Internship Program – পশ্চিমবঙ্গের কলেজ পড়ুয়ারা পড়তে পড়তেই সরকারী চাকরি ও বেতন পাবে। কিভাবে আবেদন করতে পারবেন।

পশ্চিমবঙ্গের যুব সম্প্রদায়ের জন্য Student Internship Program শুরু করলো রাজ্য সরকার। একদিকে সামনেই লোকসভা ভোট। আর তার আগেই রাজ্যের সমস্ত বেকারদের কর্মসংস্থানের (Employement) সুযোগ দিচ্ছে রাজ্য সরকার। নতুন বছরে একগুচ্ছ প্রকল্পের (Government Scheme) কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (CM Mamata Banerjee). যার মাধ্যমে সুবিধা পাবেন রাজ্যের প্রতিটি যুবক যুবতী।

Advertisement

Student Internship Program In West Bengal.

এতদিন পর্যন্ত যে সরকারি চাকরির (Govt Job) জন্য সবাই মুখিয়ে ছিল সেই স্বপ্ন পূরণ হবে এবার এই Student Internship Program এর মাধ্যমে। তবে শুধু চাকরিতেই নয়, পাশাপাশি পড়াশোনার ক্ষেত্রেও তাদের সমানভাবে সাহায্য করবে পশ্চিমবঙ্গ সরকার (Government Of West Bengal). এর কথাও ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সামনেই লোকসভা ভোট। এই পরিস্থিতিতে জায়গায় জায়গায় সভা করে বেড়াচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Advertisement

কয়েক দিন আগে ধনধান্যে স্টেডিয়ামে (Dhanadhanya Auditorium) এরকমই একটি জনসভা ছিল তার। এই জনসভার মঞ্চ থেকে রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে তার নতুন বছরের এই Student Internship Program কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এগুলির মাধ্যমে বিরাট ভাবে উপকৃত হতে চলেছে রাজ্যের যুব সম্প্রদায়। কি কি প্রকল্প? কি সুবিধা বা মিলবে এগুলির মাধ্যমে? একে একে জেনে নেব।

Student Internship Program

এদিন মুখ্যমন্ত্রী যে কটি কর্মসূচি জানান, তার মধ্যে একটি হল এই Student Internship Program. এটি চালু করা প্রধানত কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের স্তরের পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীদের জন্য। উচ্চ মাধ্যমিক বা স্নাতক পাশ করে যারা বর্তমানে কোন কোর্সে ভর্তি হয়েছেন তারা পড়াশোনার পাশাপাশি রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে ইন্টার্নশিপের সুযোগ পাবে। ইন্টার্নশিপ হবে এক বছরের জন্য।

Student Internship Program চলাকালীন প্রতি মাসে 10 হাজার টাকা স্টিপেন্ড পাবে পড়ুয়ারা। এই Student Internship Program এর মেয়াদ শেষ হলে যোগ্যতার উপর ভিত্তি করে স্থায়ী চাকরি দেওয়া হবে তাদের সরকারি বিভাগে। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, “এই বছর আরও একটা নতুন স্কিম চালু করলাম, Student Internship Program. আজ থেকেই শুরু হল। আমি চাই ছোটবেলা থেকেই ছেলে মেয়েরা সরকারি কাজের সঙ্গে প্রশিক্ষণ নিক।

Advertisement

এই প্রশিক্ষণে উত্তীর্ণ হতে পারলে প্রত্যেকে সার্টিফিকেট পাবে। এক বছরের জন্য আড়াই হাজার পড়ুয়াকে ইন্টার্নশিপ দেওয়া হবে এই Student Internship Program এর মাধ্যমে। কলেজে ও বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে হবে তাদের। পড়ুয়াদের যোগ্যতার বিচারে তাদের চাকরি রিনিউ হবে। এই ভাবে গ্রাসরুট লেভেল থেকে লোক তুলে আনার চেষ্টা করছি আমরা। এর ফলে ছাত্র জীবন থেকেই প্রশাসনিক ধারণা তৈরি হয়ে যাবে।

যোগ্যশ্রী প্রকল্প

যোগ্যশ্রী প্রকল্প বা (Yogyashree Scheme Student Internship Program) হল যুবক যুবতীদের জন্য একটি স্কিম। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, মাধ্যমিক পাশের পর এখানে আবেদন করা যাবে। তবে আবেদনকারীদের অবশ্যই কোন উচ্চশিক্ষা বা ট্রেনিং যেমন উচ্চ মাধ্যমিক স্তর বা নার্সিং, ইঞ্জিনিয়ারিং জাতীয় কর্মমুখী প্রশিক্ষণে ভর্তি হয়ে থাকতে হবে এবং আবেদনের সময় ভর্তির রিসিপ্ট কপিও দেখাতে হবে। তবে এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন কেবল আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর ছাত্র ছাত্রীরা।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এই প্রকল্পে (Yogyashree Scheme) বিনামূল্যে উচ্চতর শিক্ষার তারা প্রশিক্ষণ পাবে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে। রাজ্যের অনেক ছেলে মেয়েই পয়সার অভাবে উচ্চশিক্ষার কোচিং নিতে পারেনা। তাদের সুবিধা হবে এর মাধ্যমে। বিভিন্ন বিশেষজ্ঞ মারফত প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে তাদের। প্রশিক্ষণ শেষে প্রার্থীরা সুযোগ পাবেন নামকরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গুলিতে পড়াশোনা করার।

সরকারি চাকরির কোচিং

তবে শুধু পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীদের জন্য নয়, রাজ্যের বেকার শিক্ষিত ছেলে মেয়েদের জন্যও চিন্তা করেছে রাজ্য সরকার। এদিন জনসভায় মুখ্যমন্ত্রী বলেন, গ্রুপ এ থেকে শুরু করে গ্রুপ ডি পর্যন্ত বিভিন্ন সরকারি চাকরির প্রস্তুতির জন্যে ইতিমধ্যেই অনেক গুলি সেন্টার চালু করেছে রাজ্য সরকার। প্রতি জেলায় আরো ২টো করে মোট ৪৬টি সেন্টার তৈরি করা হবে। ৫০টি সেন্টার চালু করা হচ্ছে প্রবেশিকার প্রশিক্ষণের জন্য। বিনামূল্যে সরকারি পরীক্ষা গুলির কোচিং দেবে রাজ্য সরকার এই সমস্ত সেন্টার গুলিতে (Student Internship Program).

Yuvashree Prakalpa 2024 (যুবশ্রী প্রকল্প ২০২৪)

Student Internship Program সম্পর্কে আরও কিছু তথ্য

২ লাখ ৫৪ হাজার ওবিসি পড়য়া ইতিমধ্যেই মেধাশ্রী প্রকল্প (Medhashree Scheme) পেয়েছেন। এবছর আরও ২ লাখ ৭৭ হাজার ওবিসি পড়ুয়া এই স্কলারশিপ পাবে। এর পাশাপাশি তৃণমূল সরকার ইংরেজি মাধ্যম স্কুলও চালু করেছে। এরকম স্কুল আরো খোলা হবে। মাতৃ ভাষাতেও পড়াশোনার ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকার। সাঁওতালি, উর্দুতেও এখন পড়ানো হচ্ছে। ৮৬ লাখেরও বেশি মেয়ে কন্যাশ্রী (Kanyashree Scheme) পাচ্ছে। সবুজ সাথী (Sabooj Sathi) সাইকেল সবাই পাচ্ছে।

যোগ্যশ্রী প্রকল্পে আবেদন শুরু হল। 10 হাজার টাকা পেতে যোগ্যশ্রী প্রকল্পে কিভাবে আবেদন করবেন?

আগামী দিনে আরও বেশি দান করা হবে। এছাড়াও এই বছর ১ – ৭ জানুয়ারি পর্যন্ত Students Week পালন করা হচ্ছে রাজ্যের সমস্ত স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে। এরপর থেকে প্রতিবছর তা হবে। আর এই ঘোষণার ফলে সকল পরীক্ষার্থীদের আগামীদিনে খুবই সুবিধা হতে চলেছে বলে মনে করছেন অনেকে। আর মূলত পড়ুয়াদের এই সকল কিছুর মাধ্যমে আরও বেশি সুবিধা হবে।
Written by Nabadip Saha.

নতুন বছরে সেরা উপহার! কৃষকবন্ধুদের 6000 বদলে 9000 টাকা

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment