Advertisement
Salary Overdraft facilities (অগ্রীম বেতন)
Advertisement

সরকারী কর্মীরা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা না থাকলেও জরুরি প্রয়োজনে Salary Overdraft Facility এর মাধ্যমে পেয়ে যাবেন নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা। সম্প্রতি এই নিয়ম কেন্দ্রীয় সরকারী কর্মীদের ক্ষেত্রে থাকলেও এবার পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারী কর্মীরা ও এই সুবিধা পাবেন। লোনের জন্য আর অন্য কোথাও ছুটতে হবে না।

Advertisement

যে ব্যাংকে আপনার স্যালারি অ্যাকাউন্ট রয়েছে, সেই ব্যাংক থেকেই Salary Overdraft Facility নিয়মে এই সুবিধা পেতে পারেন আপনি। শুধু তাই নয়, টাকার পরিমান আপনার মাসিক বেতনের তুলনায় ৩গুণ হতে পারে। অর্থাৎ মাসিক বেতনের হিসাবে ৩গুণ বেশি টাকা অগ্রিম আপনার প্রয়োজনে নিতে পারবেন যে ব্যাংকে আপনার অ্যাকাউন্ট রয়েছে সেই ব্যাংক থেকে। তবে আপাতত নির্দিষ্ট কয়েকটি ব্যাংকে এই সুবিধা রয়েছে। তবে চিন্তার কারন নেই, স্টেট ব্যাংক (SBI), PNB, ICICI, HDFC, AXIS Bank এর মত প্রথম সারীর ব্যাংক গুলোর সবকটি শাখায় এই সুবিধা পাবেন।

সাধারণত ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে টাকা না থাকলে হঠাৎ যদি কোনো সমস্যা তৈরি হয় বা কোনো প্রয়োজন পড়ে, তাহলে সেক্ষেত্রে টাকা তোলা সম্ভব হয় না। সেই সময়ে একটি কথাই ভাবনার মধ্যে আসে, কোনো জায়গা থেকে টাকা ধার করতে হবে, তা না হলে লোন নিতে হবে। এবার টাকা ধার যেকোনো জায়গায় চাইলেই তো আর হলো না, যে ধার চাইলেই সঙ্গে সঙ্গে টাকা মিলবে, এমনটাও নয়। আর লোন নিতে গেলে তার যে স্বাভাবিক প্রক্রিয়া রয়েছে তাতেও বেশ কিছুটা সময়সাপেক্ষ।

Advertisement

তবে এই বিষয়ে চিন্তার কোনো কারণ নেই। কারণ এই পরিষেবার মাধ্যমে দেশের ব্যাঙ্কগুলি নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা ব্যাংকের অ্যাকাউন্টে (Bank Account) না থাকলেও গ্রাহকদের প্রদান করে থাকে। এবার এই Salary Overdraft পদ্ধতিটি সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

Salary Overdraft Facility

যদি কোনো ব্যক্তির ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা না থাকে, তাহলে তিনি ওভারড্রাফ্ট (Salary Overdraft) এর মাধ্যমে মাসিক বেতনের তুলনায় ৩গুণ বেশি টাকা অগ্রিম নিতে পারবেন। এই Overdraft পদ্ধতি দেশের মধ্যে কয়েকটি ব্যাংক দিয়ে থাকে। State Bank of India, ICICI Bank সহ আরো কয়েকটি ব্যাংক গ্রাহকদের ওভারড্রাফট এর মাধ্যমে অগ্রিম ঋণ হিসেবে টাকা দিয়ে থাকে।

EK24 News

যদি কোনো ব্যক্তি মাসিক বেতনভোগী হন, তাহলে তাকে এই ওভারড্রাফটের বিষয়ে ব্যাংকের তরফে সাধারণত জানানো হয়। এছাড়াও গ্রাহকদের নির্দিষ্ট ব্যাংকের কি কি পরিষেবা রয়েছে, সেই বিষয়েও অবহিত করা হয়ে থাকে। তবে ওভারড্রাফট পদ্ধতিতে টাকা অগ্রিম নেওয়ার ক্ষেত্রে বেশ কিছু নিয়মকানুন রয়েছে।

Advertisement

নতুন বছরে সমস্ত ব্যাংকের গ্রাহকদের নতুন করে এই সব ডকুমেন্টস জমা করতে হবে, কি কি জেনে নিন।

অনেকেই মনে করেন, Salary Overdraft পদ্ধতি বেশ কিছুটা জটিল। কারণ ব্যাংক তার গ্রাহককে Overdraft পদ্ধতিতে টাকা দেওয়ার আগে গ্রাহকের ক্রেডিট রেটিং স্কোর (Credit Rating Score) যাচাই করে। তারপর সেই গ্রাহককে নির্দিষ্ট সমস্ত শর্ত, তথ্য এবং নথি পূরণ করে সঠিকভাবে জমা দিলে তবেই ওভারড্রাফ্ট পদ্ধতিতে টাকা নেওয়া যায়। এই Salary Overdraft পদ্ধতিতে অগ্রিম টাকা ঋণ নিতে গেলে অবশ্যই তাকে সেই ব্যাংকে Salary Account থাকতে হবে। মাসিক বেতনভোগী হলে তবেই এই পদ্ধতিতে টাকা ঋণ নিতে পারবেন। আবার গ্রাহকের আর্থিক অবস্থার উপর নির্ভর করে ব্যাংক ওভারড্রাফ্ট পদ্ধতিতে টাকা দিয়ে থাকে।

কিভাবে পাবেন এই টাকা?
আপনার যে ব্যাংকে স্যালারি একাউন্ট আছে, সেই ব্রাঞ্চে Form 16 কিম্বা স্যালারি স্লিপ জমা করতে হবে। এবং নির্দিষ্ট ব্যাংকের ফরম্যাটে আবেদন করতে হবে। তবে যদি পূর্বে আপনার ঋণ খেলাপী কিম্বা CIBIL Score 0 থাকে তবে অগ্রীম বেতন পাবেন না। নাম মাত্র সুদে এই ফেসিলিটি পেয়ে যাবেন।

পোস্ট অফিসে কিষান বিকাশ পত্র প্রকল্পে এই নিয়মে টাকা রাখলেই রকেটের গতিতে ডবল হবে।

Salary Overdraft পদ্ধতিতে টাকা বেতনের তুলনায় অগ্রিম ৩ গুণ বেশি পাওয়া যায়। কিন্তু সেক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে, এই টাকার উপরে ১ থেকে ৩ শতাংশ হারে সুদ দিতে হয়। তবে Salary Account থাকলেই যে সমস্ত বেতনভোগী ওভারড্রাফট এর সুবিধা পাবেন এমনটা নয়। তার কারণ, দেশের মাত্র কয়েকটি ব্যাংক এই সুবিধা দিয়ে থাকে। তাছাড়া Overdraft দেওয়ার আগে ব্যাংকের তরফে বেশ কিছু শর্ত পূরণ করতে হয়।
Written by Rajib Ghosh.

Advertisement
Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement