500 ও 1000 টাকার পুরনো নোট ঘরে আছে? ফের কি চালু হবে, সুপ্রিম কোর্টের রায় জেনে নিন।

ফের কি চালু হবে ৫০০ আর ১০০০ টাকার পুরনো নোট? কি বলছে সুপ্রিম কোর্ট।

দেশে ফের যাতে ১০০০ এবং ৫০০ টাকার পুরনো নোট (Old 1000 Rupee Note and 500 Rs Note) চালু করা যায়, সেই কারণে দেশের শীর্ষ আদালতে আবেদন করা হয়। এবং জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়। অভিযোগ, হটাত করে পুরনো নোট বাতিল, আদৌ যুক্তিযুক্ত কিম্বা উদ্দেশ্যপ্রণোদিত কিনা? এর সেই মামলা নিয়ে এত বছর পর সুপ্রীম কোর্টের পর্যবেক্ষণ ও মন্তব্য জেনে নিন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত যদি অনুচিত প্রমানিত হয়, তবে ফের এই নোট চালু হওয়ার সম্ভাবনা দেখছে অনেকেই।

Advertisement

যদিও সুপ্রিম কোর্ট ১০০০ এবং ৫০০ টাকার পুরনো নোট গ্রহণ করার জন্য পৃথক পৃথক আবেদন গ্রহণ করতে অস্বীকার করেছে। বিচারপতিরা আবেদনকারীদের সরকারের কাছে প্রতিনিধিত্ব করার অনুমতি দিয়েছেন। কেন্দ্রীয় সরকারকে সুপ্রিম কোর্ট এই আবেদনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া এবং সমস্ত অভিযোগ আগামী ১২ সপ্তাহের মধ্যে বিবেচনা করার নির্দেশ দিয়েছে। দেশের মধ্যে কালো টাকা এবং জালিয়াতি রুখতে কেন্দ্রীয় সরকার ২০১৬ সালের ৮ই নভেম্বর বৃহৎ পদক্ষেপ ঘোষণা করে। ওই দিনই দেশের সমস্ত ৫০০ এবং ১০০০ টাকার পুরনো নোট রাতারাতি বাতিল করে ফেলা হয়।

Advertisement

দেশবাসীর কাছে গচ্ছিত এই নোট ব্যাংকে জমা দিয়ে দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। তারপরেই সারা দেশ জুড়ে ব্যাংকের সামনে লাইন আর লাইন। মানুষ যে সমস্যার সম্মুখীন হয়েছিল তা এখনো দেশবাসীর মনে রয়েছে। পুরনো নোটবন্দির ফলে কোনো লাভ হয়েছে কিনা সেই বিষয়টি নিয়েও আলোচনা চলতে পারে। তবে ৫০০ এবং ১০০০ টাকার নোটকে RBI নিষিদ্ধ করার পর ৫০০ এবং ২০০০ টাকার নতুন নোট বাজারে নিয়ে আসা হয়। আর তারপরেই দেখা যায়, সুপ্রিম কোর্টে এই পুরনো নোট নিয়ে মামলা হয়।

সাধারণ মানুষের স্বস্তির খবর, বাড়লো আধার লিঙ্কের সময়সীমা, সবাই এটাই চাইছিলো।

সুপ্রিম কোর্টের বেঞ্চ জানায়, সাংবিধানিক বেঞ্চের রায়ের পরে মনে করি না সংবিধানের ১৪২ অনুচ্ছেদ এর অধীনে নিজেদের এক্তিয়ার প্রয়োগ করে ডিমনিটাইজ পুরনো নোটগুলি গ্রহণ করা আর সম্ভব হবে। যদি কোনো আবেদনকারী দেশের সরকারের পদক্ষেপে সন্তুষ্ট না হন তাহলে উচ্চআদালতের ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার তার স্বাধীনতা তাদের থাকবে।

How to Change Damage Note, Torn Note, Mutilated notes (ছেড়া নোট বদলাবেন কিভাবে)

সংখ্যাগরিষ্ঠ রায় দিয়ে সুপ্রিম কোর্ট জানায়, নোট বাতিলকেই বহাল রাখার কথা। পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ এক্ষেত্রে জানিয়েছে, কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রক্রিয়াকে দোষ দেওয়া যাবে না। কারণ রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং কেন্দ্রীয় সরকার আলোচনা করেই এই পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ফলে সরকারের সিদ্ধান্তকে অযৌক্তিক বলা ঠিক হবে না। আর আগামী ১২ সপ্তাহের মধ্যে কেন্দ্র সরকার তার কি সিদ্ধান্ত জানায় এখন সেটাই দেখার।

Advertisement

2 টাকার পুরনো কয়েন থাকলেই বাজিমাত, লাখ টাকা দাম পাবেন।

যদিও এখনও অনেকের কাছে দুই একটা ৫০০ টাকা বা ১০০০ টাকার নোট রয়েছে। যেগুলো পরে পাওয়া গেছে। হয়তো কোনও ফাইলে আটকে ছিলো কিম্বা কাপড়ের ভাজে, কিম্বা আলমারিতে। পরে পাওয়ার পর আর সেগুলো ব্যাংকে বদলানো যাচ্ছে না। তাই সাধারণ মানুষের মধ্যে অনেকেই চান, যে আরও একবার বদলের সুযোগ দেওয়া হোক। এই বিষয়ে আপনার মন্তব্য নিচে কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন। কারো কাছে এই নোট থাকলে, সেটাও কমেন্ট করে আলোচনায় অংশগ্রহণ করতে পারেন।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment