মহিলা সম্মান সেভিংস সার্টিফিকেট – এপ্রিল থেকে সরকারের নতুন প্রকল্প, কি কি সুবিধা পাবেন জেনে নিন।

মহিলা সম্মান সেভিংস সার্টিফিকেট বা মহিলা সম্মান যোজনায় বিনিয়োগ করুন আর প্রচুর পরিমাণে সুদ পেয়ে যান। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের বাজেটে অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন মহিলা সম্মান সঞ্চয় প্রকল্প বা মহিলা সম্মান সেভিংস সার্টিফিকেট নামে একটি নতুন স্মল সেভিং স্কিম চালুর কথা ঘোষণা করেন। মহিলাদের আর্থিক সহায়তা করার জন্যই এই স্কিমটি চালুর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে।

Advertisement

মহিলা সম্মান সেভিংস সার্টিফিকেট চালুঃ

31 মার্চ থেকে এই প্রকল্প কার্যকরী হয়েছে। এখন ব্যাংক বা পোষ্ট অফিসেই এই প্রকল্প করতে পারেন। এখানে সিঙ্গল হোল্ডারের একটি অ্যাকাউন্ট খোলা হবে। নিকটবর্তী পোস্ট অফিস বা কোনও অনুমোদিত ব্যাঙ্কে এই অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে।

Advertisement

মহিলা সম্মান সেভিংস সার্টিফিকেট কাদের জন্য?
এই স্কিমের আওতায় দেশের যে কোনও মহিলা তাঁর নিজের জন্য এই অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। আবার অপ্রাপ্তবয়স্ক কন্যা সন্তানের জন্যেও অভিভাবকরা এই অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। সরকারি এই স্কিমের সুবিধা পেতে গেলে 2025 সালের 31 মার্চের আগে ফর্ম – 1 টি পূরণ করে পোস্ট অফিসে জমা দিতে হবে।

রান্নার গ্যাসের দাম 200 টাকা কমালো সরকার, 10 কোটি পরিবার পাবে এই সুবিধা।

কত টাকা রাখতে হবে?
মহিলারা ন্যূনতম 1000 টাকা বিনিয়োগ করতে পারবেন এই স্কিমের আওতায়। পরে 100 টাকার গুণিতকে যে কোনও অঙ্কের টাকা জমা করা যেতে পারে। প্রসঙ্গত, এই প্রকল্পের অধীনে একজন বিনিয়োগকারী সর্বোচ্চ দুই লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে পারবেন। সরকার এই প্রকল্পে বার্ষিক 7.5 শতাংশ হিসেবে সুদের হার দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে। এই সুদের হার প্রতি ত্রৈমাসিকে চক্রবৃদ্ধি হারে গ্রাহকেল অ্যাকাউন্টে জমা করা হবে।

টাকা বিনিয়োগের দুই বছর পর এই স্কিমের মেয়াদ পূর্ণ হবে। সেই সময় টাকা তুলতে গেলে গ্রাহকদের ফর্ম- 2 -এর মাধ্যমে আবেদন জমা করতে হবে। টাকা তোলার সময় পঞ্চাশ পয়সা বা তার বেশি অঙ্ককে এক টাকা হিসাবে ধরে গ্রাহকদের টাকা দেওয়ার ব্যবস্থা করবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

Advertisement

বাড়িতে বসে মাত্র 10 হাজার টাকা 4 টি দারুন ব্যবসা, মাসিক আয় 50 হাজার টাকা।

মহিলা সম্মান সেভিংস সার্টিফিকেট এর সুবিধাঃ

এই স্কিমের আওতায় অ্যাকাউন্ট খোলার তারিখ থেকে প্রথম বছরের পর মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার আগে গ্রাহক টাকা তুলতে পারবেন। আবার যদি মেয়াদ পূর্তির আগেই অ্যাকাউন্ট হোল্ডারের মৃত্যু হয়, তাহলেও গচ্ছিত টাকা তুলে নেওয়া যায়। এক্ষেত্রে যদি পোস্ট অফিস অথবা ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ মনে করে গ্রাহকের চিকিৎসার জন্য অর্থ প্রয়োজন অথবা অভিভাবকের মৃত্যুর জেরে তিনি আর্থিক কষ্টের মধ্যে রয়েছেন, সেক্ষেত্রে সকল প্রয়োজনীয় নথি জমা দেওয়ার পর ওই নির্দিষ্ট অ্যাকাউন্ট দুই বছরের মেয়াদের আগেই বন্ধের অনুমতি মিলতে পারে।
Written by Antara Banerjee.

পশ্চিমবঙ্গে পেনশন বন্ধ সরকারি কর্মীদের? মুখ‍্যমন্ত্রীর নতুন ঘোষণায় মহা টেনশনে কর্মীরা।

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment