পুরনো কয়েন বিক্রয় করে লাখ টাকা আয় করুন, সবচেয়ে সহজ উপায়ে ক্রেতা পাওয়ার উপায়।

অনেকেই নাকি পুরনো কয়েন বিক্রি করে হয়েছেন লাখপতি।

ওল্ড ইজ গোল্ড। পুরনো কয়েন বিক্রয় করে লক্ষ টাকা আয়। অনেকের কাছেই পুরাতন কয়েন আছে। আর বাজারমূল্য ও অনেক বেশি। কিন্তু বিক্রয় করার সঠিক মাধ্যম খুজে পান না। তাই প্রতাড়িত হতে হয়। কিভাবে সঠিক উপায়ে কেনাবেচা করবেন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক।

Advertisement

গোল্ড কয়েন। সোনার পয়সা। মানে অনেক দামি একটা জিনিস। আর সোনা যে অনেক দামি তা সবাই জানে। আর ওল্ড কয়েন? তার দাম কেমন? বিষয়টি সম্পর্কে লোকমুখে বা ওয়েব মাধ্যম থেকে কিছু না কিছু জেনেছে অনেকেই। তবে আসলে কি তাই? আসলে কি “Old is Gold” কথাটি এই ক্ষেত্রে সত্যি সত্যি প্রযোজ্য?

Advertisement

ওয়েব মাধ্যমে এমন অনেক খবরের আপডেট মিলতে থাকে হর হামেশাই যে 1800 সালের একটি মুদ্রার দাম উঠলো 30 লক্ষ টাকা। কি, শুনেছেন এমনটা?
তার মানে এই কয়েন কেনে কারা? কি এমন বিশেষত্ব আছে যে মানুষ কিনে নেই এত টাকা খরচ করে? প্রশ্নের পর প্রশ্ন আসতেই থাকে এক এক করে।

আপনাদের মনেও হয়তো আরো প্রশ্নের উদয় হচ্ছে। কয়েন কিনেই বা কি করে?
কয়েন কেনা বেচার অনেকগুলো ওয়েবসাইট আছে। তবে এগুলির সবই প্রায় ভুয়ো। আপনারাও হয়তো অনেকেই চেষ্টা করেছেন পুরানো কয়েন বিক্রি করার জন্য। কিন্তু কেউ সফল হয়ে থাকলে কমেন্টে অবশ্যই জানাবেন আপনার কথা।

কয়েন গুলি অনেক ক্ষেত্রেই দেখা যায় যে তা তৈরি হয় বিশেষ কোন বিশিষ্ট ব্যক্তির ছবি দিয়ে বা কোন বিশেষ দিনকে স্মরণে রাখার জন্য। আর দেশের সে সব পুরনো কয়েন গুলি তৈরী হয়ে থাকে সীমিত সংখ্যায়। ফলে সময়ের সাথে সাথে তা দুষ্প্রাপ্য হয়ে ওঠে। তাই সেই কয়েন তো দামি হবেই।

Advertisement

তবে কতটা দাম যুক্তিসঙ্গত? আসলে নেট দুনিয়ায় ছড়িয়ে আছে প্রচুর ছলনাকারী ব্যক্তিত্ব যারা অসাধু পথ অবলাম্বন করে সাধারণের থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। ফাঁদ পেতেছে নেট দুনিয়ায়। আর সেই ফাঁদে পা বাড়িয়েই অনেকের অর্থহানি ঘটেছে ইতিমধ্যেই।

তাই এখন থেকেই সাবধান হয়ে যাওয়া খুবই জরুরি। পুরনো কয়েন বিক্রির নাম করে থাকা ভুয়ো ওয়েবসাইট কিছু দূরে থাকুন। আর যদি সত্যি সত্যি আপনি ক্রেতা খুঁজে পান তাহলে টাকা পয়সার লেনদেন নিয়ে আপনাকে থাকতে হবে খুব সতর্ক। নেট দুনিয়ার ভালো নামি দামী ওয়েবসাইটে পর্যন্ত দেখা যায় পুরনো কয়েন বিক্রির ভুয়ো বিজ্ঞাপন।

Jio এর জন্মদিনে বিরাট ঘোষণা, সারা মাস Free পাবেন এই তিনটি অফার ও লটারি বিনামূল্যে।

আসলে গুটি কয়েক নীলামকারী সংস্থা আছে যারা এই পুরনো কয়েন সংক্রান্ত নিলাম করে থাকে। তবে সেক্ষেত্রে পরিকাঠামোই আলাদা। এতো সহজে এই কয়েন বিক্রি হয় না এতো দাম দিয়ে। তাই আপনার কাছে যদি সত্যি সত্যি কোন এমন ধরণের কয়েন থেকেই থাকে, তাহলে ওয়েবাসাইটের মাধ্যমে আপনি আন্তর্জাতিক নিলামে অংশ নিয়ে দেখতে পারেন। তবে indiamart, quicker, olx, ebay এর মাধ্যমে ক্রেতা পাওয়া যায়। কিন্তু অনলাইনে কেনাবেচা না করে ফেস টু ফেস এসে লেনদেন করুন।

অনলাইনে বিক্রয় করতে এখানে ক্লিক করুন

ভুয়ো ওয়েবসাইটের বিজ্ঞাপন থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখুন। আপনাদের কাছে সঠিক তথ্য তুলে আনাই আমাদের কাজ। অযথা হয়রানি হবেন না। প্রতিবেদনটি কাজে লাগলে অবশ্যই শেয়ার করবেন। আমাদের পাশে থাকার অনুরোধ রইল। ধন্যবাদ।
Written by Mukta Barai.

লটারি জিততে চাইলে, চটজলদি এই কৌশল কাজে লাগান।

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment