Advertisement
Google Pay Phonepe Paytm Upi Transactions New Rules by NCPI
Advertisement

গুগল পে, ফোন পে, পেটিএম (Google Pay, PhonePe, Paytm) এর মত অ্যাপগুলির ব্যবহার দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে। কারণ এই থার্ড পার্টি UPI অ্যাপগুলিতে লেনদেন করার জন্য কোন সীমা বেধে দেওয়া নেই। আর এছাড়া সেকেন্ডের মধ্যেই মোবাইল রিচার্জ, টাকা ট্রান্সফার, বিল পেমেন্ট এর মতো অনলাইন কাজ করে ফেলা সম্ভন। কিন্তু এবার বোধ হয়, সেই কাজে নিয়ন্ট্রন আসতে চলেছে। ডিজিটার ভারত গড়ার লক্ষ্যে যে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল, সেই প্রথম পধক্ষেপ এ এবার কেন্দ্রের রাশ টানার সময় এসেছে।

Advertisement

এই মুহূর্তে দেশে Google Pay, PhonePe, Paytm প্রায় ৮০ শতাংশ মার্কেট শেয়ার বেড়েছে। এই ধরনের থার্ড পার্টি অ্যাপগুলোর (TRAP) মার্কেটে দাপট কমানোর জন্য এবং লেনদেনের ক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের ঝুঁকি কমানোর জন্য ন্যাশনাল পেমেন্টস কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া বা NPCI লেনদেনের উপরে লাগাম টানতে চাইছে। সে ক্ষেত্রে থার্ড পার্টি অ্যাপগুলির জন্য NPCI ৩০ শতাংশ লেনদেনের সীমা রাখবার জন্য প্রস্তাব দিয়েছিল।

Google Pay, Phonepe, Paytm এ আগের মত আর লেনদেন চলবে না।

Google Pay, PhonePe, Paytm – এর মত থার্ড পার্টি অ্যাপগুলির লেনদেন রেকর্ড পরিমাণে হচ্ছে। যার ফলে এই লেনদেনগুলোয় বিভিন্ন ধরনের ঝুঁকি এড়ানোর জন্য NPCI কড়া পদক্ষেপ নিতে চাইছে। সে ক্ষেত্রে থার্ড পার্টি অ্যাপ প্রোভাইডারের লেনদেনের ক্ষেত্রে ৩০ শতাংশের সীমা বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। যার ফলে একটা নির্দিষ্ট টাকা পাঠানো বা লেন্দেনের পর লিমিট শেষ হয়ে যাবে। তার বেশি লেনদেন করলে চার্জ দিতে হবে। আর এর ফলেই নিয়ন্ত্রন আসবে।

Advertisement

আরও পড়ুন, ডিসেম্বর মাসে airtel এ রিচার্জ করা লাগবে না, সব ফ্রি, জানতে ক্লিক করুন।

রিজার্ভ ব্যাংক সুত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের পুজোর সময় UPI- এর মাধ্যমে ১২.১১ লক্ষ কোটি টাকা মোট ডিজিটাল লেনদেন হয়েছে। মোট ৭৩০ কোটি লেনদেন হয়েছে। সেখানে সেপ্টেম্বর মাসে UPI- এর মাধ্যমে ডিজিটাল লেনদেন ছিল ৬৭৮ কোটি। লেনদেন হওয়া টাকার পরিমাণ মোট ১১.১৬ লক্ষ কোটি টাকা। আর ধীরে ধীরে লেনদেনের পরিমান বাড়তে চলেছে। প্রতিমাসে গ্রাহক ব্যাংকের পাসবই আপডেট করতে হলে ২ থেকে ৩টি বই লেগে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন, মেয়েরা হাতের কাজ জানলেই মাসে মাসে ৬০০০ টাকা পাবেন।

জানা গিয়েছে, NPCI- এর সঙ্গে RBI- এর আধিকারিকদের ইতিমধ্যেই একটি বৈঠক হয়েছে। সেই বৈঠকে NPCI-এর আধিকারিকরা ছাড়াও অর্থমন্ত্রক এবং আরবিআইয়ের আধিকারিকরা উপস্থিত ছিলেন। ডিসেম্বর শেষ হওয়ার আগেই এই বিষয়ে কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু সবকিছুর মূলে এবার GooglePay, PhonePe, Paytm অ্যাপ এর নিয়ন্ত্রন আসবে সেকথা একপ্রকার নিশ্চিত।

EK24 News

আরও পড়ুন, বেসরকারী হয়ে যাচ্ছে, জনপ্রিয় ব্যাংক, এবার কি হবে?

Advertisement

এদিকে UPI Market Cap বাস্তবায়নের বিষয়ে চলতি মাসের শেষেই NPCI সিদ্ধান্ত নিতে পারে। যদিও ইন্ডাস্ট্রির স্টেক হোল্ডারদের কাছ থেকে এন পি সিআই এর কাছে সময়সীমা বাড়ানোর জন্য অনুরোধ করা হয়। তবে ৩১শে ডিসেম্বরের সেই সময়সীমা বাড়ানোর বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলেই জানা গিয়েছে।
GooglePay, PhonePe, Paytm অ্যাপ গুলির কি নিয়ন্ত্রন প্রয়োজন? এই ব্যাপারে আপনার মতামত নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।
Written by Rajib Ghosh.

Advertisement
Advertisement
22 thoughts on “আজ থেকে বদলে গেল Google Pay, PhonePe, Paytm ব্যবহারের নিয়ম, না জানলে টাকা কেটে একাউন্ট ফাঁকা হয়ে যাবে।”
  1. There shouldn’t be any limit…because nowadays people don’t want to carry cash even in vegetables and fish markets…The entire concept of Digital India will be a flop if people needs to carry cash all the time

    1. Banking law going on Bank system But no one cannot any change or any ammendment. When Any corruptions arise then advertising this Bank.

  2. Then RBI OR others whom are getting problems.. they should make this type of apps.. then people will not use the third party apps.. why always ordinary people suffer. And the cheater governments always trapping any how any type and harassed ordinary people’s…. This is so much irritated …..

    1. RBI চাইছে যে কোন প্রকারে গ্রহকদের পকেট কি ভাবে কাটা যায়।ATM কার্ডের চার্জ নিচ্ছে অথচ চার বারের বেশি টাকা তোলা যাবে না।এখন আবার সেভিংস এক‍্যাউন্টে চার বারের বেশি জমা দিলে ও গ্রাহকদের চার্জ দিতে হবে।এইবার অনলাইন টাকা লেন দেন করলেও চার্জ এটা কি ছেলে খেলা হচ্ছে?সাধারণ মানুষের টাকা পয়সা নিয়ে কি নাটক শুরু হল ভবিষ্যতে আর ও কত কিছু দেখতে হবে।

    1. সরকার বলছে ব্যাংকে টাকা রাখো ডিজিটাল লেনদেন করো এতে টাকা ময়লা হয়না ছিঁড়ে জানানো নকল নোট ধরা পড়ে এখন আবার জনগণের টেক্স চাপাচ্ছে আমার মতে 30% লিমিট করা ঠিক হবেনা

    2. when government decided to clear the economic policy and when Venish the black money from the market,also established the digital India ,
      then what is the purpose of to control the Google pay Paytm etc etc?

  3. Advertisement
  4. In ine side Govt is promoting Go Digital, another side now putting cap means charge will be incurred on common people. If needs to apply cap, then don’t allow transaction after certain limit. But instead of doing all these meaning less process, Govt should understand why it’s popular and people are liking it. Govt is trying to say use cash instead! We are not going back?

  5. Amader gov. public je subidha pabe .sob somai . Tate taka kamanor dhandha korbe. Aaj upi te public koto sunda pachche .tate lock lagiye dewa hochche.limit kora hochche kintu keno .aj publicer dhire dhire incom pachche na setar diye goverment kono Nazar nai.
    goverment ki vabe taka nebe setar diye lokhkho. Kintu keno keno ??

  6. How can you control digital transaction if there is already check on cash transactions. Either of the two has to have no limit. RBI can not dictate terms for personal spending pattern as long as it is lawful money. For obvious reasons money transaction are prone to involve corruption whereas digital transaction are not. RBI should look at this aspect first.

  7. Advertisement
  8. There should not be allowed any limits. The third party apps are very useful so this is my warm request that government does not take any action.

  9. They say digital India and now they are doing what??
    What is the basic need to set a limit, people who want cashless transaction to be done must be given the freedom.

  10. Advertisement
  11. Ek dike thik ache..kintu gpay, phonepay, paytm-r mato kono sarkari ba bank-er nijaswa kono app nei jate ek click-ei kaj hoye jabe…ei rakom app chalu na korei sadharon manusher upar eta chapiye dichhe….Su..ba….ra ebarei gadi oltabe…

  12. Advertisement
  13. Another policy of central government to make money from general people. This policy is must an anti-people in our federal structure. We protest.

  14. Kono limit er proyojon nei.ja ache akdom thik ache.ar kato dik theke marbe govment genarel publick ke.anek bank er app a online korte anek propblem hoi. Tai phone pay google pay pay tm ek dom idol system amader kache thanku.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement