পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত জনপ্রিয় সরকারি প্রকল্পের তালিকা প্রকাশ। কোন প্রকল্পের কি সুবিধা ও আপনার জন্য কোনটি উপযোগী?

আপনি কি পশ্চিমবঙ্গের নাগরিক? অথচ রাজ্য সরকারের চালু করা এই সরকারি প্রকল্পগুলির কথা জানেন না। তাহলে হারাচ্ছেন বিরাট সুযোগ। সাধারণ মানুষের কল্যাণের জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার অনেক ধরণের স্কিম চালু করেছে। যেগুলোর মাধ্যমে ৮ থেকে ৮০ সকলেই কোনো না কোনো ভাবে উপকৃত হন। কিন্তু চিরাচরিত এই স্কিম গুলির বাইরেও এমন অনেক স্কিম রয়েছে যেগুলোর কথা রাজ্যের বেশিরভাগ মানুষ জানে না। এই গুলোর কোনোটিতে মোটা টাকা আর্থিক অনুদান, তো কোনোটিতে অন্যান্য ধরণের সাহায্য মেলে। এমনই ২০ টি প্রকল্পের বিষয়ে জানানো হলো এখানে। কোনটিতে কি সুবিধা, দেখে নিন।

Advertisement

পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় সরকারি প্রকল্পগুলো

নারী কল্যানে প্রকল্পগুলো

১. লক্ষ্মীর ভান্ডারঃ
রাজ্যের সবচেয়ে জনপ্রিয় সরকারি প্রকল্প বর্তমানে লক্ষ্মীর ভান্ডার হিসাবেই ধরা হয়। এর মাধ্যমে প্রতিমাসে সাধারণ মহিলাদের ১০০০ টাকা এবং সংখ্যালঘু মহিলাদের ১২০০ টাকা ভাতা দেওয়া হয়। আগে এর পরিমাণ ছিল ৫০০ এবং ১০০০।

Advertisement

২. রূপশ্রী প্রকল্পঃ
এই প্রকল্পের মাধ্যমে রাজ্য সরকার অভাবী পরিবারের বিবাহ যোগ্য মেয়েদের ২৫ হাজার টাকা অনুদান দেয় তাদের বিয়ের সময়।

৩. কন্যাশ্রী প্রকল্পঃ
রাজ্যের স্কুল ও কলেজের পড়ুয়াদের এই প্রকল্পের মাধ্যমে আর্থিক সাহায্য করা হয়। অভাবী ঘরের ১৮, ১৯ বছরের মেয়েরা যারা উচ্চমাধ্যমিক পাশ করে উচ্চশিক্ষা চালানোর চিন্তা করছে, কিন্তু টাকা নেই, তাদের ২৫ হাজার টাকা অনুদান দেওয়া হয়।

কৃষকদের জন্য

৪. কৃষকবন্ধু প্রকল্পঃ
পশ্চিমবঙ্গ সরকারের আরেকটি জনপ্রিয় প্রকল্প হলো কৃষকবন্ধু প্রকল্প। এই প্রকল্পে যাদের এক একরের বেশি চাষযোগ্য জমি রয়েছে সেই কৃষকদের ১০০০০ টাকা এবং যাদের এক একরের কম জমি রয়েছে তাদের ৪০০০ টাকা ভাতা দেওয়া হয়।

৫. বাংলা শস্য প্রকল্পঃ
এটি কৃষকদের জন্য। কৃষিকাজ চলাকালীন উৎপাদিত ফসল কোনো কারণে ক্ষতিগ্রস্থ হলে তার জন্য ক্ষতিপূরণ দেয় সরকার।

৬. আমার ফসল আমার গোলাঃ
কৃষকদের ফসলের গোডাউন তৈরি করার জন্য টাকা দেয় রাজ্য সরকার এই প্রকল্পে। সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত পাওয়া যায়।

Advertisement

পড়াশোনার জন্য

৬. স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপঃ
মাধ্যমিক পাশ থেকে স্নাতকোত্তর, বা যেকোনো কর্মমুখী কোর্সের পড়ুয়া ছাত্রছাত্রীরা এখানে ১০ হাজার থেকে ৬০ হাজার টাকা পর্যন্ত স্কলারশিপ পায়। এছাড়া নবান্ন স্কলারশিপ, উত্তর কন্যা স্কলারশিপ, মেধাশ্রী ও ঐক্যশ্রী প্রকল্পের মাধ্যমে পড়ুয়াদের টাকা দেওয়া হয়।

৭. সবুজ সাথীঃ
নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত পড়ুয়াদের বিনামূল্যে সাইকেল প্রদান করে রাজ্য সরকার এই প্রকল্পে।

. স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ডঃ
স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, কোন প্রফেশনাল কোর্স অথবা অন্যান্য কোনো প্রশিক্ষণের সঙ্গে যুক্ত ছাত্রছাত্রীদের এখানে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত আর্থিক সাহায্য দেয়া হয়।

সকলের জন্য প্রকল্প

৬. স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পঃ
নিম্ন মধ্যবিত্ত মানুষদের চিকিৎসায় সাহায্যের জন্য রাজ্য সরকার ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আর্থিক অনুদান প্রদান করে।

১১. রাজ্য পেনশন প্রকল্পঃ
বয়স্ক মানুষ, বিধবা মহিলা, প্রতিবন্ধী ব্যক্তি, বৃদ্ধ কৃষক, এছাড়া SC/ST শ্রেণি, লোকশিল্পীদের মাসিক ১০০০ টাকা দেওয়া হয়।

১৩. বিধবা পেনশন প্রতিবন্ধী পেনশনঃ
বিধবা পেনশন প্রকল্পে উপযুক্ত বিধবা মহিলাদের এবং প্রতিবন্ধী পেনশন প্রকল্পে উপযুক্ত প্রতিবন্ধীদের প্রতিমাসে ১০০০ টাকা অনুদান দেয় রাজ্য।

১০. চা সুন্দরী প্রকল্পঃ
চা বাগানের শ্রমিক, যাদের মাথার ওপর পাকা ছাদ নেই তাদের ঘর তৈরির জন্য এই প্রকল্পের টাকা দেয় রাজ্য সরকার।

অন্যান্য প্রকল্প

১৫. যুবশ্রী,
১৬. খাদ্যসাথী,
১৭. ভবিষ্যত ক্রেডিট কার্ড,
১৮. মৎসজীবী বন্ধু,
১৯. গতিধারা,
২০. পুরোহিত ভাতা সহ আরো অনেক স্কিম রয়েছে রাজ্যের, যেগুলি কেবল মাত্রই দরিদ্র মানুষের সুবিধার জন্য চালু করা।

আরও জানতে এখানে ক্লিক করুন।

সুতরাং সমাজের সমস্ত শ্রেণীর মানুষের জন্য কোনও না কোনও প্রকল্প চালু রয়েছে। তাই যেটি আপনার জন্য, সেটিতে আবেদন করে সরকারি সুবিধা ভোগ করতে পারেন। এবার কোন প্রকল্পের সুবিধা কেমন, জানতে হলে প্রকল্পের নামের উপর ক্লিক করলেই জানতে পারবেন।
Written by Nabadip Saha.

আরও পড়ুন, মেধাশ্রী স্কলারশিপ এর মাধ্যমে পড়ুয়ারা পাবে টাকা, এই ভাবে আবেদন করলেই হবে।

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment