মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার খাতা দেখা নিয়ে নয়া জটিলতা। টেনশনে রয়েছে পরীক্ষার্থী ও শিক্ষকেরা।

আর মাত্র ৩ মাস বাকি শিক্ষার্থী জীবনের কঠিন দুই পরীক্ষা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হতে। আগামী বছর অর্থাৎ ২০২৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসেই এই দুই পরীক্ষা পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ (West Bengal Board Of Secondary Education) এবং উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ (West Bengal Council For Higher Secondary Education) এর তরফে। এবারে এই দুই পরীক্ষা শেষ হওয়ার পরে খাতা দেখা নিয়ে এই মুহূর্তে এক গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে পাওয়া যাচ্ছে।

Advertisement

Madhyamik & HS Exam 2024.

মাধ্যমিক পরীক্ষা (Madhyamik Exam 2024) এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার (HS Exam 2024) মধ্যে ব্যবধান থাকে খুব কম সময়ের, মাত্র ১৫ থেকে ২০ দিন। বহু শিক্ষক রয়েছে যাদের মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার খাতা দেখতে দেওয়া হয়। মাধ্যমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার পাশাপাশি একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণীতে ওঠার পরীক্ষার খাতাও সেই সমস্ত শিক্ষকদের দেখতে হয়। তাই এই বিষয়ে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ (WBCHSE) ও মধ্যশিক্ষা পর্ষদের (WBBSE) কাছে ভিন্ন ভিন্ন শিক্ষকদের দিয়ে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার খাতা দেখানোর আর্জি জানিয়েছে শিক্ষানুরাগী ঐক্যমঞ্চের সদস্যরা।

Advertisement

মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা হল ছাত্র ছাত্রীদের ক্যারিয়ার গড়ার ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ। বহু শিক্ষক আছে যাদেরকে এক সঙ্গে মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক দুটি পরীক্ষারই খাতা দেখতে দেওয়া হয়। আবার কোনো কোনো শিক্ষককে মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার (HS Exam Answer Shit) কোনো খাতাই দেখতে দেওয়া হয় না। মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার মধ্যে সময়ের ব্যবধান খুব কম থাকে।

সময়ের ব্যবধান কম থাকার জন্য যে শিক্ষক মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিক (Madhyamik HS Exam) পরীক্ষার খাতা দেখছেন তার পক্ষে প্রতিটি ছাত্রছাত্রীর খাতার মূল্যায়ন করা যথেষ্ট সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। এর পাশাপাশি ওই শিক্ষকটিকে আবার একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণীতে ওঠার পরীক্ষার খাতা দেখতে হয়। এই সমস্যার সমাধানের জন্য একদল শিক্ষক উদগ্ৰীব হয়ে উঠেছে।

উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ এবং মধ্যশিক্ষা পর্ষদের কাছে শিক্ষানুরাগী ঐক্যমঞ্চের আবেদন হল ভিন্ন ভিন্ন শিক্ষকদের দিয়ে মাধ্যমিক (Madhyamik Answer Sheet) এবং উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার খাতা দেখানো হোক। এই প্রসঙ্গে শিক্ষানুরাগী ঐক্যমঞ্চের রাজ্য সম্পাদক কিঙ্কর অধিকারী জানিয়েছেন যে, ‘‘দেখা যাচ্ছে, একই শিক্ষকেরা প্রতি বছর মাধ্যমিক এবং উচ্চমাধ্যমিকের খাতা দেখছেন। অনেক শিক্ষক কোনও খাতাই দেখেন না। এরকম কেন হবে? সমস্ত শিক্ষককেই খাতা বণ্টন করার দাবি জানিয়ে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদকে চিঠি দিয়েছি।’’

Advertisement
School Teacher (স্কুল শিক্ষক)

এই প্রসঙ্গে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য যা বললেন তা হল, ‘‘শিক্ষক সংগঠনের এই আবেদন সহানুভূতির সঙ্গে দেখা হচ্ছে। কিন্তু অনেক গুলো দিক খতিয়ে দেখতে হবে। আলাদা আলাদা করে পরীক্ষার খাতা দেখাতে গেলে পর্যাপ্ত পরিমাণে পরীক্ষক, প্রধান পরীক্ষক আছেন কি না দেখতে হবে। খাতা দেখার জন্য যোগ্যতার মাপকাঠি সব শিক্ষকের থাকে না। সব দিক দেখে তার পরই সিদ্ধান্ত নিতে হবে।’

Teacher Recruitment – 2017 সালে চাকরি পাওয়া শিক্ষকদের নিয়ে নয়া জটিলতা। নিয়মের ফাঁদে চাকরি নিয়ে টানাটানি।

মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘‘মাধ্যমিকের খাতা দেখার জন্য কিছু যোগ্যতামান প্রয়োজন। যাঁরা তা পেরোন তাঁদেরই খাতা দেখতে দেওয়া হয়। তাই সব শিক্ষককে খাতা দেওয়া যায় না।’’ কিন্তু এই সকল কিছুর প্রভাব পরীক্ষার ফলাফলের ওপরে পড়বে না বলেই জানানো হয়েছে। এবারে দেখার অপেক্ষা যে এই নিয়ে আরও কি কি তথ্য জানানো হয়।
Written by Nupur Chattopadhyay.

House Rent Rules – পশ্চিমবঙ্গে বদলে গেল বাড়ি ভাড়ার নিয়ম। বাড়ির মালিকের জুলুমের দিন

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment