Citizenship Amendment Act – সারা ভারতে চালু হলো CAA পোর্টাল। ভারতে কারা নাগরিকত্ব পাবে? নাগরিকত্ব পেতে আবেদন করুন।

Citizenship Amendment Act বা নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে খুব শীঘ্রই কোন বড়সড় সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে মোদী সরকার (Modi Government). আর কিছুদিনের মধ্যেই ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচন (Lok Sabha Election 2024). তার আগেই এই নিয়ে কোন ধরণের বড় ঘোষণা হতে চলেছে বলে মনে করছেন অনেকে। দেশজুড়ে বাস্তবায়ন করা হবে CAA বা নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (Citizenship Amendment Act). কয়েকদিন আগে কেন্দ্রের তরফে বলা হয়।

Advertisement

Citizenship Amendment Act Apply Portal Starting Soon.

শীঘ্রই এর পোর্টাল চালু হবে এবং তারপর থেকেই প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন নাগরিকত্ব লাভের জন্য। সূত্রের খবর, সেই পোর্টাল ইতিমধ্যেই তৈরি করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার (Central Government) কিন্তু যতদিন না সিএএ পাস (CAA Bill Pass) হচ্ছে, চালু করা হবে না সেই পোর্টাল। এখন Citizenship Amendment Act লাগু হতে চলেছে কবে? কিভাবেই বা পোর্টালে আবেদন করবেন? দেখে নিন।

Advertisement

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল বা Citizenship Amendment Act

২০১৯ সালে ভারতীয় সংসদ (Indian Parliament) Citizenship Amendment Act পাস করেছিল। এই বিলের প্রধান লক্ষ্য ছিল পড়শী দেশগুলি থেকে আসা উপযুক্ত ব্যক্তিদের ভারতের নাগরিকত্ব প্রদান করা। একই সঙ্গে সেই সকল মানুষদের দেশ থেকে বিতাড়িত করা যারা অবৈধভাবে এখানে এসে রয়েছেন। এই বিলের মাধ্যমে ২০১৪ সালের ৩১ শে ডিসেম্বর পর্যন্ত পাকিস্তান (Pakistan), আফগানিস্তান (Afghanistan) এবং বাংলাদেশ (Bangladesh) থেকে ধর্মীয় উৎপীড়নের জন্য ভারতে আসা রিফিউজিদের নাগরিকত্ব দেওয়া হওয়ার কথা ছিল।

যাই হোক, ২০১৯ এ লোকসভায় প্রথম এই বিল পূর্ণ সমর্থন পেয়ে পাশ করেছিল। যদিও রাজ্যসভার (Rajya Sabha) কিছু সদস্য তার বিরোধিতা করে। কিন্তু তা সত্ত্বেও শেষ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের অনুমতি লাভ করে এই Citizenship Amendment Act পাস হয় এবং আইনে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু এবারে এই CAA আইনের পূর্ণতা পাওয়ার সময় এসেছে।

কখন চালু হবে এই আইন?

Citizenship Amendment Act সম্পর্কে শুরু থেকেই কেন্দ্রের বিরোধিতা করে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ (West Bengal). এই কারণে এখনও পর্যন্ত মোট ৬ বার এক্সটেনশন জারি করা হয়েছে এই বিলের মেয়াদে। এবার সপ্তম বারের জন্য আবারও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী (Home Minister) সময় বৃদ্ধি ঘটালো Citizenship Amendment Act. কেন্দ্রীয় সূত্রে খবর, পোর্টাল ইতিমধ্যেই তৈরি হয়ে গিয়েছে। কিন্তু যতদিন না উপর মহল থেকে সবুজ সংকেত আসছে ততদিন লাগু করা যাবে না আইন।

Advertisement

আর চালু হবে না পোর্টালও। এদিকে নাগরিকত্ব পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করে রয়েছেন হাজার হাজার পরিযায়ী। একবার ধারা পাস হলেই পোর্টাল খুলে দেওয়া হবে তাদের জন্য। কেন্দ্রীয় সরকারের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক আভাস দিয়েছেন ২০২৪ এর এপ্রিল মে মাস নাগাদ একটি নোটিফিকেশন জারি হতে পারে Citizenship Amendment Act সম্পর্কে। তারপর কার্যকর হবে এই আইন। অনেকের আন্দাজ, ভোটের আগেই ফেব্রুয়ারি মাসে কেন্দ্রের বাজেট পেশ হতে চলেছে। তাতেই হয়তো সিএএ আইনের ধারা পাস করা হতে পারে।

Citizenship Amendment Act (ভারতের নাগরিকত্ব আইন)

কিভাবে চালু হবে CAA?

এই পুরো প্রক্রিয়াটি করা হবে অনলাইনে। অনেকের মতে, পশ্চিমবঙ্গের মতো বিরোধী শাসিত রাজ্য গুলি এই আইনের বিপক্ষে রয়েছে সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই গোটা প্রক্রিয়াটিতে রাজ্য সরকারের ভূমিকা ন্যূনতম করার পরিকল্পনা নিয়েছে কেন্দ্র। আর তাই প্রক্রিয়াটিকে অনলাইন করা হচ্ছে। যাই হোক, যারা ভারতের নাগরিকত্ব (Citizenship Amendment Act) গ্রহণ করতে ইচ্ছুক তাদেরকে অনলাইনে আবেদন জানাতে হবে।

রান্নার গ্যাসে ভর্তুকি 500 টাকা বাড়ানো হবে। মোদী সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ।

আবেদনকারী কোন সালে ভারতে (India) প্রবেশ করেছিলেন, সেই সব তথ্য কেবল পোর্টালে দিতে হবে। কিভাবে আবেদন করতে হবে সেই সম্পর্কে সম্পূর্ণ গাইডলাইন পোর্টাল চালু হওয়ার পর জানাবে কেন্দ্র। ইতিমধ্যেই ভারতের ৩০ টিরও বেশি জেলার ম্যাজিস্ট্রেটদের এই আইন বলবৎ করার ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। প্রধানত ভারতের নয়টি রাজ্য গুজরাত, রাজস্থান, ছত্তিশগড়, হরিয়ানা, পঞ্জাব, মধ্যপ্রদেশ, উত্তর প্রদেশ, দিল্লি এবং মহারাষ্ট্র এক্ষেত্রে নাগরিকত্ব দেবে সেই সকল আগমনকারীদের।
Written by Nabadip Saha.

রেশন কার্ড ছাড়াই তৈরি হবে আয়ুষ্মান কার্ড! নির্দেশ দিলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

1 thought on “Citizenship Amendment Act – সারা ভারতে চালু হলো CAA পোর্টাল। ভারতে কারা নাগরিকত্ব পাবে? নাগরিকত্ব পেতে আবেদন করুন।”

Leave a Comment