প্রধানমন্ত্রী বাংলা আবাস যোজনার টাকা পেতে এইভাবে আবেদন করুন।

মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই যাদের, সেই সমস্ত গৃহহীন মানুষদের মাথার উপরে ছাদ তৈরি করে দেওয়ার লক্ষ্যে সরকারের তরফে শুরু করা হয় প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্প (Pradhan Mantri Awas Yojana) দেশজুড়ে এখনো বিরাট অংশের মানুষ আছেন, যারা হয় অপরের বাড়িতে ভাড়ায় বসবাস করেন, অথবা রাস্তার ধারে সরকারি শেল্টারে গিয়ে কোনোরকমে মাথা গুঁজে থাকেন, গৃহহীন মানুষ, সেই সমস্ত মানুষদের জন্যই এই আবাস যোজনা প্রকল্পের মাধ্যমে বাড়ি তৈরি করে দেওয়া হয়।

Advertisement

বদলে গেল আবাস যোজনার নিয়ম, সুবিধা পেতে কি করতে হবে, দেখুন।

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পের গৃহহীনরা বাড়ি নিতে গেলে যে নিয়ম রয়েছে, তাতে আবেদনকারীর নিজস্ব জমি থাকতেই হবে। নিজস্ব জমি না থাকলে যদি অন্যের জমি হয়, সেখানেও আইনি নিয়ম-কানুন মেনেই জমির মালিকানা সেই ব্যক্তির হতে হবে। আর তারপরে বহু শর্ত পূরণ করতে পারলে তবেই এই PM Awas Yojana তে আবেদন করে সুবিধা নিতে পারবেন। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পে আবেদনের ফরম্যাট পুরোপুরি বদলে ফেলা হয়েছে। নতুন পদ্ধতিতে আবেদনকারীদের এবার থেকে এই প্রকল্পে আবেদন করতে হবে।

Advertisement

ফলে পশ্চিমবঙ্গ সহ দেশের সমস্ত রাজ্যের অধিবাসীদের মনেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, কিভাবে প্রধানমন্ত্রী আবাস (PM Awas Yojana) প্রকল্পে আবেদন করা যাবে?
তার আগে একটা কথা জেনে রাখা প্রয়োজন, আবেদন করলেই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পে বাড়ি পাওয়ার নিশ্চয়তা নেই। আবেদনকারী এই প্রকল্পে বাড়ি পাওয়ার জন্য নির্দিষ্ট সমস্ত শর্ত পূরণ করতে পারলে, তবেই তিনি এই প্রকল্পে বাড়ি পেতে পারেন। সম্প্রতি রাজ্যের আবাস যোজনা প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে দীর্ঘদিন ধরেই কেন্দ্রীয় বরাদ্দ টাকা দেওয়া বন্ধ করে রাখা হয়েছে।

PM Awas Yojana:

যার ফলে পশ্চিমবঙ্গে এখনো পর্যন্ত এই প্রকল্পের কাজ সেই অর্থে এগোতে পারেনি। শুধু তাই নয়, কেন্দ্রীয় সরকার দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ইতিমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গে একাধিকবার কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছে। সেখানে জানা গিয়েছে, এখনো পর্যন্ত সেই কেন্দ্রীয় টিম বিরাট কোনো দুর্নীতির অভিযোগ আবাস প্রকল্পে পাননি। সামান্য কিছু ছোটখাটো অভিযোগ থাকলেও যেভাবে কেন্দ্রের তরফে দুর্নীতির অভিযোগ তোলা হয়েছিল, তার প্রমাণ পাওয়া যায়নি। আর অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে কেন্দ্রের তরফে বহু শর্ত চাপিয়ে দেওয়া হয়, এই আবাস যোজনা প্রকল্পের তালিকা তৈরি জন্য।

তারপর রাজ্য সরকার নির্দিষ্ট সরকারি অফিসার, আমলাদের দিয়ে এই তালিকা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই তৈরি করে জমা দেয়। তবুও কেন্দ্রের তরফে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আবাস যোজনা প্রকল্পের বরাদ্দ টাকা দেওয়া হয়নি। আর এই কারণেই রাজ্যের তরফে বারবার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ তোলা হচ্ছে। এবার প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় যে নতুন নিয়ম চালু করা হয়েছে আবেদনের ক্ষেত্রে, সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে যা প্রকল্পের স্ট্যাটাস রয়েছে, তাতে করে এক্ষুনি নিশ্চয়তার সাথে কিছু বলা সম্ভব নয়।

Advertisement

তবে নতুন নিয়ম অনুযায়ী কিভাবে আবেদনকারীরা, এই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পে আবেদন করতে পারেন, সেই পদ্ধতিটি একবার দেখে নেওয়া যাক।
প্রথমেই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা গ্রামীণ বা আবাস প্লাস যোজনার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট https://pmayg.nic.in এতে গিয়ে লগইন করতে হবে।
হোম পেজের মেনু বারে গিয়ে AwasSoft অপশনটি বেছে নিয়ে তাতে Data Entry অপশনে ক্লিক করতে হবে।

এর পরের পেজে MIS DATA ENTRY অপশনের আওতায় Login অপশনে ক্লিক করতে হবে।
এবার একটি Flash Message দেখা যাবে। যদি আগে থেকেই রেজিস্ট্রেশন করা থাকে তাহলে Existing Server অপশনটি নির্বাচন করতে হবে। আর যদি নতুন করে Registration করতে চান তাহলে New Server অপশনটি নির্বাচন করতে হবে। আগে থেকে রেজিস্ট্রেশন করার পরে যদি ফের নতুন করে আবেদন করতে চান তাহলে New Server 2 অপশনটি নির্বাচন করতে হবে।

এবার চলতি আর্থিক বছর বেছে নিয়ে Username, Password দিয়ে Captcha Code পূরণ করতে হবে।
এরপরে রেজিস্ট্রেশনের যে ফর্মটি সামনে আসবে, সেখানে নিজের নাম, ঠিকানা, আধার কার্ড নম্বর, জব কার্ড নম্বর, মোবাইল নম্বর, ব্যাংক একাউন্ট ডিটেলস সহ অন্যান্য বিস্তারিত তথ্য লিখে পূরণ করতে হবে। তারপরে প্রয়োজনীয় নথিগুলি আপলোড করে সাবমিট করলেই পুরো প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হয়ে যাবে।

এবার এই প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা সম্বন্ধে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জেনে রাখা প্রয়োজন:
অনলাইনে আবেদন করলেও স্থানীয় পঞ্চায়েত অফিস এবং বিডিও অফিসে আধিকারিকদের কাছে ইউজার আইডি এবং পাসওয়ার্ড পাওয়া যাবে। তাছাড়া পঞ্চায়েত অফিস বা বিডিও অফিসে গিয়ে আবাস যোজনা প্রকল্পের আবেদনের কথা বললে তারাও অনলাইনের মাধ্যমে আপনার আবেদন করে দিতে পারবেন। যদি অফলাইনে আবেদন করতে হয়, সেক্ষেত্রেও স্থানীয় পঞ্চায়েত অফিস বা বিডিও অফিসে গিয়ে আবাস যোজনার নির্দিষ্ট ফর্ম সংগ্রহ করে পূরণ করে যাবতীয় তথ্য সহ জমা দিতে হবে।

আর হেয়ালি নয়, প্যান আধার লিংক না করলে এই 22 টি সরকারী সুবিধা পাবেন না।

তাছাড়াও বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গ সরকার দুয়ারে সরকার ক্যাম্পের আয়োজন করেছে। যার ফলে রাজ্যের বহু মানুষ সরকারি প্রকল্প একেবারে হাতের কাছেই পেয়ে যাচ্ছেন। সেখানে গিয়েও প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পের সম্বন্ধে বিস্তারিত জানতে পারবেন। আগেও বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা প্রকল্পের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় সরকার বরাদ্দ টাকা সঠিকভাবে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে দেয় নি। যার ফলে প্রকল্প মাঝে মধ্যেই থমকে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন, মোবাইল থেকে অনলাইনে লক্ষ্মীর ভান্ডার লিস্ট চেক কিভাবে করবেন।

পুরো প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা গেলেও টাকার অভাবে সেই অর্থে কাজ সঠিকভাবে রূপায়িত করা যাচ্ছে না। ফলে আবেদন করলেই যে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার সুবিধা পাওয়া যাবে, সেই বিষয়টি একেবারে নিশ্চিত করে বলা সম্ভব নয়। কিন্তু সরকারি নিয়ম অনুযায়ী, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার জন্য যা যা তথ্য প্রয়োজন, তা সঠিকভাবে সাবমিট করলে পরবর্তীতে নিয়ম মেনেই সুবিধা পেতে পারেন।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment