Advertisement
Bank Privatisation Bill In India
Advertisement

Private Bank-এর থেকে পিছিয়ে পড়েছে রাষ্ট্রায়ত্ত ব‍্যাঙ্ক, সবগুলোই বেসরকারিকরণ (Bank Privatisation Bill) করা উচিত, দাবি রিপোর্টে।

ইতিমধ্যেই ব্যাংক বেসরকারিকরণের (Bank Privatisation Bill) লক্ষ্যে প্রক্রিয়া শুরু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। জানা গিয়েছে, সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাঙ্ক, প্রথমে এই দুটি ব্যাংককে বেসরকারিকরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি নীতি আয়োগের পক্ষ থেকে এই দুটি ব্যাংককে বেসরকারিকরণের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

Advertisement

ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ অ্যাপ্লাইড ইকোনমিক রিসার্চ NCAER এর পক্ষ থেকে রিপোর্টে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে, SBI ছাড়া সমস্ত পাবলিক সেক্টর ব্যাংককে বেসরকারিকরণ (Bank Privatisation Bill) করা উচিত।

রিপোর্টটি তৈরি করেছেন NCAER-এর পুনম গুপ্তা এবং অর্থনীতিবিদ অরবিন্দ পানাগরিয়া। রিপোর্টে বলা হয়েছে, এসবিআই ছাড়া অন্যান্য সব পাবলিক সেক্টর ব্যাংকগুলি প্রাইভেট ব্যাংকের তুলনায় সম্পদ এবং ইকুইটির ওপর কম রিটার্ন অর্জন করেছে।

Advertisement

NCAER- এর রিপোর্ট নিয়ে বিজনেস স্টান্ডার্ড উদ্ধৃতি দিয়েছে, সরকারি ব্যাংকগুলোর তুলনায় প্রাইভেট ব্যাংকগুলি তুলনামূলক ভালো পারফরম‍্যান্স (Bank Privatisation Bill) করেছে। 2014-15 সাল থেকে ব্যাংকিং বৃদ্ধির জন্য একমাত্র SBI এবং Private Bank- গুলির জন্যই ব্যাংকিং সেক্টরে বৃদ্ধি হয়েছে।

পাবলিক সেক্টর ব্যাংকগুলির বিকল্প হিসেবে প্রাইভেট ব্যাংকগুলি আবির্ভূত হয়েছে। আমানত এবং ঋণ উভয় ক্ষেত্রেই প্রাইভেট ব্যাংকগুলির তুলনায় সরকারি ব্যাংকগুলি পিছিয়ে পড়েছে। গত 10 বছরে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলির কর্মক্ষমতা বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের নীতি (Bank Privatisation Bill) এবং উদ্যোগ নেওয়া সত্বেও পারফরম্যান্স যথেষ্ট খারাপ থেকেছে।

EK24 News

প্রাইভেট ব্যাংকগুলির (Bank Privatisation Bill) তুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলির নন পারফরমিং অ্যাসেট এর পরিমাণ বৃদ্ধি পেয়েছে। 2010-11 আর্থিক বছর থেকে 2020- 21 সাল পর্যন্ত Nationalised Bank-গুলিতে 65.67 বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে সরকার‌। মূলত অপরিশোধিত ঋণের সংকটের মোকাবিলা করার জন্যই এই সাহায্য করেছে সরকার। সেখানে SBI ছাড়া রাষ্ট্রায়ত্ত বাজার মূলধন রয়েছে 43.04 ডলার।

Advertisement

আরও পড়ুন,  LIC র এই স্কিমে বিনিয়োগ করলে প্রতিমাসে নিশ্চিত মিলবে ১২০০০ টাকা Pension.

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, কম রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন পাবলিক সেক্টর এর ব্যাংকগুলিকে বেসরকারিকরণ করা সহজ হবে। সেই কারণেই সম্প্রতি দুটি ব্যাংককে বেসরকারিকরনের (Bank Privatisation Bill) লক্ষ্যে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে বলেই জানা গিয়েছে।

একে একে যদি সবই বেসরকারী হয়ে যায়, সেক্ষেত্রে দেশের সম্পদের পরিমাণ কমে যাবে না তো? এই বিষয়ে আপনার কি মতামত নিচে কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন।
Written by Rajib Ghosh.

ঘরের কোনে পড়ে থাকা বাতিল এই পুরনো 25 পয়সার কয়েন লাখ টাকায় বিক্রয়

Advertisement
Advertisement
18 thoughts on “Bank Privatisation Bill – State bank ছাড়া সমস্ত ব্যাংক কে বেসরকারি করার প্রস্তাব, সব কি বিক্রি হয়ে যাবে?”
    1. সরকার এর ভুল সিদ্ধান্তের জন্যই ব্যাংকগুলো ডুবছে। অনুদপাদক সম্পদ বেড়েছে, এর কারণ ই হলো মানুষ লোন নিয়ে সেগুলো শোধ না করার প্রবৃত্তি। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এটা কারণ। সেই লোন শোধ করার জন্য সরকার থেকে কোনো ব্যাবস্থা নেওয়া হয় না। রাজ্য কেন্দ্রের এই বিষয়ে একই মনোভাব। আজ যারা এই বেসরকারিকরণ কে সমর্থন করছে, ঠিকাছে করুক। কিন্তু যেদিন তাদের বেসরকারি ব্যাংকে জমানো টাকা উধাও হয়ে যাবে যেমনটা 70 এর দশক এর আগে হতো, সেদিন তারা বুঝবে সরকারি আর বেসরকারি জিনিসের পার্থক্য। সেদিন হাহা করেও কিছু হবে না। কিছু ব্যাংক কর্মীর খারাপ ব্যাবহার এর জন্য সবাইকে একইরকম ভাবা উচিৎ নয়।
      ধন্যবাদ

    2. India is a country formed to make a socialistic pattern of society. Moreover India is welfare based economic country. As per welfare economic theory ,no one will be better off without making someone worseoff. From the very date of independence what ever may be done by our Central Government that is for the benefit of common people and for this purpose most of private banks were nationalised in the year 1969 by the then Prime Minister Indira Gandhi in order to more effective mobilization of resources and capital fomatin. It was definitely a good idea. But recent decision taken by our Central Government is to some extent wrong because of malefic intention of the shareholders. After privitation it will be seen entire money market will be controlled by private owner. This does not mean that privitation is always bad. If corruption exits in large scale in our society , neither nationalisation nor de-nationalisation is good. Corrtuption and transparency can not exist side by side.

  1. কোনো প্রতিষ্ঠানকে রুগ্ন করে দেবার সর্ব উৎকৃষ্ট পন্থা হলো সেই প্রতিষ্ঠানকে রাষ্ট্রীয়করণ করা। সাধারণ মানুষের জমা করা অর্থ থেকে যাদের বেতন হয়, তাঁরাই কিরূপ অভদ্র আচরণ করেন ভুক্তভোগীরা জানেন! কাজেই এই যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দেবার রাস্তা হচ্ছে বেসরকারিকরণ। এতেই হবে দেশের ও দশের মঙ্গল।

    1. ঠিকই বলেছেন।
      এল আই সি র বেসরকারি করণ ব্যাপারে কি যুক্তি আছে শুনি?

  2. Advertisement
  3. Every thing is pre planned for privatisation. The economic policies of this government is like that. Implement strong recovery policy supported by law would prevent bank’s assets to become NPA. If you privatise PSB then it’s effect to common people will be adversed.

  4. There will be no job security.People of 70’s ( before days of Bank Nationalization) know & remember sudden cheating of public money. Our PSBs have put huge money in development of country after nationalization — but private Banks will not have any such responsibility. Cost of every bank work for customers would rise as we find in private schools. Since long many public sector units have been privatized — can anyone place authentic data ( Govt) of those units regarding employee salary, job security, post retirement benifits, responsibility performance towards our country?

    1. If the corruption exist in banking industry,there should have been no development in our country.. Whether banks are nationalised. Or privatised that is immaterial, people must be honest and administration must be perfect. If corruption prevails in banking industry it will erode the aim of the administrative power.

  5. Advertisement
  6. I shall be very happy to all govt.sector (except defense) should be convert to privatisation under control of govt.in which public related because of govt. Staffs are very rude behaved and not to work easy way.

  7. I shall be very happy to all govt.sector (except defense) should be convert to privatisation under control of govt.in which public related because of govt. Staffs are very rude behaved and not to work easy way.
    State govt. Motor vehicles office top to bottom person doesn’t work without any bibes. Indirect ways.

  8. It is a very bad gesture and harmful for India. Most of the salaried persons still prefer govt banks over private banks even if the services are a little better in private banks. The main reason for banking for us is the safekeeping of hard earned money.
    Even if the private banks are performing better, then why the govt is not using them for distribution of different social services to the rural areas, the reason is no private bank is interested in social services to the people, they charges more for each of the services, their minimum balance criteria is more than most of the people’s monthly income. So, how are they being compared with the govt banks who are helping distant people as well. It will be devastating for people as every penny will be at the hand of some people who only care about their own profit. Someday in the morning we can find our life savings is lost and we have nothing to do as it is owned by some corrupt owner.

  9. Advertisement
  10. Economy will save but privatization step should be finalized with fully their steps under compulsory retirement scheme.Because Govt. Employees are not willing to do their job also worst behavior with customers

  11. Banks Nationalization ( on the 20 points economic programs by Government) is now proposed to go for Banks Privatization as envisaged in the Policy Guidelines and it looks like “Awarding Divorce” to Nationalized Banks due to Sick Health in comparison to Existing Private Banks. It’s true Banks are business Units and its life purely exists on the parameters of Loss Making or Profit Making Status by RBI. The Concept of 20 Points Economic Program for priority sector lending in Banking Sectors worked as a Curse because Government opened up Bank as a point of looting by Public & Businessmen jeopardizing the Business Principles of Traditional Banking. As a result, borrowers started defaulting payments of their Loans with the plea that money belongs to Government. So, there is no need to pay. That was the beginning of the end for Banking Industry. Supervion, Monitoring & Control Mechanism of Nationalized Banks play as basic operational activities that continued degrading with zero accountability. The required steps by RBI became muted accelerating the quality Managements. Political Financial Predators exploited Nationalized Banks mindlessly with corresponding lack of legal support from Government & RBI. Private Banks are also no less than Ruin Makers in Banking Industries. What is urgently needed to save Bank is to enforce System Orientation than Person Orientation diligently as a panacea of all Evils. Because Strict System Orientation regulates Person Orientation that matters for any Business Units.

  12. Opor e jotojon privatization er pakkhe comments diyechen..sobar govt Bank e account ache.private Bank e account khular khomota nai

  13. Advertisement
  14. NPA যাদের জন্য হচ্ছে তারা তো সব এই সরকারের ধারা ধরা লোকজন। সরকারকে বলুন এই NPA যারা করেছে,বা যারা ব্যাঙ্ক থেকে টাকা ধার নিয়ে পরিশোধ করেনি তাদের টাকা ফেরত দিতে। তাহলেই সরকার যে টাকা রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক গুলোকে দিয়েছে তা সরকার কে ফেরত দিয়ে ব্যাঙ্ক তার নিজের টা নিজে বুঝে নিতে পারবে। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক private করে দিলে এই সব পুনম শর্মা দের মত লোকজন বা যারা টাকা নিয়ে শোধ করে না তারা আরো বেশি বাড়াবাড়ি করবে। বাজারে সুদের কারবাড়িরা মাথা তুলবে। সাধারণ মানুষদের অবস্থা আবার খারাপ হবে। ব্যাঙ্ক আর গরীব দের থাকবে না। দেশের অর্থনীতি পুরোপুরিই পুজিপতিদের হাতে যাবে। শ্রীলঙ্কার আজ যা অবস্থা কাল আমাদের তাই হবে। মানুষ কে সরকার বা সরকারি প্রতিষ্ঠান যে পরিষেবা দেয় কোন private মালিক তা দিতে পারে না। তাই ব্যাঙ্ক বিক্রির চক্রান্ত ব্যর্থ করতে হবে। সাধারণ মানুষ এই কাজ করবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Advertisement