রাজ্য জুড়ে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পের দিন ঘোষণা, কবে কোথায় হবে দেখে নিন।

কবে দুয়ারে সরকার, কি কি পরিষেবা মিলবে, দেখুন।

দুয়ারে সরকার প্রকল্প (Duare Sarkar) পশ্চিমবঙ্গের সমসাময়িক অন্যতম জনমুখি প্রকল্প। এই কর্মসূচীর মাধ্যমে এক ছাদের তলায় ১২ টি প্রকল্পকে যুক্ত করা হয়েছে। যার ফলে নিজের এলাকায় বসেই জনগন বিভিন্ন সরকারি সুবিধা নিতে পারেন। আর এবার নতুন করে আবার শুরু হচ্ছে দুয়ারে সরকার, কবে থেকে শুরু হবে, রইলো তথ্য।

Advertisement

পঞ্চায়েত ভোটের আগে ফের একবার দুয়ারে সরকার কর্মসূচি শুরু হতে চলেছে। পুজো শেষ হতেই রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই দুয়ারে সরকার কর্মসূচি শুরু করে দেওয়া হবে। এর আগে রাজ্যে চারটি ধাপে দুয়ারে সরকার ক্যাম্প হয়েছে। এবার পঞ্চম ধাপে সেটা হতে চলেছে। দুয়ারে সরকার ক্যাম্পের মাধ্যমে সরকারের সমস্ত ধরনের পরিষেবার সুবিধা নিতে পারবেন রাজ্যের মানুষেরা।

Advertisement

যে সমস্ত সরকারি পরিষেবার সুবিধা নেওয়ার জন্য স্থানীয় বিডিও অফিস থেকে শুরু করে জেলাশাসকের কার্যালয়ের বিভিন্ন দপ্তরে গিয়ে আবেদন করতে হয় কিংবা অনলাইনে আবেদন করে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য অপেক্ষা করতে হয়, সেই সমস্ত সমস্যা সমাধানের জন্যই সরকারের পক্ষ থেকে এই দুয়ারে সরকার ক্যাম্প শুরু করা হয়েছিল।

দুয়ারে সরকার কর্মসূচির মাধ্যমে রাজ্যের বাসিন্দারা যথেষ্টই উপকৃত হয়েছেন। 1 নভেম্বর থেকে দুয়া’রে সরকার ক্যাম্প শুরু হবে। 1 নভেম্বর থেকে 30 নভেম্বরের মধ্যে দুয়ারে সরকার কর্মসূচির সমস্ত প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। পঞ্চায়েত ভোটের (Panchayat Election) আগে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যের সমস্ত মানুষের জন্য সরকারি সমস্ত প্রকল্পের সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। আর এবার এর সাথে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পেই মিলবে চাকরি। এই ক্যাম্প থেকেই এবার চাকরির জন্য আবেদন করা যাবে।

Advertisement

মোবাইলে গেম খেলতে খেলতেই ব্যাংক একাউন্ট ফাঁকা, সতর্ক থাকুন।

তবে এর মধ্যেই দুয়ারে রেশন প্রকল্পকে অবৈধ ঘোষণা করেছে হাইকোর্ট। কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চের বিচারপতি চিত্তরঞ্জন দাশ এবং বিচারপতি অনিরুদ্ধ রায় রাজ্য সরকারের এই দুয়ারে রেশন প্রকল্পকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন। পর্যবেক্ষণে জানানো হয়েছে, এই প্রকল্পের কোনো গ্রহণযোগ্যতা নেই। দুয়ারে রেশন প্রকল্পের বিরোধিতা করে বেশ কিছু ডিলার প্রথমে সিঙ্গেল বেঞ্চে আবেদন করে। সেখানে তাদের আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ার পরে ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হয় তারা। সেখানেই এই নির্দেশ দেওয়া হয়।

Advertisement

তবে রাজ্য সরকার দুয়ারে রেশন (Duare Ration) প্রকল্প কোনোভাবেই বন্ধ করতে রাজি নয় বলেই জানা গিয়েছে। তাই ডিভিশন বেঞ্চের অর্ডারের এই কপি হাতে আসার পরেই সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য। সেখানে সিঙ্গেল বেঞ্চের অর্ডারের কপি এবং সুপ্রিম কোর্টের পর্যবেক্ষণ তুলে ধরা হবে। দুয়ারে রেশন প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যের প্রায় 4 কোটি মানুষ উপকৃত হয়েছেন।

Advertisement

পুজোর সময় এই লাভজনক ব্যবসা আপনাকে মালামাল করে দেবে, বিনা পয়সায় ব্যবসা করুন।

2021 সালের 16ই নভেম্বর কোভিড পরিস্থিতিতে লকডাউন চলাকালীন যখন মানুষ বাড়ি থেকে বের হতে পারছিলেন না, ঠিক সেই সময় রাজ্য সরকার রেশনের মাধ্যমে মানুষের দুয়ারে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। যার ফলে বহু মানুষ উপকৃত হয়েছেন। স্থানীয় এলাকায় কোনো একটি নির্দিষ্ট জায়গায় রেশন ডিলাররা সামগ্রী নিয়ে গিয়ে সেখান থেকে বন্টনের ব্যবস্থা করে। তার মাধ্যমে খুব বেশি দূরে রেশন দোকানে না গিয়ে গ্রাহকেরা বাড়ির কাছাকাছি রেশন তুলতে পারেন।

রেশন ডিলারদের একাংশ এই দুয়ারে রেশন প্রকল্পের বিরোধিতা করে আদালতে যায়। যদিও সিঙ্গেল বেঞ্চ তাদের আবেদন খারিজ করে দেয়। পরবর্তীতে ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হলে সেখানে এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে সরকারের পক্ষ থেকে যে দুয়ারে রেশন প্রকল্পকে বন্ধ করতে দেওয়া হবে না, সেটা ইতিমধ্যে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে। তার কারণ ডিভিশন বেঞ্চের অর্ডারের কপি পাওয়ার পরে সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য।
Written by Rajib Ghosh.

Advertisement
শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment