Advertisement
Lakhi Bhandar Scheme
Advertisement

1লা সেপ্টেম্বর থেকে একাউন্টে আর ঢুকবে না লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প (Lakhi Bhandar) এর টাকা।

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে রাজ্যের প্রত্যেক স্তরের মানুষের জন্য একে একে আনা হয়েছে বহু জনমুখী লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প (Lakhi Bhandar)। এতে কিছুটা হলে স্বচ্ছল হয়েছেন এই রাজ্যবাসী। তবে দুর্নীতি পিছু ছাড়ে না। তাই রাজ্যের প্রত্যেক বিষয়ে কড়া বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর।

Advertisement

সামনে এসেছে রাজ্য সরকারের লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প র মতো জনমুখি প্রকল্পটি। রাজ্যে তৃণমূল সরকার তৃতীয় বারের জন্য ক্ষমতায় আসার পর গোটা রাজ্যের মহিলাদের বিশেষ করে ঘরের গৃহিণীদের অর্থনৈতিক ভাবে স্বাবলম্বী করার কথা ভাবেন। সেই উদ্দ্যেশ্যে সরকারি তরফে চালু করা হয়েছিল এই লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্প।

রাজ্য সরকার দ্বারা চালু হওয়া লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের পিছু ছাড়ে নি সীমাহীন দুর্নীতি। সেই দুর্নীতি আটকাতে কড়া অবস্থান নিল রাজ্য সরকার। অনেক গৃহিণী এবার লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা পাওয়া থেকে বঞ্চিত হতে পারেন। কারণ এই বিষয়টি দুর্নীতিমুক্ত করতে বিশেষ পদক্ষেপ নিচ্ছে রাজ্য সরকারের নির্দিষ্ট দপ্তর।

Advertisement

সমীক্ষায় দেখা গেছে যে, অনেকেরই নির্দিষ্ট বয়স হয় নি। কিন্তু অযৌক্তিকভাবে বয়স বাড়িয়ে ফর্ম ফিলাপ করা হয়েছে। এছাড়া সাধারণ শ্রেণীর আবেদনকারী নিজেকে দাবি করেছেন তপসিলি জাতি হিসেবে। সেক্ষেত্রেও তাদের লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা আর না ঢোকারই সম্ভাবনা।

এবার তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প (Lakhi Bhandar) এর ক্ষেত্রে সরকারি নতুন নিয়ম বিধি সম্পর্কে। অর্থাৎ নতুন এই নিয়মের গেরোয় কারা পড়তে চলেছেন কারাই বা ছাড় পেতে চলেছেন।

EK24 News

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ প্রচুর। কি সেই অভিযোগ?
ক) সরকারি নির্দেশিকা অনুযায়ী, অনেক মহিলা রাজ্য সরকারের অন্যান্য আর্থিক ভাতার সুবিধা নিয়ে থাকেন। এবার থেকে সেই সকল মহিলারা লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্প র (lakshmi bhandar) টাকা আর পাবেন না।

Advertisement

খ) বয়সের ক্ষেত্রে জাল সার্টিফিকেট দেখিয়ে বয়স বাড়িয়ে যারা আবেদন করেছিলেন, তাদের টাকাও এবারে বন্ধ হতে চলেছে। এমন প্রচুর আবেদনকারীর খোঁজ মিলেছে পোর্টাল থেকে।

গ) লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ক্ষেত্রে সাধারণ এবং ওবিসি ক্যাটাগরির মহিলাদের জন্য বরাদ্দ রয়েছে মাসিক ৫০০ টাকা এবং তপশিলি জাতী এবং উপজাতিদের ক্ষেত্রে রয়েছে ১০০০ টাকা। অনেকেই ভুল তথ্য দিয়েছেন বেশি টাকা পাবার লোভে। তাদের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটবে।

ঘ) অনেকেই নিজের ব্যাংক একাউন্ট না থাকায় জয়েন্ট একাউন্ট দিয়েছেন আবেদনের সময়। তাদেরও টাকা দেওয়া বন্ধ হয়ে যাবে। শুধুমাত্র নিজের নামের একাউন্ট সঠিক বলে বিবেচিত হবে।

Advertisement

ঙ) অনেক মহিলার খোঁজ পাওয়া গেছে যারা একই নামে দুই তিনটি করে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প এর একাউন্ট করেছেন এবং সব কটি একাউন্টেরই সুবিধা নিচ্ছেন, তাদের একাউন্ট বাতিল করে দেওয়া হবে।

চ) সমীক্ষায় দেখা গেছে অনেক মহিলাই সরকারি চাকরীর পাশাপাশি লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকাও তুলছেন। তাদের একাউন্টগুলি এবারে বন্ধ হতে চলেছে। যারা একাউন্ট করার পরে চাকরি পেয়েছেন, তাদেরও একই হবে।

ছ) ব্যাঙ্কে নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্ট থাকা স্বত্তেও যে সমস্ত মহিলারা তাদের KYC আপডেট করেননি। KYC আপডেট না করা পর্যন্ত ওই সকল মহিলারা এবার থেকে আর লক্ষীর ভান্ডার (Lakhi Bhandar) এর টাকা পাবেন না।

Advertisement

এ বিষয়ে সরকারি তরফে বলা হয়েছে, প্রকল্পটি চালু হওয়ার সময় সংশ্লিষ্ট পঞ্চায়েত / পুরসভা কে ওই মহিলা বা গৃহিণীর যাবতীয় নথিপত্র খুঁটিয়ে পর্যবেক্ষণ করার কথা বলা হয়েছিল। কিন্তু আদতে তা হয়েছে শুধুমাত্র কাগজে কলমেই।

কিন্তু কাগজ পত্র বা প্রকল্পের সুবিধা পাওয়া ওই মহিলার যাবতীয় নথিপত্র খুঁটিয়ে দেখা তো দুরস্ত বাস্তবের সঙ্গে এর কোনও মিলই পাচ্ছেন না রাজ্য সরকারের দায়িত্ব প্রাপ্ত আধিকারিকরা।

স্থানীয় পঞ্চায়েত বা পুরসভার কর্মীদের আবেদন পত্র সঠিকভাবে যাচাই করার কথা থাকলেও তারা হয়তো কাজের চাপে বা অন্যান্য কারণে বিষয়গুলি সঠিকভাবে পর্যবেক্ষণ করতে পারেন নি। আধিকারিকেরা এখন কুল কিনারা খুঁজে পাচ্ছেন না যে কিভাবে আরো স্বচ্ছ করে বিষয়টি দেখবেন।

Advertisement

মাত্র 619 টাকায় সিলিন্ডার ভর্তি রান্নার গ্যাস, বছরে কটি পাবেন, কিভাবে পাবেন, দেখুন।

সাম্প্রতিক গোটা রাজ্য জুড়ে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের এই দুর্নীতি সামনে আসতেই একেবারে চক্ষু চড়কগাছ রাজ্য সরকারের আধিকারিকদের। এবার তাই নড়েচড়ে বসল প্রশাসন। এখন জোরকদমে চলছে এই স্ক্রুটুনির কাজ।

তবে সরকারি তরফে বলা হয়েছে প্রকল্পের কাজ চলবে পুরোমাত্রায়। যে সকল মহিলারা এই প্রকল্পের সুবিধা পাওয়ার জন্য বৈধ নথিপত্র এবং নির্দিষ্ট ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট করেছেন তাদের ক্ষেত্রে এই প্রকল্পের আওতায় প্রতিমাসে টাকা পেতে কোনও অসুবিধা নেই। তবে ভুয়ো সুবিধাভোগীদের একাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে অনতিবিলম্বে।

এমন সব আপডেট খবর তাড়াতড়ি পেতে আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন। আর আপনার গুরুত্বপূর্ণ কমেন্ট করতে ভুলবেন না। কারণ আপনার মতামত আমাদের প্রতিদিনের চলার পথের পাথেয়। ধন্যবাদ।
Written by Mukta Barai.

Advertisement

সামান্য পুঁজিতে বাড়িতে বসে এই ব্যবসা করে সারাজীবন আয় করুন।

Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement