রাজ্যের মানুষ কে বিনামূল্যে জমি দিচ্ছে রাজ‍্য সরকার, Nijo Griha Nijo Bhumi Scheme এ জমি পেতে কি কি করতে হবে, জেনে নিন।

ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বাংলার মানুষের জন্য বহু সামাজিক জনকল্যাণমূলক প্রকল্প (Nijo Griha Nijo Bhumi Scheme) রচনা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার। আর তার ফলে রাজ্যবাসী যথেষ্ট উপকৃত হয়েছেন। জীবনযাত্রার মান একটু হলেও বদলেছে। রাজ্য সরকারের সামাজিক প্রকল্পের তালিকায় লক্ষ্য করলে দেখা যাবে এখনো পর্যন্ত ১০০ এর অধিক প্রকল্প বাস্তবায়িত করা হয়েছে। আর প্রতিটি প্রকল্পই রাজ্যের সর্বস্তরের মানুষের কথা ভেবেই তৈরি করা হয়েছে।

Advertisement

কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, স্বাস্থ্য সাথী, খাদ্য সাথী, সবুজ সাথী, ঐক্যশ্রী, মেধাশ্রী, স্টুডেন্টস ক্রেডিট কার্ড, স্কলারশিপ, জল ধরো জল ভরো, লোকসংগীত শিল্পীদের ভাতা, তফসিলে জাতি/ উপজাতি বয়স্কদের ভাতা, গতিধারা, কর্ম তীর্থ, স্বনির্ভর গোষ্ঠীদের জন্য বিভিন্ন ধরনের উপার্জনের সহযোগিতামূলক প্রকল্প থেকে শুরু করে আরও প্রচুর প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে। আর এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার নতুন এক প্রকল্পের মাধ্যমে গৃহহীন মানুষকে Nijo Griha Nijo Bhumi Scheme বা নিজ গ্রিহ নিজ জমি প্রকল্পের মাধ্যমে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ৫ শতক জমি দেওয়ার পদক্ষেপ নিয়েছে।

Advertisement

Nijo Griha Nijo Bhumi Scheme

এই প্রকল্প বহু আগেই রচনা করা হয়েছে। ফের আরো একবার নিজ গৃহ নিজ ভূমি (Nijo Griho Nijo Bhumi Scheme) প্রকল্পে যাতে রাজ্যের মানুষরা আবেদন করে বিনামূল্যে ৫ শতক জমি পেতে পারেন এবং তার ফলে মাথা গোজার ঠাঁই এবং তার সঙ্গে জীবিকা নির্বাহ করার জন্য প্রয়োজনীয় পথ খুঁজে পান, সেই কারণেই এই প্রকল্পে আবেদনের জন্য জানানো হচ্ছে।

রাজ্যের যে সমস্ত মানুষ পশুপালন, মৎস্য চাষ, কৃষিকাজ, হাতের কাজ বা কুটির শিল্প সহ এই ধরনের অন্যান্য কাজের সঙ্গে জড়িত বা জীবিকা নির্বাহ করেন, অথচ তাদের মাথার উপরে ছাদ নেই, তারাই এই Nijo Griha Nijo Bhumi Scheme প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন। এর ফলে একদিকে যেমন তারা একটি বাসস্থান তৈরি করতে পারবেন, তার সঙ্গে সংলগ্ন ছোট্ট একটি জমিতে কোনো চাষবাস বা একটা ছোট্ট জলাশয় তৈরি করে তাতে মাছ চাষ করতে পারবেন।

তাছাড়াও যদি কোনো কুটির শিল্প তৈরি করতে চান তাহলে সে ক্ষেত্রে সরকারের সহযোগিতায় প্রশিক্ষণ নিয়ে সেটাও করতে পারবেন। ফলে এই প্রকল্প থেকে বাসস্থান নির্মাণের সঙ্গে জীবিকা নির্বাহের রাস্তা দেখিয়ে গ্রামীণ পিছিয়ে পড়া মানুষের আর্থিক জীবনের মান উন্নয়ন করাই মূল উদ্দেশ্য সরকারের।
নিজ গৃহ নিজ ভূমি প্রকল্পে আবেদনের শর্ত কি:

Advertisement

দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাসকারী পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা, যারা কৃষিকাজ, পশুপালন, মৎস্য চাষ, কুটির শিল্প, হস্তশিল্পের মাধ্যমে উপার্জন করেন, টাকার অভাবে জমি কিনে বাড়ি তৈরি করতে পারছেন না, তারাই এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন।
এছাড়াও স্বনির্ভর গোষ্ঠীর গরিব মানুষেরা এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন।

আবাস যোজনার নতুন লিস্ট, বাতিল হলো অনেক নাম, যোগ হলো নতুন নাম।

নিজ গৃহ নিজ ভূমি (Nijo Griha Nijo Bhumi Scheme Project) প্রকল্পে আবেদনের যোগ্যতা কি:
পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
১৮ বছর বয়সের ঊর্ধ্বে হতে হবে।
কোনো বাসস্থান থাকা চলবে না।
কৃষিকাজ, পশু পালন, কুটির শিল্প, হস্তশিল্পির মাধ্যমে যারা জীবিকা নির্বাহ করেন, অথচ বাসস্থান নেই, তারা আবেদন করতে পারবেন।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের নতুন নিয়ম ঘোষণা, অনিয়ম করলেই টাকা পাওয়া বন্ধ।

নিজ গৃহ নিজ ভূমি প্রকল্পে (Nijo Griha Nijo Bhumi Scheme) আবেদন করতে হলে নিজস্ব বি এল এন্ড এল আর BL&LR অফিসে গিয়ে এই প্রকল্পের কথা বলে নিয়ম অনুযায়ী আবেদন করতে হবে। সরকারি শর্ত মোতাবেক সমস্ত কিছু পূরণ হলে তবেই নিজ গৃহ নিজ ভূমি প্রকল্পে বিনামূল্যে ৫ শতক জমি পেতে পারেন।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment