NPS Scheme Calculator – বার্ধক্যের দুশ্চিন্তা শেষ, মাত্র ১০ হাজার টাকা জমিয়ে প্রতিমাসে ৫০ হাজার টাকা পেনশন পাবেন।

NPS Scheme Calculator – অবসর নেওয়ার পর এবার প্রতি মাসে অ্যাকাউন্টে আসবে ৫০,০০০ টাকা

NPS Scheme Calculator – আপনি কি চিন্তিত যে কর্মজীবন শেষ হওয়ার পর বার্ধক্য বয়েসে জীবন কেমন কাটাবেন? তাহলে চিন্তা করার কিছুই নেই কারন প্রতি মাসের শেষে আপনার অ্যাকাউন্টে আসতে চলেছে ৫০০০০ টাকা।

Advertisement

আপনি নিশ্চয়ই ভাবছেন কিভাবে এই সুযোগ পাবেন তাহলে আর চিন্তা করতে হবে না কারন আমরা আমাদের এই প্রতিবেদনর মধ্যে দিয়ে শুধুমাত্র আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি একটি সহজ উপায় যেটি আপনাকেও আপনার অবসর জীবনে আত্মনির্ভর থাকতে সাহায্য করবে।

Advertisement

কর্মজীবন থেকে অবসর নেওয়ার পরের জীবনে অর্থনৈতিক নিরাপত্তার জন্য আগে থেকেই পরিকল্পনা শুরু করা উচিত। আর NPS সরকারী প্রকল্পে (NPS Scheme Calculator) টাকা জমালে সুরক্ষার সাথে নিজের জীবন ও সাবলীল ভাবে কাটাতে পারবেন।

বার্ধক্যের পাশাপাশি হঠাৎ করে চিকিৎসার জন্য পর্যাপ্ত পুঁজি থাকা অবশ্যই জরুরি। এই প্রসঙ্গে অনেকেই চাকরি জীবনের শুরুতেই অর্থ সঞ্চয় করতে থাকে সোজা কথায়, আপনি যত তাড়াতাড়ি সঞ্চয় (NPS Scheme Calculator) করা শুরু করবেন, অবসর নেওয়া পর্যন্ত আপনি তত বেশি অর্থ ফেরত পাবেন।

আপনি যদি অবসর জীবনে ঘরে বসে কোন চিন্তা ছাড়াই অর্থ উপার্জন (NPS Scheme Calculator) করতে চান  তাহলে কিছু বিষয় আপনাদের মেনে চলতে হবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক কি কি উপায়ে আপনি আপনার অবসর জীবনে প্রতিমাসের শেষে ৫০০০০ অব্দি অর্থ উপার্জন করতে পারবেন। বর্তমান সময়ে EPF, NPS, স্টক মার্কেট, মিউচুয়াল ফান্ড, রিয়েল এস্টেটের মতো জায়গাগুলিতে বিনিয়োগের বহু বিকল্প রয়েছে।

Advertisement

এই সমস্ত বিকল্পগুলির মধ্যে NPS হল এমন একটি মাধ্যম যেটি সুরক্ষিত এবং ভালো রিটার্নও দেয়। আপনি খুবই সহজ উপায়ে প্রতি মাসের শেষে ৫০০০০ টাকা অব্দি আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পেয়ে যাবেন। চলুন ধরে নেওয়া যাক আপনার বর্তমান বয়স এখন ২০ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে পড়ছে (NPS Scheme Calculator)।

সেই প্রসঙ্গে যদি আপনি এখন থেকেই প্রতি মাসে ১০ হাজার টাকা করে NPS-এ বিনিয়োগ করেন তাহলে ৩০ বছর পর ৬০ বছর বয়সে অবসর নেওয়ার সময় আপনার সঞ্চয় এক কোটি টাকার বেশি থাকবে এবং প্রতি মাসে প্রায় ৫২ হাজার টাকা রিটার্ন পাবেন (NPS Scheme Calculator)। যেটি আপনাকে অবসর জীবনে আত্মনির্ভর হতে সাহায্য করবে। এছাড়া আপনি বার্ধক্য জীবনেও থকবেন ফুরফুরে ও চিন্তা মুক্ত।   

এই উপায়টিকে কাজে লাগিয়ে বার্ধক্য জীবনে আপনার কাছে থাকছে কোটিপতি হওয়ার সুবিধা। এই উপায়টিকে কাজে লাগিয়ে আপনি ফিরিয়ে আনতে পারবেন আপনার প্রিয় মানুষের মুখের হাসি। পাশাপাশি NPS-এর মাধ্যমে প্রায় ৯ থেকে ১২ শতাংশ হারে রিটার্ন এর ব্যবস্থাও থাকছে। এছাড়াও এই উপায়টি কে কাজে লাগিয়ে (NPS Scheme Calculator) আপনি প্রতি বছর ২ লক্ষ টাকা অব্দি সঞ্চয় করতে পারবেন। বর্তমান বাজারে এই অর্থ খুবই জরুরি।

এর পাশাপাশি আপনাকে কিছু বিষয় অবশ্যই জেনে রাখতে হবে। যেমন NPS Scheme এর রিটার্ন অনেক কারণের উপর নির্ভর করে। আপনি যদি আপনার পেনশন বাড়াতে বা কমাতে চান তাহলে সেই মত আপনার অর্থের বিনিয়োগ ও বাড়াতে বা কমাতে হবে ।

এই পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ আপনার ওপর নির্ভর করবে যে আপনি কত টাকা চান, কি ভাবে চান ও আপনি কত টাকা করে বিনিয়োগ করতে চান। NPS থেকে মোট অর্থের পরিমাণ এবং পেনশন আপনার বয়স এবং ইক্যুইটি বাজারের কর্মক্ষমতার মতো বিভিন্ন কারণের উপর নির্ভর করে। ১৮ বছর থেকে ৬৫ বছরের মধ্যে যে কেউই NPS-এ বিনিয়োগ করতে পারেন (NPS Scheme Calculator)। এই NPS সাধারনত দুই ধরনের আছে NPS টায়ার ১ এবং NPS টায়ার ২।

প্রথমটিতে আপনি ন্যূনতম ৫০০ টাকা অব্দি বিনিয়োগ করতে পারেন এবং পরেরটিতে আপনি ১০০০ টাকা অব্দি ন্যূনতম বিনিয়োগ করতে পারবে এবং এর পাশাপাশি এটিও মনে রাখা প্রয়োজন যে NPS এ আপনি যতখুসি চান বিনিয়োগ করতে পারেন এটির কোন নির্ধারিত সীমা নেই। পাশাপাশি, NPS-এ তিনটি বিনিয়োগের বিকল্প রয়েছে। যেখানে বিনিয়োগকারীকে তার অর্থ কোথায় বিনিয়োগ করতে হবে তা বেছে নিতে হবে। NPS Calculator

ইক্যুইটি, কর্পোরেট ঋণ এবং সরকারি বন্ড এই তিনটির মধ্যে আপনি যেকোনো একটিতে বিনিয়োগ করতে পারেন, তা ছাড়া যদি আপনি চান তাহলে সবকটির মধ্যেই বিনিয়োগ করতে পারেন। কিন্তু সবসময় মনে রাখবেন যেকোনো জায়গায় বিনিয়োগ করার আগে সমস্ত ডকুমেন্টস এবং টার্মস এন্ড কন্ডিসন পড়ে নেবেন। অর্থনৈতিক এবং সঞ্চয় সম্মন্ধে আরও প্রতিবেদন পড়তে নিচের লিঙ্ক গুলো প্রেস করুন।

এই নিয়ম মেনে বিনিয়োগ করলে পাবেন অল্প বিনিয়োগে সর্বোচ্চ মুনাফা

অল্প হলেও, কিছুটা বাড়লো ব্যাঙ্কের সুদের হার।

পোষ্ট অফিসের কোন স্কীমটি আপনার জন্য উপযুক্ত, কোন স্কীমে টাকা রাখলে

প্রতিদিন ১৫০ টাকা জমিয়ে মেয়াদ শেষে পান ১০ লক্ষ টাকা

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment