Earn Money Online – YouTube Facebook Page এর ভিউ বাড়ানোর গোপন কৌশল, মাসে কমপক্ষে লাখ টাকা রোজগার।

Earn Money Online from YouTube and Facebook Page
বর্তমানে অনেকেই YouTube বা Facebook এর মাধ্যমে নিজের প্রতিভা সকলের কাছে তুলে ধরেন। আর ভালো করে কাজ করলে সেখান থেকে অনেক টাকা রোজগার করতে পারেন। কিন্তু অনেকের প্রতিভা থাকা স্বত্তেও চ্যানেল বা পেজ পপুলার করতে পারেন না। বা ভিউ বাড়াতে পারেন না, আজকের প্রতিবেদনে সেই নিয়ে আলোচনা করা হবে।

Advertisement

যে কোনো কাজ শুরু করলে পরিশ্রম করতে হয়। পরিশ্রম ছাড়া সফলতা আসেনা। তবে সঠিক পথ না জেনে পরিশ্রম করলে একইভাবে কখনোই সাফল্যের মুখ দেখা যাবে না। বর্তমান সময়ে বহু মানুষ সোশ্যাল মিডিয়া বিশেষ করে YouTube, Facebook পেজ থেকে মোটা টাকা উপার্জন বা Earn Money Online করছেন। আবার এরকম বহু মানুষ রয়েছে যারা ইউটিউব চ্যানেল YouTube Channel এবং Facebook পেজ করার পরেও সেই ভাবে সফল হতে পারছেন না। এবার YouTube চ্যানেল বা ফেসবুক পেজ Facebook Page কিভাবে করলে, কোন কৌশলে এগোলে, সফলতা আসবে এবং Earn Money Online বা মোটা টাকা উপার্জন করা সম্ভব হবে, সেই বিষয়ে এখানে বিস্তারিত জানানো হবে।

Advertisement

Earn Money Online from YouTube and Facebook Page:

একটা সময় ছিল যখন ইউটিউব চ্যানেল YouTube Channel শুরু করার ক্ষেত্রে কোনো রকম শর্ত ছিল না। খুব সহজেই শুরু করে দেওয়া যেত, আর কমবেশি যাই হোক সহজে ইনকামও Income শুরু হয়ে যেত। কিন্তু যখন থেকে ইউটিউব চ্যানেল সকলেই খুলে আয়ের রাস্তা খুঁজতে শুরু করে, তখন থেকেই ইউটিউবও নতুন শর্ত চাপিয়ে দিল। কোনো চ্যানেল ১০ হাজার ভিউ হলে তবেই সেই চ্যানেল মনিটাইজ Youtube Channel Monitize হবে এবং ইনকাম (Earn Money Online Income from Youtube) শুরু হবে। আর বর্তমানে সেই শর্ত বাড়িয়ে আরও কঠিন করা হয়েছে। এখন একটি ইউটিউব চ্যানেলে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার Subscriber এবং ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম Watch Time পূরণ হলে তবেই সেই ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজ এর জন্য আবেদন করতে পারবে।

Earn Money Online Tips 1:

ঠিক সেভাবেই ফেসবুক পেইজে (Earn Money Online from Facebook Page) আগে ইনকাম বা মনিটাইজ পদ্ধতি ছিল না। হঠাৎ ফেসবুক পেজ তৈরি করে আগে ইনকাম করা যেত না। কিন্তু এখন ফেসবুক পেজ তৈরি করেও ভালো টাকা আয় করা যায়। যারা Youtube চ্যানেল তৈরি করবেন ভাবছেন, তারা Youtube এর সঙ্গে ফেসবুক পেজ একসঙ্গে তৈরি করতে পারবেন। তারপর যে কোনো ভিডিও Video তৈরি করে ইউটিউব এবং ফেসবুক দুটোতেই আপলোড করতে পারবেন। যেখানেই ভিডিও আপলোড করুন না কেন লক্ষ্য রাখতে হবে, সেই ভিডিও যেন মানুষ দেখে। চেষ্টা করতে হবে ১৫ থেকে ২০ মিনিটের ভিডিও না বানিয়ে ৫ থেকে ৭ মিনিটের ভিডিও বানানো। ৫ থেকে ৭ মিনিটের ভিডিওতে কেউ যদি মিনিট ৫ সেই ভিডিও দেখে, তাহলেই ১০০% ভাইরাল হয়ে যাওয়ার সুযোগ থেকে যায়। ইউটিউবের নিজস্ব অ্যালগরিদম Youtube Algorithm রয়েছে। সেই নিয়ম অনুযায়ী ইউটিউব আপনার ওই ভিডিওকে অটো সিস্টেমে মানুষের কাছে তুলে ধরবে।

অনলাইনে ইনকাম করতে ক্লিক করুনঃ

Advertisement

ইউটিউব বা ফেসবুকের জন্য ভিডিও তৈরি করার সময় একটা বিষয় মাথায় রাখতে হবে। আপনি কোন কনটেন্ট Content তৈরি করছেন, আর একটি চ্যানেলে নির্দিষ্ট কন্টেন্টের উপরে তৈরি করাই উচিত। কোনো ইউটিউব চ্যানেলে যদি একাধিক কনটেন্ট দেওয়া হতে থাকে, তাহলে আর দর্শক ধরে রাখা সম্ভব হয় না। আর নিয়মিত আপনাকে ভিডিও আপলোড Video Upload করে যেতে হবে। হয়তো প্রথম দিকে খুব কম ভিউ হচ্ছে। সেই কারণে বন্ধ করে দিলে হবে না। ধারাবাহিকতা বজায় রাখলে হঠাৎ একদিন ভিউ অনেকটাই বেড়ে যাবে।

Earn Money Online tips 2:

তবে কখনোই নিজেই ভিডিও দেখে, সেখানে কমেন্ট লেখা বা বন্ধুদেরকে শেয়ার করে সেই ভিডিওর ভিউ বাড়ানোর চেষ্টা, এই ধরনের পদ্ধতি প্রয়োগ করবেন না। একটা কথা মনে রাখবেন, ভিডিও যদি ভাল হয়, কনটেন্ট যদি ভালো হয়, তাহলে দেরি হলেও আপনার ইউটিউব বা ফেসবুক পেজ মানুষ দেখতে চাইবে। যদি ইউটিউব চ্যানেল বা ফেসবুক পেজ সম্বন্ধে কোনো বিস্তারিত ধারণা না থাকে, তাহলে Youtube এ গিয়ে সার্চ করে সেই বিষয়ে আগে ভালো করে জেনে নিন। তারপরেই শুরু করুন।

PAN Aadhaar Link status check online (প্যান আধার লিংক)

ভিডিও আপলোডের ক্ষেত্রে আগেই বলা হয়েছে, নির্দিষ্ট চ্যানেলে নির্দিষ্ট কনটেন্ট এর উপরেই ভিডিও আপলোড করুন। বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট তৈরি করে একটি ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড Youtube Channel Video Upload Process করবেন না। সে ক্ষেত্রে মানুষ দেখতে চাইবে না। ভিডিও আপলোড করবেন একটি নির্দিষ্ট সময়ে। যখন অধিকাংশ মানুষ একটু ফ্রি থাকে, সেই সময় ভিডিও আপলোড করলে ভিউ আসা শুরু হয়।

যারা ঘন্টার পর ঘন্টা ফোনে কথা বলেন, তাদের জন্য এই প্ল্যান সবচেয়ে সস্তা ও উপযোগী।

সকাল দশটা থেকে বিকেল চারটে এবং রাতে ভিডিও আপলোড করলে ভিডিও ইমপ্রেসন বেশি পাওয়া যায়। ভিডিও আপলোডের সময়কে গুরুত্ব দেওয়া উচিত। তা না হলে সহজে ভিউ আসবেনা। একদিকে যেমন ভিডিও এর কোয়ালিটি, কন্টেন্ট ভালো হতে হবে, ঠিক তেমনি ভিডিও এডিটিংও ভালো হওয়া উচিত। তবেই দর্শক সেই ভিডিও ইউটিউব চ্যানেল বা ফেসবুকে দেখার জন্য আগ্রহী হবে। আর এর ফলে Earn Money Online এর ক্ষেত্রে সফলতা আসবে তাড়াতাড়ি।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment