Lakshmir Bhandar – লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্প নিয়ে বড় ঘোষণা সরকারের, খুশির খবর সবার জন্য।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার বা Lakshmir Bhandar নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের (West Bengal Government) তরফে এক অতি গুরুত্বপূর্ণ নিয়ম নিয়ে আসা হয়েছে রাজ্যের সকল ২৫ বছরের বেশি বয়সী মহিলাদের জন্য। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee) পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসার পর থেকে সাধারণ মানুষের সুবিধার জন্য একের পর এক প্রকল্পের সঞ্চার করেছে। তার সব থেকে বড় জনপ্রিয় প্রকল্পগুলির মধ্যে অন্যতম হল লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প।

Advertisement

Big Announcement For Lakshmir Bhandar In West Bengal.

২০২১ সালে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী নিজেই লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের (Lakshmir Bhandar Scheme) সূচনা করেন। দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পে (Duare Sarkar Camp) এই লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন জমা দেওয়া যায়। লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের নতুন নিয়ম নিয়েই আজকের প্রতিবেদনে একটি বিশেষ খবর রয়েছে। কি সেই খবর? সেইটি জানতে এই প্রতিবেদনটি প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

Advertisement

মুখ্যমন্ত্রী তার রাজ্যবাসীদের জন্য কন্যাশ্রী, যুবশ্রী, পথশ্রী সহ বেশ কিছু প্রকল্প সূচনা করে সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন। এই সমস্ত প্রকল্প গুলির ন্যায় আরেকটি প্রকল্পের সূচনা করেও তিনি রাজ্যের মহিলাদের মা হয়ে উঠেছেন। এই প্রকল্পটির নাম হল লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প। লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের (Lakshmir Bhandar) মাধ্যমে রাজ্যের মহিলারা ৫০০ টাকা করে এবং সংরক্ষিত শ্রেণীর মহিলারা ১০০০ টাকা করে প্রতিমাসে পেয়ে থাকেন। প্রতি মাসে মহিলাদের নিজস্ব ব্যাংক একাউন্টে এই টাকা সরাসরি চলে আসে।

এক পরিসংখ্যানের মাধ্যমে জানা গেছে বর্তমান সময়ে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের ১.৯৮ কোটিরও বেশি মহিলা লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের (Lakshmir Bhandar) সুবিধা উপভোগ করছেন। গত সেপ্টেম্বর মাসে দুয়ারে সরকারের শেষ সংস্করণে প্রাপ্ত আবেদন গুলি যাচাইয়ের পরে জানা গেছে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের সুবিধাভোগীদের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯.৫ লক্ষ। আগের লক্ষ্মীর ভান্ডারের সুবিধাভোগীদের সংখ্যা এবং এখনকার সংখ্যা যোগ করলে দেখা যাবে লক্ষ্মীর ভান্ডার উপভোক্তাদের মোট সংখ্যা ২.০৭ কোটি ছাড়িয়ে যাবে।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প (Lakshmir Bhandar) আবেদনের জন্য ইচ্ছুক মহিলারা এতদিন পর্যন্ত দুয়ারে সরকারের ক্যআম্পএ গিয়ে তাদের আবেদন পত্র জমা দিত। এই আবেদন পত্র জমা দেওয়ার পর সেটি গ্রাহ্য হলে আবেদনপত্রে থাকা মোবাইল নম্বরে এসএমএস পাঠানো হতো রাজ্য সরকারের তরফ থেকে। তারপর প্রতিমাসে জেনারেল ক্যাটাগরির মহিলারা নিজস্ব ব্যাংক একাউন্টে ৫০০ টাকা এবং এসসি, এসটি মহিলারা প্রতিমাসে হাজার টাকা করে পেয়ে থাকেন।

Advertisement
Madhyamik HS Exam (মাধ্যমিক উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা)

এবার জানা গিয়েছে এই নিয়মের বদল আনছে রাজ্য সরকার। এতদিন পর্যন্ত মহিলাদের দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পের অপেক্ষায় থাকতে হতো এই লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের (Lakshmir Bhandar) আবেদন পত্র জমা দেওয়ার জন্য। কিন্তু এবার থেকে মহিলারা সবসময়ই এই প্রকল্পে আবেদন জানাতে পারবে। আবেদন পত্র জমা দেওয়ার জন্য মহিলাদের ন্যূনতম ২৫ বছর বয়স হতে হবে। নতুন নিয়ম অনুসারে আবেদন পত্র সব সময়ই জমা দেওয়া যাবে।

SSC GD Recruitment – স্টাফ সিলেকসান কমিশনে চাকরির সুবর্ণ সুযোগ, সহজ আবেদনের পদ্ধতি দেখুন।

গ্রামাঞ্চলে মহিলাদের ক্ষেত্রে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদন পত্র জমা দেওয়া যাবে বিডি অফিসে এবং শহরাঞ্চলের মহিলারা জমা দেবে এসডিও অফিসে গিয়ে। রাজ্য সরকারের এই নতুন নিয়মের ফলে বহু মহিলাই উপকৃত হবেন। এবার থেকে মহিলাদের লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের (Lakshmir Bhandar) আবেদন পত্র জমা দেওয়ার জন্য দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পে বড় লাইনে দাঁড়িয়ে আর ভোগান্তির শিকার হতে হবে না।
Written By Nupur Chattopadhyay.

ICDS Recruitment 2023: বহুদিন পর রাজ্যে আশা কর্মী ও হেল্পার নিয়োগ। নিজের জেলাতেই

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment