Bangla Awas Yojana – পশ্চিমবঙ্গের এই প্রকল্পে আবেদন করলেই কালী পুজোর পর পাবেন 1 লক্ষ টাকা।

রাজ্যের মানুষের জন্য বহু জনমুখী প্রকল্প Bangla Awas Yojana তৈরি করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। একের পর এক সেই সামাজিক প্রকল্প বহু জায়গায় প্রশংসিত হয়েছে। কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, খাদ্য সাথী থেকে শুরু করে লক্ষ্মীর ভান্ডার, স্বাস্থ্য সাথীর মতো প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্যের বহু মানুষ উপকৃত হয়েছেন। এ রকমই আরেকটি সামাজিক প্রকল্প রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের। যার মাধ্যমে ঘরে বসেই আপনি এক লক্ষ টাকার উপরে পেয়ে যেতে পারেন।

Advertisement

কেন্দ্রীয় সরকারের যেরকম প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা (PM Aawas Yojana) রয়েছে, ঠিক সে রকমই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বাংলা আবাস যোজনার (Bangla Awas Yojana) মত প্রকল্প রয়েছে। যার মাধ্যমে গৃহহীন মানুষকে মাথার উপরে ছাদ তৈরি করে দেওয়ার বন্দোবস্ত করা যায়। মানুষের মৌলিক চাহিদা হলো খাদ্য, বস্ত্র এবং বাসস্থান। তাই যাদের মাথার উপরে ছাদ নেই, একটি ভালো বাড়ি নেই, তাদের দিকে লক্ষ্য রেখেই বাংলা আবাস যোজনা চালু করা হয়েছে।

Advertisement

পশ্চিমবঙ্গের যেকোনো জেলার বাসিন্দারাই এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন। এবার দেখে নেওয়া যাক এই প্রকল্প সম্বন্ধে বিস্তারিত।
গ্রাম বা শহর যে এলাকার বাসিন্দা হন না কেন, বাংলা আবাস যোজনায় নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন। রাজ্যের প্রায় 50 লক্ষ মানুষকে এই প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। যারা গরীব মানুষ, মাথার উপরে ছাদ নেই, একটি ভালো বাড়ি নেই, তাদের বাসস্থানের বন্দোবস্ত করে দেওয়ার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে এই যোজনা বাস্তবায়িত করা হচ্ছে।

বাংলা আবাস যোজনায় (Bangla Awas Yojana) প্রত্যেকেই 1 লক্ষ 20 হাজার টাকা পাবেন। এই টাকা উপভোক্তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে সরাসরি চলে যাবে। এবার এই যোজনায় আবেদনের জন্য কি কি যোগ্যতা প্রয়োজন, সেটা একবার দেখে নেওয়া যাক।

দেশের সবচেয়ে লাভজনক স্কীম, এখানে টাকা রেখেছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও।

Bangla Awas Yojana কারা টাকা পাবেন?

১) পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
২) পারিবারিক আয় দারিদ্র সীমার নিচে থাকতে হবে।
৩) এই যোজনায় একবার আবেদন করা যাবে। যদি পূর্বে আবেদন করে থাকেন তাহলে আর আবেদন করা যাবে না।
৪) আবেদনকারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে।

Advertisement

কি কি ডকুমেন্টস প্রয়োজন:
ভোটার কার্ড
আধার কার্ড
রেশন কার্ড
জব কার্ড
পাসপোর্ট সাইজের ফটো
বসবাসের প্রমানপত্র বা রেসিডেন্সিয়াল সার্টিফিকেট।

পুরানো নোট বিক্রি করে হয়ে যান কোটিপতি। কিভাবে করবেন জেনে নিন।

কোথায় কিভাবে আবেদন করবেন:
১) স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে গিয়ে যোগাযোগ করুন।
২) এখানে Bangla Awas Yojana এর ফরম সংগ্রহ করুন।
৩) ফর্মটিতে সমস্ত তথ্য দিয়ে পূরণ করুন।
৪) নিজের নাম, অভিভাবকের নাম, আধার কার্ড, ভোটার কার্ডের নম্বর, ব্যাংক অ্যাকাউন্টের ডিটেলস সহ সম্পূর্ণ তথ্য দিয়ে সেলফ অ্যাটেস্টেড করতে হবে।

এরপর একটি ঘামে ভরে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে জমা দিয়ে আসতে হবে।
গ্রাম পঞ্চায়েতের আধিকারিকরা আপনার আবেদন পুরোপুরি দেখার পরে আপনার সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। যেখানে বাড়ি তৈরি করা হবে সেই জায়গাও তারা পরিদর্শন করবেন। সমস্ত কিছু যদি ঠিকঠাক থাকে তাহলেই আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে চার কিস্তিতে টাকা পাঠানো হবে।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment