কাল থেকে বদলে যাচ্ছে রেশন তোলার নিয়ম, কি কি জমা দিতে হবে, জেনে নিন।

নতুন বছরে পশ্চিমবঙ্গে চালু হয়ে গেল নতুন পদ্ধতিতে রেশন তোলার নিয়ম। না মানলে পাবেন না রেশন সামগ্রী।
পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে নতুন বছরের শুরু থেকেই রেশন তোলার নিয়ম সংশোধিত হলো। জেনে নিন বিস্তারিত ভাবে।

Advertisement

রেশন নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ সারা রাজ্য সহ দেশ জুড়ে। এই দুর্নীতি রোধ করার জন্য রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে বারে বারে একাধিক রেশন তোলার নিয়ম আনা হয়েছে, কিন্তু কিছু একটা সীমাবদ্ধতা থেকেই যাচ্ছে, যার জেরে পুরোপুরি দুর্নীতি আটকানো যাচ্ছে না। রেশন নিয়ে দুর্নীতির ভুরি ভুরি অভিযোগ জমা পড়ে রোজ। যেমন – অন্য কারোর রেশন কার্ড দেখিয়ে রেশন তোলা, মৃত ব্যাক্তিদের কার্ড দেখিয়ে রেশন নিয়ে যাওয়া ইত্যাদি। এই সকল অনিয়মের মাধ্যমে আসলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন দেশ তথা রাজ্যের সাধারন রেশন গ্রাহকেরা।

Advertisement

এই সকল অভিযোগের পর কেন্দ্রীয় তথা রাজ্য সরকারের পক্ষে থেকে আধার কার্ডের সাথে রেশন কার্ড লিংক করানো হয়েছিল বাধ্যতামুলক ভাবে। এছাড়াও রেশন তোলার সময় আঙ্গুলের ছাপ দেওয়া, মোবাইলে OTP – One Time Password আসা এই সকল নিয়ম বানিয়েও কোন ভাবেই সম্পূর্ণরূপে অনিয়ম রোখা সম্ভব হচ্ছিল না সরকারের তরফে। অনেক সময় “সর্ষের মধ্যে ভূত” আছে বলেও অভিযোগ অনেক গ্রাহকের।

রেশন তোলার নিয়মঃ

এবার পশ্চিমবঙ্গ খাদ্য দফতরের (WB Food Department) পক্ষ থেকে এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে রেশন তোলার দুর্নীতি আটকাতে নতুন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। কারন, বিগত সকল নিয়মের মাধ্যমেও এই দুর্নীতি রোখা সম্ভব হচ্ছিল না। রেশন ডিলারদের কে বলা হয়েছিল সরকারের তরফে কোন গ্রাহককে রেশন না দিয়ে বাড়ি পাঠানো যাবেনা।

বেশ কিছু দিন আগের এক বিজ্ঞপ্তির কথা উল্লেখ করে খাদ্য দফতরের এক আধিকারিক জানান আধার কার্ড না থাকলেও কাউকে তার ন্যায্য প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত করা যাবে না। আর এতেই আইনের ফাঁক গলিয়ে রেশন তুলে নিচ্ছিলেন অনেকেই। এই জন্য অনেক গ্রাহকের মোবাইলে ওটিপি পাঠানোর ব্যবস্থা আনা হয়েছিল। কিন্তু অনেকে আসল প্রাপকের মোবাইল এনে রেশন তুলে নিচ্ছিলেন বলে অভিযোগ জমা পড়ে।

Advertisement

পঞ্চায়েত ভোটের আগে নতুন প্রকল্প ঘোষণা করলেন মুখ‍্যমন্ত্রী, কত টাকা পাবেন?

এছাড়াও অনেক সময় দেখা গেছে রাজ্যের গ্রামের দিকে অনেকের কাছেই মোবাইল থাকে না তাই তাদের থেকে ওটিপি পাওয়া সম্ভব ছিল না। এই জন্য এবারে প্রত্যেকের চোখের মণি স্ক্যান করে রেশন দেওয়ার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এছাড়াও অনেক সময় বৃদ্ধ নাগরিকদের আঙুলের ছাপ মেলে না। কিন্তু সরকারের বক্তব্য চোখের মণি মানুষের একই থাকে সেই জন্য কোন ধরনের দুর্নীতি করা সম্ভব হবে না।

আবাস যোজনার টাকা নতুন আইন, এই লিস্টে কারা টাকা পাচ্ছেন।

আধার কার্ড বানানোর সময় সকল গ্রাহকের আঙুলের সাথে চোখের মণিও স্ক্যান করা হয় এর ফলে অনিয়ম রোধ করা যাবে বলে মনে করছে অনেকে। সংবাদ সুত্রে জানা গেছে, যেসমস্ত গ্রাহকের Digital Ration Card Aadhaar Link করা নেই, তারা অতি স্বত্তর রেশন আধার লিংক করিয়ে নেবেন। এবং আধার কার্ডের সাথে মোবাইল নম্বর লিখে জমা দেবেন। নতুবা নতুন রেশন তোলার নিয়ম অনুযায়ী তারা আর রেশন তুলতে পারবেন না।

জিও তে একজনের রিচার্জে চলবে পরিবারের সকলের, জলের দামে মোবাইল রিচার্জ।

অর্থাৎ নতুন নিয়ম অনুসারে রেশন নিতে হলে বাড়ির যেকোনো একজন থাকতে হবে। তার আঙ্গুলের ছাপ কিম্বা চোখের মনি স্ক্যান হবে। তারপরই তিনি রেশন পাবেন। যার আধার লিংক নেই তাকে লিংক করিয়া নিতে হবে, আর আধার না থাকলে সেটাও পোষ্ট অফিস থেকে করিয়ে নিতে হবে। নতুবা আগামী মাস থেকে রেশন সামগ্রী পাবেন না। রেশন কার্ড বা রেশন তোলার নিয়ম চালু হলে কিম্বা এই নতুন নিয়ম নিয়ে আপনাদের মতামত নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। পছন্দ হলে শেয়ার ও সাবস্ক্রাইব করুন। সঙ্গে থাকুন এই ধরনের খবরের জন্য।
EK24 News Desk.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment