Primary TET Court Case

Primary TET Court Case – প্রাথমিকে পুরো প্যানেল ধরে দুর্নীতির অভিযোগ।

রাজ্যে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগকে (Primary TET Court Case) কেন্দ্র করে গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। প্রাথমিকে এরমধ্যেই 269 জনের চাকরি চলে গিয়েছে। কলকাতা হাইকোর্ট প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের তদন্ত করার জন্য সিট গঠন করার নির্দেশ দিয়েছে। এই মামলার তদন্ত আদালতের নজরদারিতেই হবে। আগামী সোমবার বিচারপতি সুব্রত তালুকদারের ডিভিশন বেঞ্চে এই মামলার শুনানির সম্ভাবনা রয়েছে।

বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায় প্রাথমিক রিপোর্ট দেখার পরে 269 জনকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেন। জানা গিয়েছে, অফলাইনে 2014 সালের টেট (TET) পরীক্ষা হয়েছিল। সেখানে 273 জন অতিরিক্ত 1 নম্বর করে পেয়েছিলেন। বাড়তি নম্বরের জন্য প্রশ্নপত্রে ভুল থাকায় আবেদন করেছিলেন 2787 জন। সেখানেই দুর্নীতি (Primary TET Court Case) হয়েছে বলে অভিযোগ।

প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষক নিয়োগের জন্য 2014 সালে বিজ্ঞপ্তি জারি হয়। 2015 সালের 11 অক্টোবর টেটের পরীক্ষা হয়। 2016 সেপ্টেম্বরে ফল প্রকাশ হয়। প্রথম মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয় ওই বছরেই। দ্বিতীয় মেধা তালিকা 4 ডিসেম্বর প্রকাশ করা হয়। প্রায় 23 লক্ষ চাকরিপ্রার্থী পরীক্ষা দিয়েছিলেন। তার মধ্যে 42 হাজার প্রার্থীকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ করা হয়। Primary TET Court Case.

প্রাথমিক মামলায়, আগের লিস্ট বাতিল করে নতুন করে আরো 7 হাজার টেট প্রারথীকে চাকরী দেওয়ার নির্দেশ।

অভিযোগ, দ্বিতীয় প্যানেল প্রকাশ করার উদ্দেশ্য ছিল অতিরিক্ত প্রার্থীদের চাকরি পাইয়ে দেওয়া। দ্বিতীয় তালিকা থেকেই 269 জনকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট। এর পরেই আদালতের নজরদারিতে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়। অভিযোগ রয়েছে 42 হাজারের মধ্যে কমপক্ষে অন্তত 18 হাজার শিক্ষককে বিপুল টাকার বিনিময়ে নিয়োগ করা হয়েছে। Primary TET Court Case.

সূত্রের দাবি, এই মামলায় প্রায় সাড়ে 17 হাজার কর্মরত শিক্ষক চাকরি হারাতে পারেন।
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ মামলায় হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, সিবিআই আধিকারিকদের নিয়ে সিট (SIT) গঠন করা হবে। প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে সিবিআই এবং পর্ষদের রিপোর্ট তিনি দেখেছেন। নিয়োগে দুর্নীতি (Primary TET Court Case) হয়েছে তার প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের রিপোর্ট থেকে স্পষ্ট।

EK24 News

WB Recruitment 2021-22: সরকারি নতুন প্রকল্পে প্রচুর সংখ্যক কর্মী নিয়োগ, উচ্চ মাধ্যমিক পাশেই করা যাবে আবেদন

কলকাতা হাইকোর্ট (Kolkata High court) প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে সিট গঠন করে যে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে, রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ডিভিশন বেঞ্চে এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে (Primary TET Court Case) আবেদন করা হয়েছে। আগামী সোমবার বিচারপতি সুব্রত তালুকদারের ডিভিশন বেঞ্চে এই মামলার শুনানির সম্ভাবনা রয়েছে।
Written by Rajib Ghosh.

অনলাইনে ফ্রি টাইমে মোবাইলের মাধ্যমে ইনকাম করতে এখানে ক্লিক করুন

3 thoughts on “Primary TET Court Case – নজিরবিহীন রায় হাইকোর্টের, চাকরী হারাতে পারেন প্রায় 18 হাজার নবনিযুক্ত শিক্ষক।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.