Bank Vs Post Office – SBI ব্যাংক না পোষ্ট অফিস, কোথায় টাকা রাখলে বেশি লাভ?

বর্তমানে ব্যাংক না পোস্ট অফিস বা SBI Bank Vs Post Office কোথায় বেশি সুদ দেওয়া হয়? কোথায় টাকা রাখলে কম সুদের ভেতরেও একটু বেশি লাভ হয়? এই প্রশ্ন প্রায় সবার মনেই থাকে। তাই বিনিয়োগের আগে সকলেই জানতে উৎসাহী হন।
কোথায় টাকা রাখবেন, সেটা সম্পূর্ণ আপনার ব্যাক্তিগত ব্যাপার। তবে বিনিয়োগের আগে এই বিষয়গুলো জেনে রাখলে বেশি রিটার্ন পেতে পারেন। তাই SBI না পোস্ট অফিসের RD খাত কোনটায় লাভবান হবেন আপনি, হিসাব দেখে জেনে নিন।

Advertisement

Bank Vs Post Office based on Interest rate

বিনিয়োগের আগে যেগুলো জানা প্রয়োজনঃ
আপনার কষ্টের জমানো টাকা কোথাও দীর্ঘকালীন বিনিয়োগের জন্য সাধারনত তিনটি বিষয়ের দিকে নজর রেখে করা উচিত।
১) নিরাপত্তা ও সুরক্ষা
২) সুদের হার
৩) সার্ভিস
নিরাপত্তা ও সুরক্ষার দিক দিয়ে SBI Bank Vs Post Office দুটোই সরকারি সংস্থা বলে টাকা মার যাওয়ার ভয় নেই। আর সার্ভিস এর দিক দিয়ে SBI Bank আধুনিক বা একাধিক ইন্টারনেট পরিষেবা দিয়ে থাকে। সেই দিক দিয়ে পোস্ট অফিস ও আধুনিক ব্যাংকিং পরিষেবা শুরু করলেও SBI এগিয়ে আছে। আর সুদের কথা বলতে গেলে, নিচের হিসাব গুলো দেখলেই পরিষ্কার বুঝতে পারবেন।

Advertisement
পোষ্ট অফিসের সঞ্চয় প্রকল্প (Post Office Scheme)

টাকা ইনকামের সাথে সাথে ভবিষ্যতের জন্য টাকা সঞ্চয় করাটাও জরুরি। টাকা জমানোর জন্য আমরা ব্যাংক বা পোস্ট অফিসের উপর নির্ভর করি। আমরা জানি SBI হলো সবচেয়ে বড়ো ব্যাংক।
এই সমস্ত ব্যাংক বা পোষ্ট অফিসে টাকা জমালে একটি নির্দিষ্ট সুদে সেই অর্থের পরিমাণ দ্বিগুণ হয়।
এক্ষেত্রে আমরা ভেবে পাইনা কোনখানে টাকা জমানো সুবিধাজনক হবে। যেখান থেকে সেই জমানো টাকা অনুযায়ী বেশি সুদ (Interest rate) দেবে।

Bank Fixed Deposit interest rate

সমস্ত ব্যাংক গুলি ওয়ান টাইম ফিক্সড ডিপোজিট করলে FD এর সুদের (Fixed Deposit Interest rate) পরিমাণ অনেক শতাংশ বৃদ্ধি করেছে। আবার পোস্ট অফিস গুলিতেও ব্যাংকের মতনই সুদ দিচ্ছে।
SBI এর সুদের হার:
এস বি আই এ ৭দিন থেকে ১০ বছর অবধি ডিপোজিট ট্রাম আছে। বর্তমানে এস বি আই সাধারণ গ্রাহক দের জন্য ৬ -৬.৫ হারে এবং প্রবীণ গ্রাহকদের জন্য ৭-৭.৫ হারে সুদ দিচ্ছে।

আরও পড়ুন, কৃষক বন্ধু প্রকল্পে পুজোর আগেই 10000 টাকা দিচ্ছে সরকার। টাকা পেতে কি করবেন?

Post office Recurring Deposit

পোস্ট অফিস RD:
এখানে আপনি ১, ২, ৩ ও ৫ বছরের জন্য ডিপোজিট করতে পারবেন। এখানে ৬.৮ শতাংশ হারে থেকে ৭.৫ অবধি হারে সুদ দেওয়া হচ্ছে। তবে প্রবীণ নাগরিক দের জন্য কোনো অতিরিক্ত সুদ নেই।

সুবিধাঃ
পোস্ট অফিসের ক্ষেত্রে আপনি ছয় মাসের আগে কোনো ডিপোজিট ভাঙতে পারবেন না। তবে ছয় মাস পর বা একবছর আগে যদি ভাঙেন পোষ্ট অফিসের নির্দিষ্ট সময় অনুযায়ী সুদ পাবেন।

Advertisement

অন্য দিকে SBI এর ক্ষেত্রে আপনি নির্দিষ্ট সময়ের আগে কোনো ডিপোজিট ভাঙতে পারবেন না।ভাঙলেও সেক্ষেত্রে জরিমানা দিতে হতে পারে।
Bank Vs Post Office এর কোনটি আপনি গ্রহণ করবেন বা কোন জায়গায় আপনি টাকা ইনভেস্ট করবেন সেটার জন্য আর্থিক লাভের দিকটায় লক্ষ্য রাখা জরুরি।

আরও পড়ুন, চালু হল এলআইসি এর জনপ্রিয় পলিসি, পাবেন বেশি রিটার্ন আর জীবনের সুরক্ষা।

পোস্ট অফিস বা SBI তথা Bank Vs Post Office দুটোই সরকারের সাথে যুক্ত। তাই দুটিতেই অর্থ সঞ্চয়ে স্থিতিশীল রিটার্ন পরিষেবা দেয়। Bank Vs Post Office দুটি ক্ষেত্রেই সুদের হার ভালো। যদিও এবাধিক সঞ্চয় প্রকল্পে পোস্ট অফিসে .৫০% বা ১০০ টাকায় ৫০ পয়সা এর মতো সুদ বেশি পাওয়া যায়। এবং ব্যাংকিং ফ্রড এর সম্ভাবনা কম। তাই উপরোক্ত বিষয় গুলোর মধ্যে আপনার যেগুলো বেশি প্রয়োজন, সেই দিকেই বিনিয়োগ করুন। অথবা বিনিয়োগের পরিমান ভাগ করে দুটো যায়গাতেও বিনিয়োগ করতে পারেন।
এই বিষয়ে কোনও প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। আরও তথ্যের জন্য EK24 News ফলো করুন।

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment