HS Exam – বার বার নিষেধ স্বত্তেও উচ্চ মাধ্যমিক বাংলা পরীক্ষায় একই ভুল করলো পরীক্ষার্থীরা, এই নিয়ম না মানলে খাতা ক্যানসেল।

HS Exam – এই কারণগুলির জন্য বাতিল হয়ে যেতে পারে পরীক্ষার উত্তরপত্র। শিক্ষা সংসদের পুনঃ ঘোষণা।

গতকাল থেকে শুরু হয়েছে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা (HS Exam)। পরীক্ষা চলবে ২৭শে এপ্রিল পর্যন্ত। মাঝে ৭ থেকে ১৬ই এপ্রিল পর্যন্ত থাকবে বিরতি। এই প্রথমবার ছাত্রছাত্রীরা নিজের বিদ্যালয়ে অর্থাৎ ‘হোম সেন্টারে ‘ গিয়ে পরীক্ষা দেবে। তবে মানতে হবে কঠোর বিধিনিষেধ (WB HS Examination Guidelines 2022)।

Advertisement

হোম সেন্টারে পরীক্ষা হওয়ার ফলে বিশৃঙ্খলতার বা গণটুকলির আশঙ্কা একেবারেই উপেক্ষা করা যাচ্ছে না বলে মনে করেছেন উচ্চ শিক্ষা সংসদ (WBCHSE) কতৃপক্ষ। পরীক্ষা শুরুর আগে থেকে সকল ছাত্রছাত্রীদের বিভিন্ন বিধিনিষেধ সম্পর্কে বললেও দেখা গেছে বাংলা পরীক্ষার দিন অনেক পরীক্ষার্থীরা সেই একই ভুল করেছে HS Exam।

Advertisement

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য জানান, ‘‌কোনও পরীক্ষাকেন্দ্রে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে, সেই কেন্দ্রের সুপারভাইজার ও ইনভিজিলেটর দায়ী থাকবেন। সেই স্কুলের ফল স্থগিত রাখা হতে পারে। সংসদ এই বিষয়ে নিয়ম অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে। এমনকি স্কুলের অনুমোদনও বাতিল হতে পারে HS Exam।’‌

একই সঙ্গে তিনি জানান, ‘পরীক্ষা শুরুর পর ১ ঘণ্টার মধ্যে কোনও পরীক্ষার্থী শৌচালয়ে যেতে পারবেন না। এমনকি শিক্ষকদের কাছেও কোনও মোবাইল ফোন রাখা যাবে না। সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত কঠোর নজরদারিতে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হবে ‘ (WB HS Exam Guidelines 2022)।

শিক্ষা সংসদের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়, পরীক্ষার সময় কেন্দ্রে কোনো রকম বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হলে, খাতায় অশোভন কোনো শব্দ ব্যবহার হলে, এবং কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে, গণটুকলি হলে বা কোনো রাজনৈতিক প্রভাবের ফলে ঝামেলা হলে স্কুলের অনুমোদন এবং উত্তরপত্র ও বাতিল করা হবে (WB HS Exam Guidelines 2022)।

Advertisement

সুত্র মারফত জানা গেছে যে, এত সবকিছু বলা সর্তেও পরীক্ষার্থীরা বারবার একই ভুল করছে। ফলে পরবর্তীকালে যে এই নিয়ে কোন সমস্যা হতে পারে সেটা বলাই বাহুল্য। গতকাল পরীক্ষা কেন্দ্রে অনেকেই মোবাইল নিয়ে ঢুকেছে, তবে সেগুলো স্কুলে জমা রেখে পরীক্ষা দিতে হয় তাদের।

পরীক্ষার দিনে এই কাজ একদম করা যাবে না, এখুনি দেখুন।

অন্যদিকে সংসদের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও অনেক স্কুলেই প্রাথমিক বিভাগে নিয়মিত ক্লাস চলে, আর তারপর পরীক্ষা নেওয়া হয়। পরীক্ষার দিন গুলোতে সবরকম ক্লাস ছুটি দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। HS Exam

সর্বোপরি নিজের স্কুলে পরীক্ষা বলেই বাড়তি সুবিধা পাবে, তেমনটা আর হচ্ছে না। এই বিষয়ে আপনার কি মত? ক্লাস না করিয়ে পরীক্ষা নেওয়ায়, একটু সহজ প্রশ্ন আর একটু সুবিধা দিলে কি ক্ষতি হয়? মন্তব্য সকলেই নিচে কমেন্ট করে জানাবেন।

এবার বিএসএনএল সিম নিলেই সারাজীবন এই সুবিধা পাবেন

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment