Old Note Sale – পুরনো ১ টাকার নোট থাকলেই পেতে পারেন ৪৫ হাজার টাকা, অনলাইনে বেচে দিন

যদি আপনার পুরনো মুদ্রা বা টাকা সংগ্রহের নেশা থেকে থাকে (Old Note Sale) তাহলে আপনি ১ টাকার বদলে পেতে পারেন ৪৫ হাজার টাকা।

Advertisement

অতিমারীর সময়ে বাড়়িতে বসেই পুরনো নোট কিম্বা কয়েন বেচেই (Old Note Sale) হতে পারেন লাখ টাকার মালিক। যদি আপনার কাছে পুরনো মুদ্রা বা টাকা থেকে থাকে বা সংগ্রহের নেশা থাকে তবে তো কথাই নেই! এমন অনেক ওয়েবসাইট আছে যার মাধ্যমে পুরনো অ্যান্টিক কয়েন বা টাকার বদলে আপনি লাখ টাকা পেতে পারেন।

Advertisement

আপনি শুধু ছবি আপলোড করবেন। আপনার ছবি দেখে অনলাইন প্লাটফর্মে নানা জনে নানা দর দেবে। স্বাভাবিক ভাবেই আপনি সর্বোচ্চ মূল্যের কলটি বেছে নেবেন আর আপনার পুরানো মুদ্রা বা টাকা টি ভালো দামে বেচে (Old Note Sale) দেবেন ।

কয়েনে কি কি থাকতে হবে?

এখন যেমন 1977-79 সালের সময়-পর্বে মুদ্রিত এক টাকার নোটের খুব চাহিদা। এরকম একটি 1 টাকার নোট বিক্রয় (Old Note Sale) করে আপনি 45000 টাকা পর্যন্ত পেতে পারেন। আপনার কাছে কি আছে ওই সময়ের নোট ? তাহোলে ওই নোটে থাকতে হবে হীরুভাই-এম-প্যাটেলের স্বাক্ষর। এই হীরুভাই-এম-প্যাটেল ছিলেন 1977-79 সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মোরারজি-দেশাইয়ের আমলে অর্থ-মন্ত্রকের মুখ্যসচিব।

Advertisement

কী ভাবে বেচবেন পুরনো টাকা?

আজকাল অনেক অনলাইন ওয়েবসাইট পুরনো নোট ও কয়েন নিয়ে ডিলিং করে। তার মধ্যে Amazon, OLX, Ebay, Quikr এর মতো অনলাইন শপিং ওয়েবসাইটের মধ্যে যে কোনও একটি অনলাইন সেলিং সাইট বেছে নিন। (Old Note Sale)

১) সাইট টিতে ‘সেলার’ হিসেবে নিজে রেজিস্টার করুন। (যদি আগে থেকেই রেজিস্টার করা থাকে তবে লগিন করলেই হবে)।
২) অ্যাকাউন্ট খুলে গেলে নোটের দুই দিকের ছবি আপলোড করুন
৩) ছবির সঙ্গে আপনার মোবাইল নাম্বার ও ই-মেল আইডি অ্যাড করুন।
৪) এরপর থেকেই আপনি আগ্রহী ক্রেতাদের কাছ থেকে ফোন পেতে শুরু করবেন।

সতর্কতাঃ

অনলাইনে লেনদেন করার সময়ে সতর্ক থাকবেন। মার্কেট বুঝে দাম ঠিক করবেন। নইলে ঠকার সম্ভাবনা রয়েছে। আগামীতে কোন কয়েনের কি দাম সেই নিয়ে আর্টিকেল দেওয়া হবে।

আরও পড়ুন, ১০ টাকার এই একটি কয়েন বেচলেই পাবেন ১০ লাখ টাকা, কিভাবে বেচবেন দেখুন

এছাড়াও এই বছরের আগস্টে, রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (RBI) অনলাইনে পুরানো নোট এবং কয়েন বিক্রি (Old Coin Sale) এবং কেনার বিষয়ে সতর্কতা বার্তা জারি করেছে। RBI এর তরফে বলা হয়েছে, ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক এই জাতীয় বিষয়ে ডিল করে না এবং কখনও কোনও ধরনের চার্জ বা কমিশন চায় না। RBI এই ধরনের লেনদেনে তার পক্ষে চার্জ বা কমিশন সংগ্রহ করার জন্য কোনো প্রতিষ্ঠান, ফার্ম কিম্বা ব্যক্তি ইত্যাদিকে অনুমোদন দেয়নি।

অনলাইনে ইনকাম করতে এখানে ক্লিক করুন

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment