Aadhaar Update Status – 2 বছরের বেশি পুরনো আধার কার্ড থাকলেই আপডেট করতে হবে, নইলে ঝামেলায় পড়বেন।

আধার কার্ডের এই কাজটি (Aadhaar Update Status) করে নিন, নাহলে পরে সমস্যা তৈরি হতে পারে, দেখুন।
বর্তমান সময়ে পরিচিতির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণপত্র হলো আধার কার্ড (Aadhaar Card). আপনি সরকারি, বেসরকারি কাজ থেকে শুরু করে যেখানেই যান না কেন, আপনার কাছে পরিচয় পত্র হিসেবে প্রথমেই যে জিনিসটি চাওয়া হয়, তাহল আধার কার্ড। ফলে আধার কার্ড এই মুহূর্তে ভারতবাসীর কাছে কতটা প্রয়োজনীয় গুরুত্বপূর্ণ নথি, তা সহজেই অনুমান করা যাচ্ছে। ফলে আধার কার্ড সংক্রান্ত কোনো জরুরি খবর যদি থাকে, তাহলে সেই খবরের দিকে গুরুত্ব দিয়ে নজর দেওয়া উচিত।

Advertisement

দেশের অধিকাংশ মানুষেরই আধার কার্ড রয়েছে। আর এই মুহূর্তে সব কাজেই আধার কার্ডের প্রয়োজন হয়। আধার ছাড়া যে কোনো জায়গাতেই পরিচয় পত্র দাখিল করতে গিয়ে নানা রকম সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। শুধু তাই নয়, সরকারি বহু প্রকল্পের পরিষেবা নিতে গেলে আধার কার্ডের (Aadhaar Update Status) প্রয়োজন। আধার নম্বরের উপর ভিত্তি করেই বিভিন্ন ধরনের পরিষেবা দেওয়া হয়ে থাকে।

Advertisement

এবার আধার কার্ড সংক্রান্ত একটি জরুরী খবর সামনে এসেছে। তা হল, আপনার আধার কার্ড যদি ১০ বছর আগে তৈরি করা হয়ে থাকে বা আপনার আধার কার্ড যদি ১০ বছরের অধিক সময়ের পুরনো হয়, তাহলে এক্ষুনি আপনার সেই আধার কার্ড আপডেট (Aadhaar Update Status) করে নেওয়া উচিত। যাতে ভবিষ্যতে নথি সংক্রান্ত কোনো তথ্য দাখিল করার ক্ষেত্রে সমস্যার সম্মুখীন হতে না হয়।

Aadhaar Update Status:

প্রশাসনিক সূত্রে জানানো হচ্ছে, আধার কার্ড ১০ বছরের পুরনো হয়ে থাকলে এক্ষুনি আপডেট করে নিন। একটি মিডিয়া রিপোর্ট অনুযায়ী জানা যাচ্ছে, আধার কার্ড আপডেট করার জন্য মার্চ মাসের শেষের দিকের মধ্যে করে ফেললে ভালো হয়। তাহলে পরবর্তীতে পরিচয় পত্রের ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা তৈরি হবে না।

Top 6 Government Schemes In India (সরকারী প্রকল্পের সুবিধা কিভাবে পাবেন)

০ থেকে ৫ বছর বয়সী শিশুদের আধার কার্ড তৈরি করার জন্য গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে শিশুদেরও বায়োমেট্রিক পদ্ধতির (Biometric System) ওপর জোর দিতে বলা হচ্ছে। এছাড়াও বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে আধার কার্ডের আপডেট (Aadhaar Update Status) করতে গেলে কোনোরকম অতিরিক্ত খরচ করতে হবে না বলে জানানো হয়েছে। সেক্ষেত্রেও বাল আধার কার্ডের শিশুর বয়স ৫ বছরের বেশি হয়ে গেলে ২ বছরের মধ্যে নিয়ের বায়োমেট্রিক করিয়ে নিতে হবে।

Advertisement

আধার কার্ড আপডেট করতে হলে আপনার নিকটবর্তী কোনো আধার কেন্দ্রে গিয়ে আপডেট করতে পারেন। আবার অন্যদিকে সম্পূর্ণ অনলাইনের মাধ্যমেই আপনার আধার কার্ডটি আপডেট (Aadhaar Update Status) করে নিতে পারেন।
এখনো পর্যন্ত যাদের আধার কার্ড তৈরি হয়নি বা কোনো কারণবশত সমস্যা রয়েছে, তারা এক্ষুনি গুরুত্ব দিয়ে আধার কার্ডের কাজ সম্পন্ন করে নিন।

মাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য অতিরিক্ত ট্রেন, পরীক্ষার দিনগুলিতে নতুন ট্রেনের টাইম টেবিল ও তালিকা দেখুন।

কেন্দ্র এবং রাজ্য, উভয় সরকারের যেকোনো সামাজিক প্রকল্পের পরিষেবা পেতে গেলে আপনার ব্যাংক একাউন্টের সঙ্গে আধার নম্বরের সরাসরি লিঙ্ক করে রাখা প্রয়োজন। আধার নম্বরের সঙ্গে ব্যাংক একাউন্টের লিংক থাকলে সরকারি প্রকল্পের টাকা পেতে সুবিধা হবে বলে জানানো হয়েছে। তবুও রাজ্যের তরফে কোনো মানুষই যেন জনকল্যাণমূলক কোনো প্রকল্পের বাইরে না থাকেন, সেদিকেও গুরুত্ব দিতে বলা হয়েছে।

হাতখরচের টাকা বাঁচিয়ে মাসে মাসে পোষ্ট অফিসে রেকারিং করুন, এককালীন ৮ লাখ টাকা

যদি কারো আধার কার্ড না হয়ে থাকে,তবুও তিনি প্রকল্পের সুবিধা পাবেন। তবে আধার কার্ডটিও তাকে পরবর্তীতে তৈরি করে নিতে হবে গুরুত্ব দিয়ে। ফলে আধার কার্ড এই মুহূর্তে একটি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় গুরুত্বপূর্ণ নথি হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। সুতরাং আপনার যদি ১০ বছরের পুরনো আধার কার্ড থাকে তবে একবার Aadhaar Update Status চেক করবেন, এবং বাল আধার কার্ড যাদের আছে তাদের ৫ বছর হয়ে গেলে তাদের ও Aadhaar Update Status করে নিতে হবে।
Written by Rajib Ghosh.

শেয়ার করুন: Sharing is Caring!

Leave a Comment