Advertisement
Primary TET 2014 Case
Advertisement

Primary TET 2014 Case – শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে নজিরবিহীন অভিযোগ।

রাজ্যে প্রাথমিকে টেট পরীক্ষায় শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ার দুর্নীতি (Primary TET 2014 Case) নিয়ে প্রায় প্রতিদিনই নতুন নতুন চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে আসছে। আদালতে মামলার পর থেকেই তদন্তে উঠে এসেছে অবাক করার মতো সমস্ত বিষয়।

Advertisement

নতুন করে আবার এদিন মামলাকারীদের মধ্যে একজনের তরফে নতুন দাবি করা হয়েছে ২০১৮ সালে টেট পরীক্ষার পর প্রাইমারিতে চাকরির (Primary TET 2014 Case) জন্য প্রার্থীদের সুপারিশ করেছিলেন তৃণমূল বিধায়করা। এ বিষয়ে গতকাল চিঠি জমা পড়েছে কলকাতা হাইকোর্টে। এই দাবি যদি প্রমানিত হয়, তবে দূর্নীতি বিষয়ে আরও অনেক তথ্য বেরিয়ে আসবে।

টেট পরীক্ষার মাধ্যমে প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি হয়েছে এই দাবিতে অসংখ্য চাকরিপ্রার্থী পরীক্ষার্থীরা জনস্বার্থ মামলা (Primary TET 2014 Case) করেছিলেন কলকাতা হাইকোর্টে। সেখানেই অভিযোগ উঠে, নির্দিষ্ট কিছুজনকে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার জন্য চিঠি দিয়ে সুপারিশ করেছিলেন স্বয়ং শাসকদলের বিধায়করা। মামলাকারীদের পক্ষের আইনজীবী তরুণজ্যোতি তিওয়ারি মঙ্গলবার হাইকোর্টে প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে সেই চিঠি প্রমাণ স্বরূপ পেশ করেন।

Advertisement

উল্লেখ্য, রাজ্যের বর্তমান মন্ত্রী অখিল গিরি, বিধায়ক অসীম মাঝি ও বিজেপি ছেড়ে পুনরায় তৃণমূলে যোগ দেওয়া মুকুল রায়ের পুত্র শুভ্রাংশু রায় প্রমুখরা নিজেদের বিধায়কের লেটারহেডে বেশ কিছু প্রার্থীর চাকরির জন্য বিশেষ সুপারিশ করেন। মামলাকারীর পক্ষ থেকে সেই সমস্ত চিঠিই প্রমাণ (Primary TET 2014 Case) হিসেবে জমা করা হয় বলে মামলাকারী আইনজীবী দাবী করেন।

Must Read, নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে নজিরবিহীন কড়া নির্দেশ হাইকোর্টের, পুরো লিস্ট ধরে বাতিল।

সুত্রের খবর, এর পর সন্দেহ প্রকাশ করা হয়, এই নথি (Primary TET 2014 Case) যদি সঠিক হয়, তবে এই সংখ্যাটা এর চেয়ে অনেক বেশি হবে। কারন সব খবর বা প্রমান সামনে আসে না। মামলাকারী আইনজীবী বলেন, শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে পাহাড় প্রমান দুর্নীতি হয়েছে।

EK24 News

এই বিষয়ে (Primary TET 2014 Case) আপনার কি মতামত নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। এদিকে আজকে এই মামলার আরেকটি আপডেট আসছে দুপুরের পর। EK24 News এর সঙ্গে থাকুন।
Written by Rupa Dutta.

Advertisement

আরও পড়ুন, এই নোটগুলো ঘরে থাকলে এখনই পাল্টে নিতে বললো রিজার্ভ ব্যাংক।

Advertisement
Advertisement
12 thoughts on “Primary TET 2014 Case – নেতাদের সুপারিশে প্রাইমারীতে কাদের চাকরী হয়েছে, নথি জমা পড়লো হাইকোর্টে, Breaking News.”
    1. আসে পাশে অনেক শিক্ষকদের কালঘাম ছুটতে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে।
      মহামান্য আদালত যেন 2017-18 চাকরি পাওয়া শিক্ষকদের নির্দিষ্ট ভাবে ‌‌খতিয়ে দেখলে, আরো অনেক তথ্য বেরিয়ে আসবে। 🙏🙏

    2. যদি প্রমাণিত হয় যে বিধায়কদের অ্যIf it is proved that the MLAs have got the job on the basis of unjust recommendation, then they should dismiss the MLA post and at the same time dismiss the job of the working candidate. This will be an education for all sections of the society.

  1. সবার উপযুক্ত প্রমাণ জোগাড় করে এমনএকটা রায় দিক হাইকোর্ট বেঞ্চ দুর্নীতিমুক্তহোকআমারএই”সোনারবাংলা”একটা রায় দিক হাইকোর্ট বেঞ্চ মধ্যবিত্ত শ্রেনির মানুষ গন লোভের বলি না হয়। ভালো ভালো কৃতি ছাত্রদের সমাজে শেষ হয়ে যেতে হয়। উচ্চবিত্ত শ্রেনির মানুষ গন চাকরির কথা ভাবে না ভাবে ব্যবসা । গরিব শ্রেনির কিছুই পারে না।

  2. যারা টাকা দিয়ে বা কার ও সুপারিসে চাকরি পেয়েছে তাদের থেকে বেশি অপরাধি হল যে টাকা নিয়েছে বা সুপারিশ করেছে কারণ ঘুস দেওয়ার থেকে ঘুস নেওয়াটা বেশি অপরাধ একজন বেকার সে একটা কাজের চেস্টা করবে সেটাই সাভাবিক তাই, যে টাকা নিয়ে চাকরি দিয়েছে তার অন্তত পাঁচ বছর জেল হওয়া উচিত।

  3. Advertisement
  4. যে যে সমস্ত নেতারা চাকরিতে দুর্নীতি করছে তাদের চিহ্নিতকরণ করা হোক এবং দল থেকে বহিষ্কার করা হোক।রাজনীতি নেতাদের কারণে দলের সুনাম নষ্ট হচ্ছে। এটা একেবারে অমানবিক মেনে নেওয়া যায় না ।প্রকৃত ব্যাক্তিরা চাকরি পাক এই আবেদন রাখছি। ২০১৪ টেট পরীক্ষার সমস্ত পরীক্ষার্থীর আনসার শিট আবার নতুন করে একবার দেখে নেওয়া হোক যারা পাশ করেছে তাদের চাকরি দেওয়া হোক। যারা দুর্নীতি করে পাশ করেছে তাদের প্রত্যেককে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হোক। আমি মাননীয় হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির কাছে এই আবেদন রাখছি

  5. এই সরকার আসার পর যা যা সরকারি নিয়োগ হয়েছে সবগুলো প‍্যানেল পুনরায় খতিয়ে দেখা হোক। যারা প্রকৃত পাশ করেছে শুধুমাত্র তাদেরই নিয়োগ হোক। ভাবা যায় শিক্ষক হয়ে সমাজে সব থেকে বেশি সম্মানিত ব‍্যক্তি হবে অসৎ মানসিকতার ব‍্যক্তিরা? অসৎ ব‍্যক্তিরা আজ সমাজ গড়ার কারিগর। এমনকি পূর্ব মেদিনীপুরের 2012 সালের প্রাথমিক নিয়োগেরও তদন্ত হওয়া দরকার।

  6. Advertisement
  7. উত্তর 24 পরগনা, স্বরূপনগর থানা, বিথারী গ্রাম, এখানে অনেক দুর্নীতি হয়েছে, আমার মনে হয়, এটা শ্রীগ্র দেখা প্রয়জন,পিন- 743286

  8. Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement