Advertisement
Dearness Allowances (মহার্ঘ ভাতা ঘোষণা)
Advertisement

DA নিয়ে, জল্পনাই সত্যি হলো। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারী কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা তথা ডিএ মামলায় হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে গেল রাজ্য সরকার। এবার রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতার ভবিষ্যৎ সুপ্রিম কোর্টে নির্ধারিত হবে। বিচারপতি হরিশ ট‍্যান্ডন এবং বিচারপতি রবীন্দ্রনাথ সামন্তের ডিভিশন বেঞ্চে হলফনামা দিয়ে জানানো হয়। জানা যাচ্ছে, সুপ্রীম কোর্টে আগামী সোমবার মামলার শুনানি হতে পারে।

Advertisement

হাইকোর্টকে চ‍্যালেঞ্জ সরকারের, মহার্ঘ ভাতা মামলার ফয়সালা হবে সুপ্রিম কোর্টে।

দীর্ঘদিন ধরেই জল্পনা চলছিল। গত ২০ মে কলকাতা হাইকোর্ট তিন মাসের মধ্যে রাজ্য সরকারি কর্মীদের বকেয়া মহার্ঘ ভাতা তথা DA মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেয়। কিন্তু সেই নির্দেশ কার্যকর না করে পুনর্বিবেচনার জন্য হাইকোর্টে রিভিউ পিটিশন দাখিল করে রাজ্য সরকার। পাশাপাশি রাজ্য সরকারি কর্মচারী সংগঠনগুলি এই নির্দেশ না মানার জন্য রাজ্যের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা দায়ের করে।

ঠিক তখনই হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্য সরকারের মুখ্যসচিব এবং অর্থসচিবকে আদালত অবমাননার মামলায় হলফনামা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেয়। রাজ্য সরকার আদালতে হলফনামায় জানিয়ে দিয়েছে, সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে তারা। যদিও গতকাল পর্যন্ত কোনও পদক্ষেপ না নেওয়ায় এবং হাইকোর্টেও কোনও আবেদন না করায় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম প্রকাশ ও করেছিলো যে রাজ্য সুপ্রীম কোর্টে যাচ্ছে না। কিন্তু সেই জল্পনার কার্যত ১৮০ ডিগ্রী ঘুরে গেল।

Advertisement

14.2 কেজির রান্নার LPG গ্যাস কিনলে এবারে পান 200 টাকার বেশি ছাড়! কিভাবে পাবেন, জেনে নিন।

আদালতে জমা দেওয়া হলফনামায় মুখ্য সচিব জানিয়েছেন, গত ২০ মে কলকাতা হাইকোর্ট যে নির্দেশ দিয়েছিল সেটা স্পষ্ট নয়। মহার্ঘ ভাতা DA দিতে হলে নতুন নীতি প্রবর্তন করতে হবে। কিসের ভিত্তিতে DA রেট নির্ধারণ করা হবে সেই বিষয়টি জানানো হয়নি। এছাড়াও হলফনামায় রাজ্যের আর্থিক পরিস্থিতির কথা তুলে ধরেছে সরকার। রাজ্য সরকারি কর্মীরা মহার্ঘ ভাতা নিয়ে যে আন্দোলন চালাচ্ছিল সেই লড়াইয়ে সমস্ত কর্মচারী সংগঠনগুলি সব ক্ষেত্রে একজোট হতে পারেনি।

বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সরকারি কর্মচারী সংগঠনগুলির মধ্যে মতভেদ রয়েছে। কোর্টের ভিতরে আইনি লড়াই আলাদাভাবেই লড়বে বলে জানিয়েছে একটি কর্মচারীদের সংগঠন। তবে তারা কোর্টের বাইরের লড়াইয়ে একসঙ্গে আন্দোলন করতে প্রস্তুত। আবার আরেক কর্মচারীদের সংগঠন সমস্ত লড়াই একযোগে করতে চেয়েছিল। কিন্তু সেটা সমস্ত সংগঠন মেনে নেয় নি।

EK24 News

সকাল 10 টার আগে স্কুলে না এলে, হাফ বেতন কাটবে শিক্ষকদের, জরুরী নির্দেশে তোলপাড়।

রাজ্য সরকারি কর্মচারী সংগঠনগুলির পক্ষ থেকে অনুমান করা হচ্ছিল বলে জানা গিয়েছে, রাজ্য সরকার সুপ্রিম কোর্টে যেতে পারে। তাই ইউনিটি ফোরামের তরফে সুপ্রিমকোর্টে ক‍্যাভিয়েট দাখিল করা হয়েছে। এদিকে রাজ্য সুপ্রীম কোর্টে যাওয়ায় রাজ্যের কর্মীরা মনে করছেন, এবার তাদের মহার্ঘ ভাতা নিয়ে শেষ জয় পাওয়ার পালা। DA সরকার কে দিতেই হবে, আজ হোক আর কাল।
Written by Rajib Ghosh.

Advertisement
Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement