5 Rs Coin – 5 টাকার ছোট কয়েন নিচ্ছে না কেউ, বাতিল হবে? রিজার্ভ ব্যাংকের নতুন সিদ্ধান্ত জেনে নিন।

বন্ধ হতে পারে 5 Rs Coin ছোট কয়েন, গুজব না সত্যি?

মনে পড়ে পুরনো ৫ টাকার কয়েনের (Old 5 Rs Coin) কথা? একটা সময় রমরমিয়ে এই ৫ টাকার কয়েন বাজারে পাওয়া যেত। ওই কয়েনটি ছিল অনেকখানি পূরু এবং মোটা। পুরনো ৫ টাকার কয়েনটি বেশ ভারীও ছিল। অন্তত বর্তমানের ৫ টাকার কয়েনের (5 Rs Coin) তুলনায়। এবার সেই পুরনো মোটা এবং ভারী ৫ টাকার কয়েন বদলে তুলনায় অনেকটা পাতলা এবং হালকা ৫ টাকার কয়েন কেন তৈরি করা হলো?

Advertisement

কালো টাকার রমরমা এবং জালিয়াতদের ঠেকানোর জন্য দেশের সরকার ২০১৬ সালে ১ হাজার টাকা এবং ৫০০ টাকার নোট ছাপানো বন্ধ করে দেয়। এর কারণ হিসেবে সরকারের তরফে মূলত জাল নোটের রমরমা বন্ধ করার বিষয়টি তুলে ধরা হয়। কিন্তু এতো গেল নোটের কথা। ৫ টাকার কয়েনের (5 Rs Coin) বদল হলো কেন?

Advertisement

এই ৫ টাকার কয়েন (5 Rs Coin) বদল করার পিছনে যে ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে, তা জানলে চমকে যেতে পারেন। আগে যে ৫ টাকার কয়েনগুলি তৈরি করা হতো, মোটা এবং ভারী গোছের, তার কারণ তাতে বেশি পরিমাণে ধাতু ব্যবহার করা হতো। আর ঐ বেশি পরিমাণে ধাতুকেই অবৈধ চোরাকারবারীরা নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করা শুরু করে।

জানা গিয়েছে, ওই পুরনো ৫ টাকার মোটা কয়েনগুলি (5 Rs Coin) থেকে শেভিং ব্লেড (Shaving Blade) তৈরি করা শুরু হয়। আর এই কারবারটি মূলত শুরু হয়ে যায় বাংলাদেশে। আর বি আই (RBI) যখন এই খবর জানতে পারে, তখনই পুরনো ৫ টাকার কয়েন তৈরি করা বন্ধ করে দেয়। পরিবর্তে পাতলা হালকা ধরনের ৫ টাকার কয়েন তৈরি করা শুরু করে।

নিজ গৃহ নিজ ভূমি (Nijo Griha Nijo Bhumi Scheme Project) প্রকল্প

বাংলাদেশে একটি শেভিং ব্লেডের দাম ২ টাকা। সেখানে ওই পুরনো ৫ টাকার কয়েন থেকে ৬ টি শেভিং ব্লেড তৈরি করা যায়। ফলে তারা আয় করে ১২ টাকা। আর এই কারবার ধীরে ধীরে বাংলাদেশে একেবারে জুড়ে বসেছিল। তাই সঙ্গে সঙ্গে RBI বিষয়টি জানতে পেরেই কড়া পদক্ষেপ নেয়। পুরনো বেশি ধাতু দিয়ে তৈরি ভারী ৫ টাকার কয়েন বদলে ফেলে পরিবর্তে নিয়ে আসে পাতলা এবং হালকা ধরনের ৫ টাকার কয়েন। যা এখন বাজারে দেখতে পাওয়া যায়। আর এই 5 Rs Coin কয়েন সেভাবেই তৈরি করা হচ্ছে, যাতে বাংলাদেশীরা এই কয়েন ব্যবহার করে আর ব্লেড (Blade) তৈরি করতে না পারে।

Advertisement

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের নতুন নিয়ম ঘোষণা, অনিয়ম করলেই টাকা পাওয়া বন্ধ।

তবে কয়েকদিন ধরে স্যোশাল মিডিয়াতে ৫ টাকার কয়েন অচল হয়েছে বলে যে খবর প্রকাশ্যে এসেছে, তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং অসত্য। বাজারে যেকোনো ৫ টাকার কয়েন চলবে। কেউ কয়েন না নিতে চাইলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে। একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে ছোট এক টাকার কয়েনের ক্ষেত্রেও। এই খবরটি সকলকে শেয়ার করার অনুরোধ রইলো
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment