পহেলা জানুয়ারী থেকে আরও আগে স্কুলে ঢুকতে হবে শিক্ষকদের, নইলে মাইনে কাটা যাবে। এক গুচ্ছ নিয়ম প্রকাশ শিক্ষা দপ্তরের।

পশ্চিমবঙ্গ স্কুল শিক্ষা দপ্তরের পক্ষ থেকে প্রকাশিত হলো ২০২৪ সালের একাডেমিক ক্যালেন্ডার (Academic Calender) এবং শিক্ষকদের আচরনবিধি। আর সেই সাথে পহেলা জানুয়ারী থেকে যে প্রত্যেক স্কুলে কড়া নিয়ম চালু হতে চলেছে, সেই ইঙ্গিত মিললো। শিক্ষকদের পূর্বের সময়ের আরও আগে স্কুলে ঢুকতে হবে। এবং নির্দেশ না মাঙ্কে কি কবে সেটাও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

Advertisement

গতকালই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বড়দিনের উপহার হিসেবে রাজ্য সরকারের সকল কর্মীদের ৪ শতাংশ DA ঘোষণা করেছেন। যার ফলে বেশ খুশির মেজাজে ছিলেন রাজ্য সরকারী কর্মী থেকে শিক্ষকেরা। কিন্তু এরই মাঝে শোনা গেল একটি দুঃসংবাদ। রাজ্যের এক শ্রেণীর কর্মচারীরা এবার হারাতে পারেন তাদের চাকরি। এক্ষেত্রে দুঃসংবাদটি মূলত শিক্ষকদের জন্য।

Advertisement

পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ নতুন বছরে শিক্ষকদের জন্য চালু করছে এক বিশেষ নিয়ম। এই নিয়ম না মানলে এরপর থেকে আর কোন শিক্ষককে চাকরিতে রাখা হবে না, স্পষ্ট বলে দিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। আপনিও কি শিক্ষক? নিশ্চয়ই চিন্তায় পড়ে গেলেন এই খবরটি শুনে? শিক্ষা দপ্তরের নির্দেশিকা জেনে নিন।

পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ প্রতি বছরের শুরুর আগেই নতুন বছরের জন্য একটি ক্যালেন্ডার প্রকাশ করে। এই ক্যালেন্ডার অনুযায়ী স্কুলের সমস্ত নির্দেশিকা তৈরি করা হয়। আর এবারও বড়দিনের আগেই মধ্যশিক্ষা পর্ষদ প্রকাশ করল সেই একাডেমিক ক্যালেন্ডার। যেখানে স্কুলের শিক্ষকদের জন্য জারি করা হলো নতুন একটি নিয়ম।

কি সেই নিয়ম?

শুক্রবার নতুন ক্যালেন্ডার মারফত পর্ষদ জানিয়েছে, এখন থেকে স্কুলের প্রতি শিক্ষককে আগের চেয়ে আরও ১০ মিনিট আগে ঢুকতে হবে স্কুলে গিয়ে। অর্থাৎ এতদিন পর্যন্ত এগারোটা থেকে স্কুল শুরু হলে শিক্ষকদের ঢুকতে হতো ১০:৫০ মিনিটে। কিন্তু এখন থেকে সেই সময় এগিয়ে নিয়ে এসে ১০:৪০ মিনিট করা হল। পর্ষদ জানাচ্ছে, যদি কোন শিক্ষক এই সময়ের পরে স্কুলে ঢোকেন তবে সেই দিনটিতে তার খাতায় লাল কালি পড়বে।

Advertisement
DA Announcement (4% ডিএ ঘোষণা)

আরো বলা হয়েছে, যদি শিক্ষকরা ১১:১৫ এর পর গিয়ে স্কুলে ঢোকেন তবে সেই দিনটিতে তাদের উপস্থিতিকেই গণ্য করা হবে না, অর্থাৎ এই দিন তাদের absent দেখাবে। অর্থাৎ এই দিনের মাইনে কাটা যাবে। আর তিন দিন লেট হলে একদিনের মাইনে কাটা যাবে অথবা একটি ছুটি হিসাবে ধরা হবে।

আরও পড়ুন, ভোটের কথা মাথায় রেখে চালের দাম কমালো মোদী সরকার। কত টাকা কমলো?

আরো কি কি নিয়ম?

তবে এখানেই ছাড় দেওয়া হল না শিক্ষকদের! মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এদিন জানিয়েছে যে আরো কয়েকটি বিষয়ে নজরদারি বাড়ানো হবে, যাতে প্রত্যেক শিক্ষাকে গতিপ্রকৃতি বোঝা যায়। শিক্ষকেরা কে কত ক্ষণ ক্লাস নিচ্ছেন, কটা ক্লাস নিচ্ছেন, তারা নিজেরাই ডায়েরিতে সেকথা লিখে রাখবেন। সেই বিষয়টি থাকবে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের নজরে। প্রধান শিক্ষক মারফতই মধ্যশিক্ষা পর্ষদ জানতে পারবে এই সকল বিষয় সম্পর্কে।

রান্নার গ্যাস বায়োমেট্রিক আপডেট করাতে বাড়িতে লোক পাঠানো হবে!! লাইন দেওয়ার দরকার নেই!

এছাড়াও পর্ষদ জানিয়েছে, আগের কতগুলি নিয়মেও সমান কড়াকড়ি থাকছে এখনো। যেমন, না জানিয়ে কোন ছুটি নিয়ে যেখানে সেখানে সেখানে যেতে পারবেন না শিক্ষকেরা। স্কুল চলাকালীন না বলে বেরিয়ে যাওয়া যাবে না ইত্যাদি।
সাধারনত প্রতিবছরের একাডেমিক ক্যালেন্ডারে শিক্ষকদের জন্য নিয়ম লেখা থাকে। কিন্তু এবারের মতো এরকম কড়া নির্দেশ, নজিরবিহীন।
Written by Bokolom.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment