Old Notes and Coin Selling – এই পুরনো ৫ টাকা, 2 টাকার কয়েন বিক্রি করে পেতে পারেন লক্ষাধিক টাকা

কথায় আছে পুরনো চাল ভাতে বাড়ে। আর পুরনো কয়েন বা নোট এর মুল্য (Old Notes and Coin Selling) ও প্রচুর। আর আপনার কাছে যদি পুরনো নোট বা কয়েন থাকে তবে, ঘরে বসেই উপার্জন করতে পারেন লক্ষাধিক টাকা! তেমনই সুযোগ দিচ্ছে পুরনো নোট এবং কয়েন কেনাবেচার সঙ্গে জড়িত কয়েকটি ওয়েবসাইট। নিচে লিঙ্ক আছে।

Advertisement

একাধিক অনলাইন ওয়েবসাইট পুরাতন নোট এবং কয়েন কেনা বেচা করে (Old Notes and Coin Selling)। সেখানের শর্তাবলী পুরন করে নোট বা কয়েন বিক্রয় করে আপনি পেতে পারেন মোটা অঙ্কের টাকা।

Advertisement

পুরাতন ৫ টাকায় কি কি থাকতে হবে?

পুরনো ওই পাঁচ টাকার নোটের পিছনের দিকে ট্র্যাক্টর চালাচ্ছেন এক চাষি, এমন ছবি থাকতে হবে। শুধু তাই নয়, নোটের উপর ৭৮৬ নম্বর লেখাটাও থাকা জরুরি।

পুরাতন ২ টাকার কয়েনে কি থাকতে হবে?

একটি নির্দিষ্ট দু টাকার কয়েনের দাম নির্ধারিত হয়েছে প্রায় পাঁচ লাখ টাকা। 1994 সালে তৈরি এই মুদ্রার পিছনদিকে রয়েছে ভারতীয় পতাকার ছবি। Quikr নামক একটি ওয়েবসাইটে এই মুদ্রার দাম নির্ধারণ করা হয়েছে 5 লাখ টাকা।

পুরাতন ১ টাকার কয়েনের কি থাকতে হবে?

1918 সালে ব্রিটিশ সম্রাট পঞ্চম জর্জের আমলে তৈরি একটি এক টাকার মুদ্রার দাম নয় লাখ টাকা। Quikr ই-কমার্স ( Quikr e-Commerce) সাইটে আপনি এইসব মুদ্রা কিনতে অথবা বিক্রি করতে পারবেন।

Advertisement

আরও পড়ুন, পুরনো ১০ পয়সা ও ২৫ পয়সার কয়েন বেচে হতে পারেন কোটিপতি

কিভাবে বেচবেন?

আপনার কাছে থাকা সেই পাঁচ টাকার নোটের অথবা কয়েনের পরিষ্কার একটা ছবি তুলে নোট এবং কয়েন কেনাবেচা সংক্রান্ত ওয়েবসাইটগুলিতে আপলোড করতে হবে। সেই ছবি আপলোড হলেই নিলাম শুরু হবে। আর এখান থেকেই আপনি আয় করতে পারেন লক্ষাধিক টাকা। এর জন্য আপনি Quikr এর ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজেকে নথিভুক্ত কর‍তে পারেন। এছাড়াও একাদিক ওয়েবসাইট রয়েছে। আপনি গুগলে নিউমিসম্যাটিস্ট ( Numismatists) লিখে সার্চ করতে পারেন কিম্বা old coins and notes selling লিখে সার্চ করতে পারেন।Old Notes and Coin Selling

অথবা এই ওয়েবসাইটে বিক্রয় করতে পারেন ক্লিক করুন

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment