UBI Bank Frauds – ইউনিয়ন ব্যাংকের 4000 কোটি টাকার প্রতারণা, গরীব মানুষের টাকা নিয়ে ভেগে গেল।

UBI Bank Frauds:
যত দিন যাচ্ছে, ব্যাংকের সুদ যেমন বাড়ছে, তার সাথে বাড়ছে ব্যাংকের চার্জ। অন্যদিকে সাধারন মানুষ লোনের জন্য বার বার ব্যাংকে গিয়েও লোন পাচ্ছেনা, সেখানে বড় বড় মহারথীরা জনগনের টাকা ব্যাংকের থেকে লোন নিয়ে বিদেশে পগার পার হচ্ছে। আর সেই রকমই ঘটনা ঘটলো UBI Bank Frauds তথা ইউনিয়ন ব্যাংকে।

Advertisement

সংবাদ সুত্রে জানা গেছে মোট ৪০৩৭.৮৭ কোটি টাকা প্রতাড়না বা UBI Bank Frauds হয়েছে ইউনিয়ন ব্যাংকের সাথে। যে টাকায় প্রায় একটি রাজ্য চালানো যায়। এই টাকা সবই সাধারন মানুষের জমানো টাকা। আর এত টাকা রিকভার কিভাবে হবে, সেটা ভেবেই ব্যাংক কতৃপক্ষের কাল ঘাম ছুটে যাচ্ছে।

Advertisement

দেশের ১৬টি জায়গায় একযোগে তল্লাশি করে সিবিআই। আর তল্লাশি করে প্রচুর নথি উদ্ধার করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। ইউনিয়ন ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (UBI) অভিযোগের ভিত্তিতেই সিবিআই দেশের ১৬ টি জায়গায় তল্লাশি চালিয়েছে। কলকাতার একটি বেসরকারি সংস্থার বিরুদ্ধে ৪ হাজার কোটি টাকার ব্যাংক প্রতারণার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে CBI.

UBI Bank Frauds:

UBI কর্পোরেশন পাওয়ার লিমিটেড নামে এই সংস্থার বিরুদ্ধে ৪০৩৭.৮৭ কোটি টাকা প্রতারণার (UBI Bank Frauds) অভিযোগ করেছে। এই অভিযোগের ভিত্তিতে সিবিআই কলকাতা, মুম্বই, নাগপুর, রাঁচি, দুর্গাপুর, বিশাখাপত্তনম এবং গাজিয়াবাদে তল্লাশি চালিয়েছে। যদিও মূল চক্রের হদিস এখনও মেলেনি, তবে এই টাকা কিভাবে ব্যাংক থেকে ধাপে ধাপে নেওয়া হয়েছে, তার তদন্ত চলছে।

2 সপ্তাহের জন্য বন্ধ সমস্ত ব্যাংক পরিষেবা। সারা দেশে নির্দেশিকা জারি। 

জানা গিয়েছে, ২০০৯ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত এই সংস্থা বিভিন্ন ভুয়ো প্রকল্প জমা দিয়ে প্রচুর পরিমাণে টাকা ঋণ নেয়। আর টাকা বিভিন্ন ব্যাংক একাউন্টে সরিয়ে ফেলা হয়। তারপরেই ২০১৩ সালে সংস্থার অ্যাকাউন্ট নন পারফর্মিং অ্যাসেট (এনপিএ) হিসাবে চিহ্নিত করা হয়। ব্যাংকের অধীনে থাকা অ্যাকাউন্টগুলো NPA হিসেবে নথিভুক্ত হয়।

Advertisement

করোনা বাড়ছে, ফের কি লকডাউন? আপাতত নাইট কার্ফু ও স্কুল বন্ধ?

এবার ২০১৯ সালে এই সংস্থাটিকে প্রতারক হিসেবে চিহ্নিত করে ব্যাংক। আর তারপরেই ইউবিআই এর অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা শুরু করে তল্লাশি করে সিবিআই। তবে এত দিন পর সেই টাকা কিভাবে পাওয়া যাবে, আদৌ সেই টাকা ওই সংস্থার কাছে জমানো আছে কিনা, নাকি সব খরচ করে ফেলেছে, সেই সমস্ত তথ্য এখনও CBI এর হাতে আসেনি।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment