Advertisement
PM Kisan কেন্দ্রীয় প্রকল্প
Advertisement

নাগরিকদের সুরক্ষার্থে প্রতিটি রাজ্য ও কেন্দ্র বিভিন্ন ধরনের রাজ্য ও কেন্দ্রীয় প্রকল্প চালু করে থাকে। আর সেই সুবিধা নিয়ে বিভিন্ন কর্মমুখী কাজ করে থাকেন। আর এবার কেন্দ্র সরকারের দেওয়া টাকা ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিল কেন্দ্রীয় সরকার। কোন কেন্দ্রীয় প্রকল্প এর টাকা, কি কারনে এবং কাদের ফেরত দিতে হবে, দেখে নিন।

Advertisement

কোন কেন্দ্রীয় প্রকল্প এর টাকা ফেরত দিতে হবে?

PM Kisan Samman Nidhi Yojana বা প্রধানমন্ত্রী কিষাণ যোজনায় লিপিবদ্ধ অযোগ্য কৃষকদের টাকা ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য প্রধানমন্ত্রী কৃষি সম্মান নিধি বা PM Kisan হলো একটি নতুন কেন্দ্রীয় প্রকল্প যার মাধ্যমে দেশের সকল কৃষকদের পরিবারকে কৃষিকাজ ও কৃষি নির্ভর অন্যান্য কার্যাবলী এবং গৃহস্থালির প্রয়োজনে জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করে থাকে। যার ফলে কৃষকেরা বাড়তি সুবিধা পেয়ে থাকেন। কিন্তু স্ক্রুটিনি করে দেখা গেছে, এই কেন্দ্রীয় প্রকল্পে অনেকেই আবেদন করেছেন, যারা কৃষকই নন।

কাদের ফেরত দিতে হবেঃ
যারা প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি যোজনার (PM Kisan Yojana) সুবিধা পেয়েছেন আবার তারা আয়কর দিয়েছেন, যার ফলে অযোগ্য বিবেচিত হয়েছেন, সেই সমস্ত কৃষকদের যোজনার টাকা কেন্দ্রের নির্দিষ্ট একাউন্টে ফেরত দিতে হবে।

Advertisement

ডিবিডি এগ্রিকালচার বিহারের ওয়েবসাইট থেকে জানা যাচ্ছে, যে সমস্ত কৃষকরা প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি যোজনার কেন্দ্রীয় প্রকল্প এর অধীনে এ পর্যন্ত একাউন্টে টাকা পেয়েছেন আয়কর প্রদানের জন্য বা অন্যান্য বিভিন্ন কারণে অযোগ্য ঘোষিত হয়েছেন, সেই সমস্ত কৃষককে এই পর্যন্ত পাওয়া যোজনার টাকা ফেরত দিতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী কিষাণ সম্মান নিধি যোজনায় যোগ্য কৃষকদের বছরে ৬০০০ টাকার তিনটি কিস্তিতে ব্যাংক একাউন্টে টাকা পাঠানো হয়। কিন্তু যারা এই যোজনার টাকা পাওয়ার জন্য যোগ্য নন অথচ নাম লিখিয়েছেন, তাদের টাকা ফেরত দিতে হবে।

EK24 News

টাকা জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে যে কোনো রকম প্রতারকদের এড়িয়ে চলুন এবং অন্য কোনো ব্যাংক একাউন্ট থেকে টাকা তুলবেন না। পাশাপাশি কৃষি সমন্বয়কারী বা জেলা কৃষি কর্মকর্তার কাছে কপিটি জমা দিতে হবে।

Advertisement

কেন্দ্রীয় প্রকল্প এর টাকা কোথায় ফেরত দেবেন?

এই টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে দুটি ব্যাংক একাউন্টের নম্বর দেওয়া হয়েছে। স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার ৪০৯০৩১৩৮৩২৩ এবং অন্য একাউন্টটি হলো ৪০৯০৩১৪০৪৬৭ টাকা ফেরত দেওয়ার পরে ইউটিআর জমা দিতে হবে।

জানুয়ারি থেকে ব্যাংকে লিংক নেই, আজ হবেনা অজুহাতে গ্রাহককে হয়রানি করলেই কড়া ব্যবস্থা।

এবার দেখে নেওয়া যাক পিএম কিষাণ যোজনায় অযোগ্য কৃষক কারা:
রাজ্যসভা, লোকসভা, বিধানসভা, বিধান পরিষদ এর প্রাক্তন বর্তমান, সদস্য করপোরেশনের মেয়র প্রাক্তন, বর্তমান, জেলা পঞ্চায়েতের চেয়ারম্যানরা, প্রাক্তন অথবা বর্তমান।
কেন্দ্রীয় অথবা রাজ্য সরকারের যেকোনো ধরনের অফিস, ফিল্ড ইউনিটের কর্মরত, অবসরপ্রাপ্ত আধিকারিক এবং কর্মচারী।

সরকারের অধীনে যেকোনো সংযুক্ত অফিস কিম্বা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান এর কর্মচারী, মাল্টি টাস্কিং স্টাফ বা গ্রুপ ডি কর্মচারী, যে সমস্ত পেনশনভোগীদের মাসিক পেনশন ১০০০ টাকার বেশি (গ্রুপ ডি কর্মচারী ছাড়া)।
প্রাতিষ্ঠানিক জমির মালিক। ডাক্তার, আইনজীবী, চাটার্ড একাউন্টেন্ট, ইঞ্জিনিয়ার এর মতো পেশাদাররা।
যে ব্যক্তিগত বছরে আয়কর জমা দিয়েছেন।

Advertisement

রান্নার গ্যাস মাত্র 500 টাকা করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী

কিভাবে অযোগ্য কৃষকদের তালিকা দেখবেন:
https://dbtagriculture.bihar.gov.in ওয়েবসাইটে গিয়ে Application Status এ PM Kisan Ineligible Farmar এ Click করতে হবে। এরপর ফোন নম্বর লিখে Search করলেই সমস্ত তথ্য পাওয়া যাবে।
যদি কোনো কারনে দেখা যায়, এমন কোনো যোগ্য কৃষক অযোগ্য হিসেবে চিহ্নিত হয়েছেন, যিনি কর দেন না, তাহলে তাকে ২০১৭-১৮ থেকে ২০২১- ২২ পর্যন্ত Income Tax Return এর File প্রমাণ দাখিল করতে হবে। এবং টাকা জমা দেওয়ার রসিদের কপি জেলা কৃষি অফিসারের কাছে জমা করিয়ে লিস্ট থেকে নাম কাটাতে হবে।
Written by Rajib Ghosh.

Advertisement
Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement