Advertisement
Government Scheme For Farmers
Advertisement

আগস্ট মাসেই ঢুকছে পাঁচটি Government Scheme প্রকল্পের টাকা। আপনার একাউন্ট চেক করুন এখুনি!

কেন্দ্র সরকার এবং পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকার উভয়ের তরফেই সারা দেশের সাধারন মানুষ ও কৃষকদের জন্য বিভিন্ন প্রকল্প (Government Scheme For Farmers) চালু করা হয়েছে। এই সকল প্রকল্প গুলিতে নাম নাথিভুক্তকরণের প্রক্রিয়া চলতে থাকে প্রায় সারা বছর ধরেই। আর নিথিভুক্তকরণের পরে বিভিন্ন প্রকল্পের অধীনে অনুদান গুলি আসতে থাকে বছরের নির্দিষ্ট সময়ে।

Advertisement

এই অনুদান প্রদান করা হয়, যাতে কৃষকরা কৃষিক্ষেত্রে তাদের প্রয়োজন অনুসারে যন্ত্রপাতি, সার, রাসায়নিক, কীটনাশক সহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় দ্রব্য কিনতে পারেন। এছাড়াও কৃষকদের জন্য ভিন্ন ভিন্ন জনকল্যাণমূলক প্রকল্প (Government Scheme For Farmers) চালু করা হয়েছে।
এই সকল প্রকল্পে কৃষকরা আগস্ট মাসে অনুদান পেতে চলেছেন। আর তাই আজ আমরা আলোচনা করছি, আগস্ট মাসে কোন কোন প্রকল্পে কৃষকরা টাকা পেতে চলেছেন।

আসুন জেনে নেওয়া যাক এই (Government Scheme For Farmers) প্রকলগুলি সম্পর্কে:-
১. কৃষক বার্ধক্য ভাতা
পশ্চিমবঙ্গের চাষীদের কথা মাথায় রেখে রাজ্য সরকার একটি প্রকল্প এনেছে যার নাম কৃষক বার্ধক্য প্রকল্প। প্রকল্পের নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে যে, এই প্রকল্প শুধুমাত্র ষাট বছরের বেশি বয়সের কৃষকদের জন্য। কারণ, এই বয়সের পর আর তাদের কর্মক্ষমতা কমতে থাকে। এই প্রকল্পে নাম নাথিভুক্ত থাকলে প্রতি মাসে তারা পাবেন ১০০০ টাকা। আর এই টাকা প্রতি মাসের প্রথম দিকেই চাষীদের ব্যাংকে জমা হয়ে থাকে।

Advertisement

২. কিষাণ মানধন যোজনা
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্যোগে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে বয়স্ক কৃষকদের (Government Scheme For Farmers) সাহায্য করার জন্য এই কিষাণ মানধন যোজনা। এই যোজনার অধীনে তারাই যুক্ত হতে পারবেন যাদের বয়স ১৮-৪০ বছর। তাদের ৬০ বছর বয়স অতিক্রান্ত হলেই তাদের এই প্রকল্পের অধীনে পেনশন প্রদান করা হয়ে থাকে। কৃষকদের প্রতি মাসে এই যোজনার অধীনে ৩০০০ টাকা পেনশন প্রদান করা হয়ে থাকে।

৩. কিষাণ ক্রেডিট কার্ড
চাষের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় বিভিন্ন দ্রব্য, সার, রাসায়নিক, কীটনাশক ইত্যাদি কেনার ক্ষেত্রে কৃষকদের এককালীন বেশ কিছু অর্থের প্রয়োজন হয়ে থাকে। এই অর্থের যোগান দিতে গিয়ে যাতে তারা ঋণে জর্জরিত না হয় সেজন্য কৃষকদের এই প্রকল্প (Government Scheme For Farmers).

EK24 News

এই প্রকল্পের (Government Scheme For Farmers) অধীনে সর্বোচ্চ ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ প্রদান করা হয়ে থাকে। বিভিন্ন ব্যাংকে এই প্রকল্পে চাষীদের আবেদন করতে হয়। যদিও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই টাকার পরিমাণ কৃষকদের জমির পরিমাণ এবং কিষাণ ক্রেডিট কার্ডের ক্রেডিট লিমিটের ওপর নির্ভর করে। যারা এই প্রকল্পের অধীনে ঋণের জন্য আবেদন করেছিলেন তারা আগস্ট মাসে এই প্রকল্পের টাকা পেতে চলেছেন।

Advertisement

এবার গ‍্যারান্টি ছাড়াই ব‍্যবসায় লোন দিচ্ছে সরকার, এক্ষুনি আবেদন করুন,

৪. বাংলা শস্য বীমা
প্রকৃতি কারো নিয়ন্ত্রণেই নেই। তাই চাষের ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সময়েই চাষীদের মাঠের ফসল উৎপাদন ব্যাহত হয় প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে। 
পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারের তরফে আয়োজিত এই জনকল্যাণমূলক প্রকল্পে কৃষকদের অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে কৃষকদের ফসলের ক্ষতি হলে এই প্রকল্পের অধীনে কৃষকদের ক্ষতির পরিমাণ অনুসারে টাকা দেওয়া হয়ে থাকে। আগস্ট মাসে এই প্রকল্পের (Government Scheme For Farmers) অধীনেও কৃষকরা টাকা পেতে চলেছেন।

৫. কৃষকবন্ধু প্রকল্প
কৃষকবন্ধু প্রকল্পে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কৃষকদের চাষ আবাদের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সার, বীজ, কীটনাশক এবং কৃষিকাজে প্রয়োজনীয় অন্যান্য দ্রব্য কেনার ক্ষেত্রে অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে। জমির পরিমাণের ওপর ভিত্তি করে কৃষকদের ২০০০ থেকে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত অনুদান প্রদান করা হয়ে থাকে।

পহেলা আগষ্ট থেকে রেশন তোলার নতুন নিয়ম, না মানলে রেশন পাবেন না

ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পের অধীনে কৃষকদের অনুদান প্রদান করা শুরু হয়ে গেছে। যে সকল কৃষকরা এখনো পর্যন্ত এই প্রকল্পের অধীনে টাকা পাননি তারা আগস্ট মাসে এই প্রকল্পের অনুদান পেয়ে যাবেন। তবে কৃষকদের টাকা পাওয়ার ক্ষেত্রে একটি মাত্র শর্ত রয়েছে। কেবলমাত্র যে সকল কৃষকদের এই প্রকল্পের স্ট্যাটাসে Account Valid লেখা রয়েছে তারাই এই প্রকল্পের আওতায় টাকা পাবেন আগস্ট মাসে।

Advertisement

সুতরাং, এই প্রকল্প গুলি যেহেতু কৃষকদের জন্য তাই তারা আগস্ট মাসে ব্যাংকে খোঁজ নিয়ে দেখুন যে আপনার টাকা জমা হলো কিনা।
এমন আরও গুরুত্বপূর্ণ খবর পেতে আমাদের সাথে থাকুন আর আমাদের কাজে উৎসাহিত করুন। এবং আপনাদের কোনও প্রশ্ন ও মতামত থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ
Written by Mukta Barai.

বাড়িতে বসেই মাসে রোজগার করা যাবে প্রায় 2 লাখ টাকা, কিভাবে দেখুন।

Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement