SBI Bank এর তরফে এই বিষয়ে Tweet করা হয়েছে। সেই টুইটে জানানো হয়েছে, ব্যাংকের চার্জ হিসেবে গ্রাহকদের অ্যাকাউন্ট থেকে ১৪৭.৫০ টাকা কেটে নেওয়া হয়েছে। যাদের কাছে SBI Charges Debit Card আছে তাদের অ্যাকাউন্ট থেকেই এই টাকা কাটা হচ্ছে। এই টাকা ডেবিট কার্ডের রক্ষণাবেক্ষণের চার্জ বাবদ কেটে নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে ব্যাংক।

এই ব্যবসা শুরু করলে মাত্র 1000 টাকার পুঁজিতে লাভ দেখলেই চমকে যাবেন।

টুইটার হ্যান্ডেলে SBI জানাচ্ছে, প্রতি ডেবিট কার্ড পিছু বার্ষিক রক্ষণাবেক্ষণের চার্জ ১২৫ টাকা, (SBI Charges) এবার তার উপরে ১৮ শতাংশ জিএসটি বসলে মোট ১৪৭.৫০ টাকা গ্রাহকদের কাছ থেকে নেওয়া হচ্ছে। কোনো গ্রাহক যদি তার নিজের ডেবিট কার্ড বদলাতে চান তাহলে ৩০০ টাকা এবং জিএসটি দিতে হয়। যাদের ডায়মন্ড বা প্লাটিনাম কার্ড রয়েছে তাদের ক্ষেত্রে প্রায় ৪০০ টাকার মতো চার্জ দিতে হয়। এদিকে মিনিমাম ব্যাল্যান্স না থাকলেও চার্জ দিতে হবে। ৩ বারের বেশি টাকা তুললে চার্জ দিতে হবে। তবে বেশিরভাগ ব্যাংকের ক্ষেত্রে মিনিমাম ব্যাল্যান্স ও ডেবিট কার্ডের এই রক্ষণাবেক্ষণের চার্জ প্রায় একই রকম।

EK24 News

পশ্চিমবঙ্গে জানুয়ারিতে আবার অতিরিক্ত ছুটি ঘোষণা!

এছাড়াও আরো একাধিক কারণ রয়েছে টাকা কেটে নেওয়ার। অ্যাকাউন্টে পর্যাপ্ত ব্যালেন্স (Minimum Balance) না থাকার ফলে গ্রাহকেরা ATM লেনদেনে ব্যর্থ হলে ২০ টাকা জরিমানা বাবদ দিতে হয়। তার উপরে GST বসানো হয়। মাঝে জরিমানা না নেওয়া হলেও এখন চালু হয়েছে।

Advertisement

ICICI Bank, HDFC Bank, Axis Bank, Kotak Mahindra Bank এবং ইয়েস ব্যাংক এই খাতে গ্রাহকদের থেকে জরিমানা নেয়। তবে গ্রাহকেরা এই জরিমানা এড়াতে পারেন। সেই কারনে SBI এর তরফে মিসড কল এবং এসএমএসের মাধ্যমে ব্যালেন্স জানার সুযোগ দেওয়া হয়েছে।
Written by Rajib Ghosh.

Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement